দিল্লিতে কেন্দ্রীয় ভিস্তা প্রকল্পে স্থগিতাদেশ দেওয়ার আবেদন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

COVID-19 সারা দেশে জাঁকিয়ে বসেছে, এই সময় ওই প্রকল্পের সব কাজই বন্ধ রয়েছে, একথাও জানায় শীর্ষ আদালত

দিল্লিতে কেন্দ্রীয় ভিস্তা প্রকল্পে স্থগিতাদেশ দেওয়ার আবেদন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

Central Vista project: লুটিয়েন্স জোনে একটি নতুন সংসদ গড়ার চেষ্টা করছে সরকার, সেটিই হল ভিস্তা প্রকল্প

হাইলাইটস

  • কেন্দ্রীয় ওই প্রকল্পের জন্যে ব্যয় বরাদ্দ হয়েছে ২০,০০০ কোটি টাকা
  • ভিস্তা প্রকল্পের মাধ্যমে আসলে নতুন করে একটি সংসদ ভবন তৈরি করা হবে
  • ২০২১ সালের নভেম্বরের মধ্যে প্রকল্পটির কাজ শেষের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়
নয়া দিল্লি:

দেশের রাজধানী দিল্লিতে সরকারের কেন্দ্রীয় ভিস্তা প্রকল্পে স্থগিতাদেশ দেওয়ার আবেদন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট। তবে COVID-19 এর এই পরিস্থিতিতে সেখানে (Central Vista project) কেউ কিছু করতে যাচ্ছে না, একথাও বলে শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। ওই প্রকল্পটির জন্যে আনুমানিক ২০,০০০ কোটি টাকা ব্যয় হবে। আসলে দিল্লির লুটিয়েন্স জোনে একটি নতুন সংসদ ভবন গড়ার চেষ্টা করছে সরকার, সেটিই হল ভিস্তা প্রকল্প, সেখানে থাকবে অন্যান্য কেন্দ্রীয় সরকারি দফতরও। সম্প্রতি এই প্রকল্পটিই বন্ধ করার অনুরোধ করে শীর্ষ আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। সেই প্রসঙ্গে দেশের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে বলেন, "এই প্রকল্পের বিরুদ্ধে করা একই রকম আরও একটি আবেদন আদালতে মুলতুবি রয়েছে। করোনা পরিস্থিতি চলাকালীন কেউ সেখানে কিছু করতে যাচ্ছেন না এবং তার দরকারও নেই"।

"দরিদ্রদের সাহায্যে ৬৫.০০০ কোটি দিন": রাহুল গান্ধিকে রঘুরাম রাজনের পরামর্শ

আবেদনকারী রাজীব সুরি ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় ভিস্তা প্রকল্পের বিরুদ্ধে একটি পিটিশন দায়ের করেন এবং সেটিও শীর্ষ আদালতে বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে।

সেই প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি বলেন, "একই রকমের ওই আবেদনটি এখন মুলতুবি রয়েছে এবং এই আবেদনের মতো আরও আবেদন করার কোনও দরকার নেই"।

এর আগে করা পিটিশনে সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পের জন্যে যে জমি ব্যবহার করা হয়েছে সেই সিদ্ধান্তকেই চ্যালেঞ্জ জানানো হয়। আবেদনে দাবি করা হয় যে লুটিয়েন্স অঞ্চলে ৮৬ একর জায়গা জুড়ে থাকা ওই প্রকল্পটি একটি "হঠকারী পদক্ষেপ" এবং এর ফলে মানুষ খোলা জায়গা এবং সবুজ স্থানের আনন্দ উপভোগ করার থেকে বঞ্চিত হবে।

Newsbeep

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩,০০০ পেরলো, মৃত ১,০৭৪, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৬৭

কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে এই প্রকল্পটির দায়িত্ব দেওয়া হয় গুজরাটের একটি সংস্থা এইচসিপি ডিজাইনকে। ওই সংস্থাকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় যে, ওই অঞ্চলে নতুন করে গড়তে চলা রাইসিনা হিল কমপ্লেক্স এবং সংসদ ভবনের যেন কোনও বাইরের রূপের পরিবর্তন না হয়। গত বছরের অক্টোবরে গুজরাটের ওই সংস্থাকে গোটা ব্যাপারটি পরিকল্পনা ও ব্যবস্থা করার জন্যে বরাত দেওয়া হয়।

২০১৯ সালের অক্টোবরেই এই প্রসঙ্গে NDTV-কে আবাসন ও নগর বিষয়ক মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী জানান, "সংসদের বহির্মুখী রদবদল করার কোনও প্রশ্নই উঠছে না। বর্তমানের সংসদ ভবনে সাংসদদের সংখ্যার তুলনায় পর্যাপ্ত পরিমাণে বসার জায়গা নেই। আর তাছাড়া ওই অঞ্চলে যানজটও হয়ে যায়"। কেন্দ্রীয় ভিস্তা প্রকল্পের কাজ ২০২১ সালের নভেম্বরের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়, ইন্ডিয়া গেট এবং রাষ্ট্রপতি ভবনের মধ্যবর্তী অঞ্চলেই তৈরি হচ্ছে নতুন ওই সংসদ ভবন।