মর্মান্তিক! হোটেলের নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে দম আটকে মৃত ৭

ভদোদরা শহর থেকে ৩০ কিমি দূরে অবস্থিত ফার্টিকুই গ্রামের এক হোটেলে ঘটে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। 

মর্মান্তিক! হোটেলের নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে দম আটকে মৃত ৭

মৃতদের মধ্যে তিনজন হোটেল কর্মী (প্রতীকী)

গুজরাট:

গুজরাটের (Gujarat) একটি হোটেলের নর্দমা পরিষ্কারের সময় দম আটকে মৃত্যু হল সাতজনের। এঁদের মধ্যে ওই হোটেলের তিন কর্মীও রয়েছেন বলে খবর। 

ভদোদরা শহর থেকে ৩৫ কিমি দূরে অবস্থিত ফার্টিকুই গ্রামের এক হোটেলে ঘটে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা।  সাতজনের মধ্যে তিনজন ওই হোটেলের কর্মী। বাকি চারজন সাফাই কর্মী। ইতিমধ্যেই শনাক্ত করা গেছে সাতজনকেই। তিন হোটেল কর্মী অজয় বাসব, সহদেব বাসব আর বিজয় চৌহানের পাশাপাশি মৃত্যুফাঁদে প্রাণ হারান সাফাইকর্মী অশোক হরিজন, ব্রিজেশ হরিজন, মহেশ হরিজন ও মহেশ পতনওয়াড়িয়া। এই চার সাফাই কর্মীকে ডেকে আনা হয়েছিল দাভোইয়ের ধুবাবি গ্রাম থেকে।

 ঘটনা প্রসঙ্গে দাভোই থানার ডিএসপি কল্পেশ সোলাঙ্কি জানিয়েছেন, কোন গ্যআসে, কীভাবে মৃত্যু হল এঁদের। প্রকৃত ঘটনাই বা কি? জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

খবর, প্রথমে নর্দমা পরিষ্কার করতে নামেন মহেশ পতনওয়াড়িয়া। দীর্ঘক্ষণ তাঁর কোনো সাড়া না পেয়ে ম্যআনহল নেমে পড়েন বাকিরাও। তাঁদেরও কোনও খোঁজ না পাওয়া এবার গর্তে নামেন হোটেলের বাকি তিন কর্মী। সবাই বিষাক্ত গ্যাসে অচৈতন্য হয়ে পড়েন ঘটনাস্থলেই।

ইতিমধ্যেই থানায় হোটেল মালিকের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, সাফাই করপ্মীদের দিয়ে এভাবে নর্দমা পরিষ্কারের কাজ দীর্ঘদিন আগেই নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলনও হয়েছে দেশ জুড়ে। তারপরেও জাত-পাতের বিভেদে এবং বংশ পরম্পরায়  এই কাজ করে আসার জন্য আজও অন্য কাজ কপালে জোটে না ভারতীয় সাফাই কর্মীদের।

More News