“একসঙ্গে কাজ করার পথ বের করা হবে”, কংগ্রেস এনসিপি নিয়ে বললেন উদ্ধব ঠাকরে

শিবসেনা, এনসিপি ও কংগ্রেসের কয়েকদফায় আলোচনা সমাপ্তি হয় সোমবার, শেষ মুহুর্তে কংগ্রেস জানায়, কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি এবং শরদ পাওয়ারের সঙ্গে আলোচনা প্রয়োজন

“একসঙ্গে কাজ করার পথ বের করা হবে”, কংগ্রেস এনসিপি নিয়ে বললেন উদ্ধব ঠাকরে

উদ্ধব ঠাকরে জানান, কংগ্রেস এবং এনসিপির সঙ্গে কাজ করার পথ বের করবে তাঁর দল

নয়াদিল্লি:

মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হওয়ার পর, এনসিপি ও কংগ্রেসের সঙ্গে জোট গড়ে সরকার গঠনের আশা ধরে রাখলেন  শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে (Uddhav Thackeray) । দীর্ঘদিনের বিরোধী এবং আদর্শগতভাবেও ভিন্ন দল কংগ্রেসের সঙ্গে মতপার্থক্য সরিয়ে রেখে, তিনি বলেন, একসঙ্গে কাজ করার পথ বের করেছিল মেহবুবা মুফতির পিপিডি এবং বিজেপি, বর্তমান পরিস্থিতিতে এটাও সম্ভব। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আমি খুঁজে বের করছি, কীভাবে ভিন্ন আদর্শের দলগুলি বিজেপির সঙ্গে জোট করে”, তিনি আরও বলেন, “আমরা একসঙ্গে কাজ করার পথ বের করব...আমাদের ৬ মাস সময় রয়েছে, এবং আমি বিজেপিকে আদর্শের প্রশ্ন করতে চাই...কী করে তারা নীতিশ কুমার, পাশোয়ান, পিডিপি এবং নাইডুর সঙ্গে যেতে পারে”।

“স্কাউন্ড্রেলদের সঙ্গে যাব না”, এনসিপির সঙ্গে জোট তত্ত্ব খারিজ করেছিলেন বাল ঠাকরে

শিবসেনা, এসিপি ও কংগ্রেসের মধ্যে বারেবারে আলোচনার সমাপ্তি ঘটে সোমবার, শেষ মুহুর্তে. যে সময়ে সমর্থনের চিঠি নিয়ে রাজ্যপালের কাছে যাওয়ার উদ্যোগ নিচ্ছিল শিবসেনা, কংগ্রেস জানিয়ে দেয়, কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি তারা এবং শরদ পাওয়ারের সঙ্গে আলোচনা প্রয়োজন।

কঠিন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ধীরে চলার বার্তা দিয়েছেন সনিয়া গান্ধি—ফলে শরদ পাওয়ারের দলকে সরকার গঠনে আহ্বান জানিয়েছেন রাজ্যপাল। সেই প্রস্তাবও কার্যকর হয়নি, শরদ পাওয়ার আরও সময় চাওয়ায়, এবং রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হয়।

সোমবার সনিয়া গান্ধিকে একাধিকবার ফোন করেন উদ্ধব ঠাকরে, কংগ্রেসের তরফে বলা হয়েছে সেটি ছিল সৌজন্য ফোনালাপ, শিবসেনা আশ্বাস পায়, মতপার্থক্য সরিয়ে রেখে একসঙ্গে কাজ করা হবে।

অযোধ্যা রায়ে কোনও কৃতিত্ব নিতে পারবে না কেন্দ্র, কটাক্ষ উদ্ধব ঠাকরের

মঙ্গলবার সাংবাদমাধ্যমে আহমেদ প্যাটেল বলেন, এখনও পর্যন্ত শিবসেনাকে প্রতিশ্রুতি দেয়নি শিবসেনা এবং কংগ্রেস। তিনি বলেন, “কয়েকটি বিষয় ঠিক করার পর, আলোচনা করবে কংগ্রেস এবং এনসিপি, শিবসেনার সঙ্গেও আলোচনা হবে”।

উদ্ধব ঠাকরে বলেন, “কংগ্রেস এবং এনসিপির মতোই, শিবসেনার প্রয়োজন কমন মিনিমাম প্রোগ্রাম”।

বিজেপির সঙ্গে তাদের ৩৫ বছরের জোট প্রসঙ্গে শিবসেনা প্রধান বলেন, “হ্যাঁ, আমরা একসঙ্গে এনেছে রাম মন্দির। তবে প্রতিশ্রুতি রেখেছেন ভগবান রাম। এখন রাজনীতি অন্যদিকে ঘুরছে। এই প্রক্রিয়াকে প্রয়োজনীয় সময় দিতে হবে”।

সব বিষয়েই আলোচনা হতে পারে, তবে মুখ্যমন্ত্রী পদ নয়: শিবসেনাকে বার্তা বিজেপির

৫০-৫০ হারে ক্ষমতা ভাগাভাগি এবং আড়াই বছরের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবি তোলা নিয়ে বিজেপির সঙ্গে মতপার্থক্যের জেরে দ্বিতীয়বার পদ্মবন ছেড়ে বেরিয়ে এল বাঘ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন শিবসেনার একমাত্র সদস্য।

More News