‘ব্যাট পেটানো’ কাণ্ডে ছেলে আকাশকে ‘কাঁচা খেলোয়াড়’ বললেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়

আকাশের মুক্তি উপলক্ষে উৎসবে মাতে তাঁর সমর্থকরা। বাড়িতে ঢোকার আগে আকাশকে আরতি করা হয়। সঙ্গে থাকা পুলিশ কর্মীকেও দেখা যায় সমর্থকদের দেওয়া মিষ্টি খেতে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

ছেলের পক্ষ সমর্থন করে মুখ খুললেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়


ইন্দোর: 

হাইলাইটস

  1. গত সপ্তাহেই পুলিশ গ্রেফতার করেছিল আকাশকে
  2. রবিবার তিনি জামিন পান
  3. সমর্থকরা মহা সমারোহে মালা পরিয়ে তাঁকে জেল থেকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যান

বর্ষীয়ান বিজেপি (BJP) নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র (Kailash Vijayvargiya) ছেলে আকাশ (Akash Vijayvargiya) ব্যাট দিয়ে মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) এক পৌর আধিকারিককে পিটিয়ে শিরোনামে এসেছিলেন গত সপ্তাহেই। পুলিশ গ্রেফতার করেছিল আকাশকে। পরে অবশ্য তিনি জামিন পেয়ে যান। এবার ছেলের প্রসঙ্গে মুখ খুললেন বাবা কৈলাস। জানালেন, তাঁর ছেলে ‘কাচ্চা খিলাড়ি' (কাঁচা খেলোয়াড়)। গত সপ্তাহে আকাশকে গ্রেফতার করার পরে রবিবার তিনি জামিন পান। পরিবারের সদস্য ও সমর্থকরা রীতিমতো মহা সমারোহে মালা পরিয়ে তাঁকে জেল থেকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যান। ইন্দোর জেল, যেখানে আকাশ বন্দি ছিলেন, তার সামনে অন্যদের সহ্গে কৈলাসও উপস্থিত ছিলেন। কৈলাস জানিয়েছেন, ‘‘আমার মনে হয়, দু'তরফেই খারাপ ব্যবহারের ঘটনা ঘটেছে। আকাশজি বা পৌর কমিশনার দু'জনেই কাঁচা খেলোয়াড়। এটা কোনও বড় ব্যাপারই ছিল না। কিন্তু এটাকে বড় বানানো হল।''

ব্যাট-পেটা করে সমর্থকের মালায় ঢেকে জেল থেকে মুক্তি কৈলাশ পুত্র আকাশ বিজয়বর্গীয়র

প্রথমবার বিধায়ক হয়েছেন আকাশ। ইন্দোর-৩ থেকে তিনি ভোটে জিতেছেন। গত বুধবার ইন্দোরে এক পৌর আধিকারিককে নিগ্রহ করেন তিনি। ৩৪ বছরের রাজনীতিবিদ ও তাঁর সঙ্গীসাথীরা পুলিশ ও টিভি কর্মীদের সামনেই ওই পৌর আধিকারিককে ব্যাট দিয়ে মারধর করেন। ভিডিওটি প্রকাশিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাল হয়ে যায়। সরব হন বিরোধীরা।

পুর আধিকারিক পেটানো মামলায় কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের ছেলের জামিন

0rhqg43s

জবরদখল বিরোধী অভিযানে গিয়েছিলেন মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের ওই আধিকারিকরা। এরপরই তাঁদের সঙ্গে আকাশ ও তাঁর সঙ্গীদের গণ্ডগোল হয়। আকাশের অভিযোগ, ওই আধিকারিকরা বাড়িগুলির মহিলা বাসিন্দাদের টেনে বাড়ি থেকে বের করে দিচ্ছিলেন ও মৌখিক ভাবেও নিগ্রহ করছিলেন।

বিজেপির জাতীয় সচিব কৈলাস বিজয়বর্গীয়র মতে, ওই আধিকারিকদের ‘ঔদ্ধত্য' দেখানো উচিত হয়নি। পাশাপাশি তাঁর ছেলেকে একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে দেখা উচিত ছিল।

রবিবার আকাশের মুক্তি উপলক্ষে উৎসবে মাতে তাঁর সমর্থকরা। ইন্দোরে বিজেপি অফিস বা আকাশের বাড়ির কর্মস্থল সব জায়গাতেই উৎসবে সামিল হয় তারা। বাড়িতে ঢোকার আগে আকাশকে আরতি করা হয়। এমনকী, আকাশের সঙ্গে থাকা পুলিশ কর্মীকেও দেখা যায় সমর্থকদের দেওয়া মিষ্টি খেতে। শনিবার ভোপালের বিশেষ আদালত তাঁকে জামিন দিলে বাজি ফাটিয়ে সেই খবরে আনন্দ প্রকাশ করতে দেখা যায় আকাশের সমর্থকদের।

r899dmko

নিজের কৃতকর্মের জন্য তাঁর কোনও আফশোস নেই, একথা জানিয়ে দিয়েছেন আকাশ। জেল থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, ‘‘জনতার স্বার্থে আমি যা করেছি, তার জন্য নিজেকে দোষী ভাবা বা অস্বস্তিতে পড়ার কোনও কারণ নেই। এলাকা ও সেখানকার বাসিন্দাদের ভালর জন্য আমার কাজ আমি চা‌লিয়ে যাব। ভগবানের কাছে প্রার্থনা করি আমাকে যেন উনি আবার ব্যাট হাতে নেওয়ার সুযোগ না দেন‌।''

বিজেপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দলের মধ্যপ্রদেশ শাখার কাছ থেকে এই ঘটনার বিষয়ে রিপোর্ট চেয়ে পাঠান। প্রসঙ্গত, আকাশ বন্দি থাকাকালীন তাঁর সমর্থকরা জেলের বাইরে ভিড় করে ছিলেন।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................