ইমরান-হাসিনার টেলিফোনে কথা! ইন্দো-বাংলা সম্পর্কে ফাটলের শঙ্কা দিল্লির

তাদের মত, "বাংলাদেশ-পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর ফোনে কথা এবং জম্মু-কাশ্মীর ও সীমান্ত নিয়ে আলোচনা খুব দুর্লভ।"

ইমরান-হাসিনার টেলিফোনে কথা! ইন্দো-বাংলা সম্পর্কে ফাটলের শঙ্কা দিল্লির

ফাইল ছবি।

কলকাতা:

চলতি সপ্তাহের প্রথমে টেলিফোনে কথা হয়েছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর (Pak-Bangladesh telephonic conversation)। আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল ইন্দো-চিন ও ইন্দো-নেপাল সীমান্ত সমস্যা। এমনটাই জানতে পেরেছে নয়াদিল্লি (New Delhi)।  পাশাপাশি সূত্রের খবর, পাক প্রধানমন্ত্রী "ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীর" নিয়েও শেখ হাসিনার কাছে অভিযোগ করেছেন। আর এতেই কিছুটা উদ্বেগ বেড়েছে ভারতের। তাদের মত, "বাংলাদেশ-পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর ফোনে কথা এবং জম্মু-কাশ্মীর (Talks on J&K) ও সীমান্ত নিয়ে আলোচনা খুব দুর্লভ।" যদিও বাংলাদেশের তরফে কাশ্মীর বা সীমান্ত প্রসঙ্গ উত্থাপন করা হয়নি। শুধু সে দেশের বন্যা ও করোনা সংক্রমণ নিয়ে কথা হয়েছে।

যদিও বিষয়টি লঘু করতে দেশের প্রাক্তন বিদেশ সচিব কে শ্রীনিবাসন বলেছেন, "দুই আঞ্চলিক দেশের প্রধানমন্ত্রীদের মধ্যে কথা বলায় কোনও আকস্মিকতা নেই। আর যেহেতু দু'টি দেশই ইসলাম অধ্যুষিত। সেখানে কাশ্মীর প্রসঙ্গ থাকবে। এটাই বলাবাহুল্য।"

এদিকে, এই ফোন বৈঠক প্রসঙ্গে বিদেশ মন্ত্রক শুক্রবার বলেছে, "বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক ঐতিহাসিক ও দীর্ঘ। আমরা জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে ওদের স্থিতাবস্থাকে সম্মান করি। কাশ্মীর প্রসঙ্গ ভারতের অভ্যন্তরীণ ইস্যু, এটা ওরা বরাবর মেনে চলেছে।" যদিও সংশোধিত নাগরিকত্ব বিল নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে কিছুটা ক্ষোভ উগরে দিয়েছে ঢাকা। পাশাপাশি চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ঢাকায় নিযুক্ত পাক রাষ্ট্রদূতকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছে শেখ হাসিনা সরকার। আর এতেই উদ্বেগ বেড়েছে ভারতের।