সংখ্যালঘুরা বিজেপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখতে চেয়েছে, শিবসেনাকে না: Sharad Pawar

সংখ্যালঘুরা চেয়েছেন বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করতে, শিবসেনাকে নয়। বৃহস্পতিবার এমন দাবি করেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ শরদ পাওয়ার (Sharad Pawar)।

সংখ্যালঘুরা বিজেপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখতে চেয়েছে, শিবসেনাকে না: Sharad Pawar

তিনি দাবি করেছেন, মহারাষ্ট্রের সংখ্যালঘু ভোটার বিজেপিকে ভোটে দেয়নি।(ফাইল)

হাইলাইটস

  • সংখ্যালঘুরা শিবসেনাকে না, বরং বিজেপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখতে চেয়েছে
  • বৃহস্পতিবার এমন দাবি করেছেন শরদ পাওয়ার
  • মহারাষ্ট্রে এখন শিবসেনা, কংগ্রেস আর এনসিপি'র মহা-অঘোরি সরকার
মুম্বই:

সংখ্যালঘুরা চেয়েছেন বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করতে, শিবসেনাকে নয়। বৃহস্পতিবার এমন দাবি করেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ শরদ পাওয়ার (Sharad Pawar)। অশীতিপর এই মারাঠা নেতার হাত ধরেই মহারাষ্ট্রে মহা-অঘোরি সরকার। যে সরকারের অংশ প্রবল ভাবে ভিন্ন মতাদর্শে বিশ্বাসী দুই দল, কংগ্রেস-শিবসেনা। আর আছে এনসিপিও (NCP)। যে নৌকার সওয়ারি শিবসেনা (Shiv Sena), সেই নৌকায় উঠেছে কংগ্রেস (Congress)! এই অসাধ্য সাধন করেছেন শরদ পাওয়ারই, দাবি এনসিপি সূত্রে। এবার সে রাজ্যের মহা-অঘোরি জোট সরকার গঠনের সূত্র প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে শরদ পাওয়ার বলেন, "সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা আমদের বলেছিলেন, এনসিপি, শিবসেনার সঙ্গে হাত মেলালে কোনও অসুবিধা নেই। শুধু যাতে বিজপি ক্ষমতার বাইরে থাকে।" এদিকে শিবসেনা-বিজেপি জোট গড়ে বিধানসভা ভোটে লড়লেও, মতবিরোধ বাধে সরকার গঠনের সময়। মুখ্যমন্ত্রিত্বের পদ ৫০:৫০ শেয়ারিং দাবি করতে থাকে শিবসেনা। অর্থাৎ আড়াই বছর বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী, পরের আড়াই বছর শিবসেনার মুখ্যমন্ত্রী।

ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের পক্ষে ছিলেন নেতাজি, বিরোধিতা করেন হিন্দু মহাসভার: Mamata Banerjee

প্রাক-নির্বাচনী আলোচনায় দুই শরিকে সেই সিদ্ধান্ত হয়েছিল, এমন দাবি করতে থাকে শিবসেনা। কিন্তু সেই প্রস্তাব পত্রপাঠ খারিজ করে দেয় বিজেপি। এরপর প্রায় একমাস ঝুলে থাকার পর ওই তিন দল মিলে মহারাষ্ট্রে সরকার গড়েছে। 

এদিন এনসিপি'র সংখ্যালঘু শাখা আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে শরদ পাওয়ার বলেছেন, ভোটের ফল ঘোষণার পর আমরা বিজেপি-শিবসেনার উদ্যোগের ওপর নজর রেখেছিলাম। প্রায় চার সপ্তাহ হয়ে যাওয়ার পরও যখন ওরা সরকার গড়তে অসমর্থ হয়, তখন আমরা উদ্যোগ নিই। এদিন জানান প্রবীণ ওই রাজনীতিবিদ। তাঁর দাবি, "মহারাষ্ট্র, উত্তর প্রদেশ, বিহার আর দিল্লির সংখ্যালঘুদের থেকে প্রস্তাব চাই। এনসিপি-শিবসেনার সম্ভাব্য জোট নিয়ে ওরা কি ভাবছেন? সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিদের থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল। তখনই ওরা বলেছিলেন, আপনারা শিবসেনাকে সঙ্গে নিয়ে সরকার গড়তে পারেন। কিন্তু বিজেপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখতেই হবে।"

‘বিজেপির আদর্শকে প্রতিটি পরিবারে পৌঁছে দিতে চাই'': প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর জেপি নাড্ডা

মহারাষ্ট্রের মহা-অঘোরি জোট সরকার দেশের অন্য রাজ্যের কাছে উদাহরণ বলেও এদিন দাবি করেন সে রাজ্যের প্রাক্তন ওই মুখ্যমন্ত্রী। এমনকি, মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের পিছনে সংখ্যালঘুদের পরামর্শকে কুর্নিশ জানাতে ভোলেননি শরদ পাওয়ার। তিনি দাবি করেছেন, মহারাষ্ট্রের সংখ্যালঘু ভোটার বিজেপিকে ভোটে দেয়নি। তাই বিজেপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখতেই ওরা সেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। সেই সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানো উচিত, এদিন বলেছেন শরদ পাওয়ার। 

এমনকি সংখ্যালঘু উন্নয়নে, সেই দফতর এনসিপি-কে দেওয়া হোক, এমন আবেদন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবারের ওই জমায়েত থেকে জানান তিনি। সেই আবেদন মেনে এনসিপি বিধায়ক নবাব মালিককে সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী করা হয়েছে বলেও খবর। 

More News