বেশ খানিকক্ষণ বিশ্বজুড়ে স্তব্ধ থাকার পর চালু হল এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান পরিষেবা

এয়ার ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান অশ্বানি লোহানি এনডিটিভিকে বলেন, বিমানসংস্থার যাত্রী পরিষেবা ব্যাহত হয়েছে প্রভূতভাবে

দিল্লি ও মুম্বাই বিমানবন্দরে নাকাল হাজার হাজার যাত্রী।

নিউ দিল্লি:

শেষমেশ চালু হল এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান পরিষেবা। হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন কয়েক হাজার যাত্রী।  শনিবার সকাল আটটা পঁয়তাল্লিশ মিনিট পর্যন্ত গোটা বিশ্বেই এয়ার ইন্ডিয়ার (Air India ) পরিষেবা ব্যাহত ছিল। এই বিমান সংস্থার (Air India ) প্রধান সার্ভারটিতেই সমস্যা হওয়ায় এই গোলযোগ। এই সার্ভার বন্ধ (Server shutdown) হয়ে যাওয়ার ফলে শয়ে শয়ে যাত্রীকে নাকাল হতে হল বিভিন্ন বিমানবন্দরে অপেক্ষা করতে করতে। দিল্লি ও মুম্বাইয়ের (delhi & Mumbai) ব্যস্ত বিমানবন্দর থেকে ছবি ও ভিডিও পাঠিয়ে নিজেদের নাকাল অবস্থার কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়ে অভিযোগে ফেটে পড়লেন যাত্রীরা। টুইটারে গায়ত্রী রঘুরাম নামের এক যাত্রী লেখেন, "গোটা দেশেই সিটা (SITA) সফটওয়্যারটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কেবল মুম্বাই বিমানবন্দরেই আটকা পড়ে গেলেন অন্তত ২ হাজার যাত্রী"। তিনি মুম্বাই বিমানবন্দরের একটি ভিডিও শেয়ার করেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, যাত্রীরা চেক-ইন'এর অপেক্ষা করে চলেছেন দীর্ঘক্ষণ ধরে।

এয়ার ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান অশ্বানি লোহানি এনডিটিভিকে বলেন, বিমানসংস্থার যাত্রী পরিষেবা ব্যাহত হয়েছে প্রভূতভাবে। তবে, এটি একটি যান্ত্রিক ত্রুটি। খুব শীঘ্রই ব্যাপারটি ঠিক হবে বলে আশা করছি।

সংবাদসংস্থা এএনআই'কে এয়ার ইন্ডিয়ার এক মুখপাত্র জানান, "সিটা সার্ভার বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আমাদের কারিগরী দলটি প্রবলভাবে চেষ্টা করছে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভ এই সমস্যা মেটানোর। খুব তাড়াতাড়িই সার্ভার ঠিক হয়ে যাবে। এই অনিচ্ছাকৃত অসুবিধা সৃষ্টির জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত"।

যদিও, কানেক্টিং ফ্লাইট মিস হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা এখন বহু যাত্রীর মনে। এক যাত্রী টুইটারে বলেই বসলেন, "আশা করব, বিমানসংস্থাটি আমাদের কথা ভেবে দ্রুত পরিস্থিতি ঠিক করার চেষ্টা করবে। কানেক্টিং ফ্লাইট মিস হয়ে গেলে তার থেকে খারাপ আর কিছুই হবে না"।

More News