সিরিয়ায় তুর্কি সেনার হাতে ধরা পড়লেন মৃত আইসিস প্রধান বাগদাদির বোন

৫ সন্তান সহ পুলিশের কব্জায় ISIS প্রধানের বোন, "আইসিসের অভ্যন্তরীণ কার্যকলাপ সম্পর্কে বাগদাদির বোনের কাছ থেকে অনেক গোপন তথ্য মিলবে", বলেন এক আধিকারিক

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
সিরিয়ায় তুর্কি সেনার হাতে ধরা পড়লেন মৃত আইসিস প্রধান বাগদাদির বোন

তুর্কি পুলিশের হাতে ISIS প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদির বোন


নয়াদিল্লি: 

সম্প্রতি খতম করা হয়েছে বিশ্ব সন্ত্রাসের ত্রাস ছড়ানো আইসিস প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদি। আমেরিকা দাবি করেছে যে তাঁরা নিকেশ করেছে ওই আতঙ্ককে (Al-Bagdadi)। তবে এবার কব্জায় এলেন মৃত আইসিস (ISIS) প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদির বোন। একজন উর্ধ্বতন আধিকারিক জানিয়েছেন যে তাঁকে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় শহর আজাজ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পাশাপাশি বাগদাদির বোনের স্বামী ও পুত্রবধূকেও আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ওই আধিকারিক জানান, ৬৫ বছর বয়সী রসমিয়া অবধকে আজাজের কাছে একটি পুলিশি অভিযানে ধরা হয়েছে। জানা গেছে, যখন বাগদাদির বোনকে ধরা হয়, তখন তাঁর সঙ্গে ছিল তাঁর পাঁচ সন্তানও। "আইসিসের অভ্যন্তরীণ কার্যকলাপ সম্পর্কে বাগদাদির বোনের (Al-Bagdadi's sister) কাছ থেকে অনেক গোপন তথ্য মিলবে", বলেন ওই আধিকারিক।

বাগদাদির বোন সম্পর্কে খুব অল্প তথ্যই এখনও পর্যন্ত পাওয়া গেছে। যদিও সংবাদ সংস্থা রয়টার্স বর্তমানে তুরস্কের পুলিশের হাতে ধরা পড়া মহিলা আইসিস প্রধানের বোনই কিনা সে ব্যাপারেও যে খুব নিশ্চিত তা বলা যাচ্ছে না। আপনাদের জানিয়ে রাখি, গত মাসে যখন মার্কিন সেনাবাহিনী বাগদাদিকে একটি গুহায় ঘিরে ফেলে, তখন নিজেকে উড়িয়ে দেন আইসিস প্রধান। আইসিসের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার অনলাইনে একটি অডিও টেপ প্রকাশ করে এই খবরের সত্যতা স্বীকার করে বলা হয় যে তাঁদের নেতা মারা গেছেন এবং এর জন্যে আমেরিকার বিরুদ্ধে তাঁরা প্রতিশোধ নেবে বলেও হুঙ্কার দেয় আইসিস।

আইসিসকে হারানোর লক্ষ্যে তাঁদের প্রধান বাগদাদির মৃত্যু বড় জয়: আমেরিকা

এই পরিপ্রেক্ষিতে ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ডের কমান্ডার জেনারেল কেনেথ ম্যাকেনজি সাংবাদিকদের বলেন যে সন্ত্রাসবাদী সংগঠনটির এবার অনেকটাই ছন্নছাড়া হয়ে যেতে পারে এবং দলটিকে আগের জায়গায় ফিরিয়ে আনতে সন্ত্রাসবাদীদের বেশ কিছুটা সময় লাগতে পারে, তবে এর অর্থ এই নয় আইসিস আর বিপজ্জনক নয়।

"আইএসআইএস সন্ত্রাসবাদের মতাদর্শে বিশ্বাসী, তাই আমরা এমন কোনও ভুল ধারণা করতে রাজি নই যে বাগদাদিকে খতম করার ফলে তাঁরা একেবারে শেষ হয়ে যাবে", ম্যাকেনজি বলেন, "তাঁরা এখনও বিপজ্জনকই রয়েছে"। এমনকি আমরা এও মনে করছি যে এরপর যে কোনও ভাবে প্রতিশোধ নেওয়ার চেষ্টা করবে আইসিস, তবে আমরা এর জন্য প্রস্তুত রয়েছি। তবে আমাদের এটাও মানতে হবে যে যেহেতু সন্ত্রাসবাদ তাঁদের কাছে একটি আদর্শ, তাই পুরোপুরি একে নির্মূল করা মুশকিল"।

‘ওয়াশিংটন পোস্ট'-এ আইসিস প্রধানের মৃত্যু সংবাদের শিরোনাম ঘিরে ক্ষোভ, তৈরি হল মিম

ম্যাকেনজি এও বলেন যে আইসিসি এবং এই ধরণের অন্যান্য সন্ত্রাসবাদী সংস্থার বিরুদ্ধে আমেরিকা লড়াই চালিয়ে যাবেই। যেখানেই সন্ত্রাসবাদ মাথাচাড়া দেবে সেখানেই পৌঁছে গিয়ে তাকে খতম করার চেষ্টা চালাবে মার্কিন সেনা বাহিনী।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................