কংগ্রেস-নাইডু জোট কোণঠাসা, তেলেঙ্গানায় সরকার গড়ছে কেসিআরের টিআরওএস

তেলেঙ্গানা বিধানসভা ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে যে খুব একটা ভুল করেননি কে চন্দ্রশেখর রাও তা বেশ হাড়েহাড়ে টের পাওয়া  গেল।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
কংগ্রেস-নাইডু জোট কোণঠাসা, তেলেঙ্গানায় সরকার গড়ছে কেসিআরের  টিআরওএস

নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সময় কেসিআর ও তার দলকে তীব্র সমালোচনা করে রাজ্য বিজেপি।


হায়দরাবাদ: 

তেলেঙ্গানা বিধানসভা ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে যে খুব একটা ভুল করেননি কে চন্দ্রশেখর রাও তা বেশ হাড়েহাড়ে টের পাওয়া  গেল। তাঁর দল তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি  তেলেঙ্গানা  বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস-চন্দ্রবাবু নাইডু জোটকে বড়  ব্যবধানে পরাজিত করে সরকার গড়তে  চলেছে ।

প্রাথমিক প্রবণতায় মধ্যপ্রদেশে এগিয়ে কংগ্রেস, পিছিয়ে বিজেপি

কংগ্রেস ও চন্দ্রবাবু নাইডুর পক্ষে, একক বিরোধী দল গঠনের প্রচেষ্টা রাজ্যে বিশেষ গতি পাবে না বলেই মনে  করেছিল  রাজনৈতিক মহল। গতকাল দিল্লিতে একটি বিশাল ২১-দলীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সম্মিলিত ফ্রন্ট গঠনের উদ্দেশ্যে এই বৈঠকে অগ্রণী ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল চন্দ্রবাবুকে। এক্সিট পোলে যদিও কেসিআর অর্থাৎ চন্দবাবুর জয়ের পূর্বাভাসই মিলেছিল যদিও জয়ের মার্জিন ছিল বেশ কম। কিন্তু  তেলেঙ্গানায় ধাক্কা খেল জোট।   

আশা করি সাংসদরা তাঁদের দল নয় মানুষের কল্যাণের জন্য সময় খরচ করবেনঃ মোদী

গণনার আগে অবশ্য নাটক কম হয়নি এই রাজ্যে। গতকাল, এক্সিট পোলের পূর্বাভাস সত্ত্বেও, কংগ্রেস ও নাইডুর তেলেগু দেশম পার্টি রাজ্যপাল এল নরসিমহনের সাথে সাক্ষাত করেন এবং অনুরোধ করেন যে যদি ভোটের রায় বিভক্ত হয়ে যায় তবে সেক্ষেত্রে  সরকার গঠনের প্রথম সুযোগ যাতে তাঁদেরই দেওয়া হয়।

নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সময় কেসিআর ও তার দলকে তীব্র সমালোচনা করে রাজ্য বিজেপি। বিজেপি জানিয়েছিল, এআইএমআইএম থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলে টিআরএসকে সমর্থন করতে পারে বিজেপি। কিন্তু দল মোটেও এই চুক্তিতে সবুজ সংকেত দেয়নি। বিজেপি নেতা কে লক্ষ্মণকে এই প্রস্তাবের জন দল থেকে কঠোরভাবে তিরস্কারও করা হয়।

5vce3d2s

কংগ্রেসের এবং চন্দ্রবাবু নাইডুর জন্য তেলেঙ্গানার ফলাফল হতাশার দিকেই এগোচ্ছে দ্রুত।

কংগ্রেসের নেতা হনুমন্ত রাও বলেন, তারা এআইএমআইএম-এর সহযোগী ছিলেন, কিন্তু আসাদউদ্দীন ওয়াইসি বলেন, “টিআরএস একক ভাবেই নির্বাচনে জয়লাভ করবে এবং বিকেলে এই বিষয়ে হনুমন্ত রাওয়ের সঙ্গে তিন ঘণ্টা বৈঠক করেন তিনি।

সংবাদ সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া জানাচ্ছে, তৃতীয় রাউন্ডে শেষ হওয়ার পর তাঁর নিকটতম টিজেএস প্রতিদ্বন্দ্বী ভবানী রেড্ডিকে ১৩০৪০ ভোটে টক্কর দিচ্ছেন টিআরএস মন্ত্রী টি হরিশ রাও। জাহিরাবাদে প্রথম রাউন্ডে টিআরএস মনোনীত প্রার্থী মানিক রাও ৭৩৮ ভোটে এগিয়ে আছেন।

১১৯ টি আসনে এই রাজ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত ৭ ডিসেম্বর।

 



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................