"আমার ছেলে কোথায়, চৌকিদার?", প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করলেন নাজিব আহমেদের মা

২০১৬ সালের ১৫ অক্টোবর বায়োটেকনলজির ছাত্র ২৭ বছরের নাজিব আহমেদ এবিভিপির ছাত্রদের একটি দলের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ার পরই মাহি-মান্ডবির হোস্টেল থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

তা?র ছেলেকে উদ্ধার করার জন্য তেমন হেলদোলই ছিল না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের, মনে করেন ফতিমা নাফিজ


নিউ দিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. তিন বছর আগে জেএনইউ-এর হোস্টেল থেকে নিখোঁজ হন নাজিব
  2. তাঁর মা বলেছেন এর জন্য দায়ী এবিভিপি, অন্য দাবি সিবিআই-এর
  3. গত শনিবার নরেন্দ্র মোদী সূচনা করেন 'ম্যায় ভি চৌকিদার' স্লোগানের

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাম্প্রতিকতম স্লোগান ‘ম্যায় ভি চৌকিদার' (আমিও চৌকিদার) সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলে দিয়েছে ইতিমধ্যেই। তার মাঝেই কেউ কেউ অন্যরকম প্রশ্ন তুলছেন। যেমনটা সব আকালেই কেউ না কেউ ঠিকই তোলেন। তাঁদের দাবি, সমাজের সমস্ত স্তরের জন্য 'চৌকিদার' একভাবে কাজ করে না। 'চৌকিদার' সকলের নয়। তেমনই একজন হলেন ফতিমা নাফিজ। যাঁর পুত্র নাজিব আহমেদ জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেল থেকে নাটকীয়ভাবে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন ৩ বছর আগে। তিনি #WhereIsNajeeb হ্যাশট্যাগ দিয়ে টুইটারে প্রশ্ন তোলেন, “আপনি যদি চৌকিদারই হন, তাহলে আমাকে জানান, আমার ছেলে কোথায়? কেন এবিভিপি-র গুন্ডাদের গ্রেফতার করা হয়নি? কেন দেশের তিনটি বড় গোয়েন্দাসংস্থাও আমার ছেলেকে খুঁজে পেল না?”

দীর্ঘ রোগভোগের পর প্রয়াত হলেন মনোহর পাররিকর

অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (এবিভিপি) তাঁর ছেলের নিখোঁজ হওয়ার জন্য দায়ী বলে দাবি করছেন ফতিমা নাফিজ। অন্যদিকে, ২০১৮ সালের ১৫ অক্টোবর এই মামলাটি বন্ধ করার সময় দিল্লি হাইকোর্টের কাছে সিবিআই জানিয়েছিল, সবদিক দিয়ে তদন্ত করেও কোনওরকম অসাধুতার হদিশ পায়নি তারা। যদিও, সিবিআই-এর রিপোর্টটি রাজনৈতিক চাপেই বানানো হয়ে বলে দাবি ফতিমার।

নিউজিল্যান্ডে বন্দুকধারীর সঙ্গে লড়াই করা পাকিস্তানিকে সম্মান জানাবে ইমরানের সরকার

২০১৬ সালের ১৫ অক্টোবর বায়োটেকনলজির ছাত্র ২৭ বছরের নাজিব আহমেদ এবিভিপির ছাত্রদের একটি দলের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ার পরই মাহি-মান্ডবির হোস্টেল থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। মামলায় যাদের নামে অভিযোগ ছিল, সেই ন'জন ছাত্রই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে। তদন্তের জন্য দিল্লি হাইকোর্টের কাছে বিশেষ তদন্তকারী দল গঠনের আবেদনও জানিয়েছিলেন নাজিবের মা। সেই আবেদন খারিজ করে দেয় আদালত।   

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................