This Article is From Jul 06, 2018

আসামে তিন সাধুকে গণপিটুনির হাত থেকে বাঁচিয়ে দিল সেনা

উত্তরপ্রদেশ থেকে আসা ওই সাধুদের তিনজনের দলটির সদস্যদের বয়স 26 থেকে  31'এর মধ্যে।

জনরোষের হাত থেকে সাধুদের বাঁচিয়ে দিল সেনা

গুয়াহাটি:

হোয়াটস অ্যাপের উসকানিমূলক মেসেজে বিশ্বাস করে ক্রমাগত বাড়তে থাকা গণপিটুনির ঘটনা নিয়ে গোটা দেশ যখন উত্তাল, তখনই, ফের অমন একটি ঘটনা ঘটে গেল আসামের মহুর শহরে। যদিও, এখানে ঘটনাস্থলে ভারতীয় সেনা একদম ঠিক সময়ে পৌঁছে যাওয়ার ফলে তেমন কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা আর ঘটেনি। এইবারে জনরোষের কবলে পড়ল তিনজন সাধু। উম্মত্ত জনতা ভেবেছিল, তাদের বাচ্চাকে অপহরণ করতেই এসেছে ওই পুরোহিতরা।

উত্তরপ্রদেশ থেকে আসা ওই সাধুদের তিনজনের দলটির সদস্যদের বয়স 26 থেকে  31'এর মধ্যে। রাজ্যের রাজধানী গুয়াহাটি থেকে  250 কিলোমিটার দূরের মহুরে নিজেদের গাড়ি থেকে সবে নেমেছিলেন তাঁরা। এমন সময় আচমকাই তাঁদের দিকে আক্রমণ ধেয়ে আসে। উন্মত্ত জনতা তাঁদের গাড়ি থামিয়ে, তিনজনকে সেখান থেকে টেনে বের করে আনে। তারপর তুমুল বচসা শুরু হয়।


গত মাসেই করবি আংলং-এ ঠিক এইরকম পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয় দুজন নির্দোষ ব্যক্তিকে। এই ঘটনায় মহুরে  ভিড় যখন ক্রমশ বাড়তে আরম্ভ করে, সেই সময়ই কয়েকজন স্থানীয় মানুষ করবি আংলং-এর ঘটনাটির গন্ধ আঁচ করতে পেরেই কাছের সেনা শিবিরে গিয়ে তড়িঘড়ি খবর দেন। মুহূর্তের মধ্যে ঘটনাস্থলে চলে আসে সেনা। এবং, প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তিনজনের মধ্যে একজন সাধুকে উদ্ধার করে। বাকি দুই আতঙ্কগ্রস্ত সাধু ওই জনরোষের হাত থেকে কোনওমতে ছাড়া পেয়ে প্রায় আধ কিলোমিটার ধরে দৌড়ে যান। স্থানীয় মানুষরা তারপর তাঁদের উদ্ধার করে সেনার হাতে তুলে দেয়।