কান্নার জল খেয়ে মহিলার চোখের মধ্যে বেঁচে রয়েছে ৪ টি মৌমাছি! তাজ্জব চিকিৎসকরা

চিকিৎসকরা তাঁর চোখ পরীক্ষা করে যা দেখেন তা রীতিমতো বিস্ময়কর! চোখের ভিতর বাসা বেঁধেছে চারটি মৌমাছি! মৌমাছিরা বেঁচে রয়েছে ওই মহিলার চোখের জল খেয়ে!

কান্নার জল খেয়ে মহিলার চোখের মধ্যে বেঁচে রয়েছে ৪ টি মৌমাছি! তাজ্জব চিকিৎসকরা

চারটি জ্যান্ত মৌমাছিল মিলল তাইওয়ানের ওই মহিলার চোখ থেকে

চোখের মধ্যে ধুলো বালি, জীবাণু কত কিছুই তো পড়ে। কিন্তু তা বলে আস্ত মৌমাছি! একটা নয়, দু'টো নয় আস্ত চার খানা মৌমাছি চোখের মধ্যে পড়েছিল তাইওয়ানের বাসিন্দা হে'র। সম্প্রতি মারাত্মকভাবে চোখ ফুলে যাওাতে ওই মহিলা হাসপাতালে গিয়েছিলেন। ফুইন ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের চিকিৎসকরা যা দেখেন তাঁর চোখ পরীক্ষা করে তা রীতিমতো বিস্ময়কর! চোখের ভিতর বাসা বেঁধেছে চারটি মৌমাছি! মৌমাছিরা বেঁচে রয়েছে ওই মহিলার চোখের জল খেয়ে! এশিয়া ওয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চিকিৎসকেরা তাঁর চোখের মধ্যে থেকে চারটি মৌমাছিকেই বের করতে সক্ষম হয়েছেন। 

বাজারে আসছে ‘সম্মতি কন্ডোম'! দু'জনে রাজি হলে তবেই খুলবে কন্ডোমের প্যাকেট

গার্ডিয়ানের মতে, হাসপাতালের অপথালমোলজি বিভাগের প্রধান ডাঃ হং চি-টিং একটি সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, “আমি প্রথমে যখন দেখি মনে হয় কোনও পোকামাকড়ের পা, তাই আমি ধীরে ধীরে একটি মাইক্রোস্কোপের নীচে তাদের টেনে বের করে আনি। একটা একটা করে ওদের দেহকে ক্ষতিগ্রস্ত না করে আমি মৌমাছিদের বের করে আনি।" পৃথিবীতে এর আগে এমন ঘটনা কোত্থাও ঘটেনি বলেই মনে করেন তিনি।

অ্যাপল নিউজ নেটওয়ার্কের হসপিটালের সাংবাদিক সম্মেলনের ও হে'র একটি ভিডিও শেয়ার করেছে। তাঁদের মতে, একজন আত্মীয়ের কবর থেকে যখন আগাছা সরাচ্ছিলেন হে, তখনই ওই মৌমাছিগুলি তাঁর চোখে ঢুকে যায়। হে বুঝতে পারেন চোখে কিছু একটা পড়েছে। কিন্তু ভাবেন যে ধুলো ময়লা পড়েছে, তাই জল দিয়ে ভালো করে চোখ ধুয়ে নেন। 

ভাইরাল; সার্কাসে খেলা চলাকালীনই রিং মাস্টারকে আক্রমণ সিংহের! তারপর!

পরের দিন, ঘুম থেকে উঠে তিনি দেখেন তার চোখ বীভৎস ভাবে ফুলে উঠেছে। কালবিলম্ব না করে তিনি হাসপাতালে দৌড়ন।

Newsbeep

পাঁচ দিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন দৃষ্টিশক্তি ৮০% ফিরে পেয়েছেন তিনি। অল্পের জন্য দৃষ্টিশক্তি হারাননি তিনি, কারণ অস্বস্তি বা যন্ত্রণায় চোখ ঘষেন নি।

এই ছোট্ট মৌমাছি হ্যালিকটিডে (Halictidae) বা ‘ঘাম মৌমাছি' (sweat bees) নামেও পরিচিত। এই মৌমাছিরা মানুষের ঘামের ও শরীর থেকে নির্গত তরলের প্রতি আকৃষ্ট হয়। সাধারণত পাহাড় এবং কবরস্থানের কাছাকাছি এদের পাওয়া যায়।

Click for more trending news