জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে আপস! সাসপেন্ড অন্ধ্রপ্রদেশের IPS

জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে আপস (endangered national security) করে সাসপেন্ড হলেন অন্ধ্রপ্রদেশের আইপিএস ভেঙ্কটেশ্বর রাও (senior IPS officer in Andhra Pradesh)। শনিবার সে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতর বিবৃতি জারি করে সেই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে। যে বিবৃতিতে উল্লেখ, "বিদেশের এক প্রতিরক্ষা সামগ্রি উৎপাদক সংস্থাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কর্মপদ্ধতি এবং ইন্টালিজেন্স তথ্য (intelligence protocols) ফাঁস করেছে।"

১৯৮৯ সালের এই আইপিএস আধিকারিককে সাসপেন্ড করেছে অন্ধ্রপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

হাইলাইটস

  • শনিবার সাসপেন্ড করা হয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশের এই আইপিএসকে
  • জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে আপোস করার জন্য তাঁকে এই শাস্তি
  • প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর ঘনিষ্ঠ ছিলেন ছিলেন এই পুলিশ কর্তা
হায়দরাবাদ:

জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে আপস (endangered national security) করে সাসপেন্ড হলেন অন্ধ্রপ্রদেশের আইপিএস ভেঙ্কটেশ্বর রাও (senior IPS officer in Andhra Pradesh)। শনিবার সে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতর বিবৃতি জারি করে সেই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে। যে বিবৃতিতে উল্লেখ, "বিদেশের এক প্রতিরক্ষা সামগ্রি উৎপাদক সংস্থাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কর্মপদ্ধতি এবং ইন্টালিজেন্স তথ্য (intelligence protocols) ফাঁস করেছে।" ওই বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, সাসপেন্সন চলাকালীন ওই আইপিএস বিজয়ওয়ারাতে নিযুক্ত থাকবেন। এবং স্বরাষ্ট্র দফতরকে না জানিয়ে রাজ্য এবং দেশ ছাড়তে পারবেন না।  জানা গেছে বর্তমানে ওই আইপিএস ডিজি পদমর্যাদার আধিকারিক। কিন্তু যখন তিনি ওই কীর্তি করেছিলেন তখন এডিজি পদমর্যাদার ছিলেন ১৯৮৯ ব্যাচের ওই আইপিএস।

ভোটযন্ত্রে কারচুপি হয়েছে, অভিযোগ করে ভিডিও প্রকাশ করল আপ

তাঁর ওপর চলা তদন্ত সংক্রান্ত নথি হাতে পেয়েছে এনডিটিভি। যে নথিতে উল্লেখ, ওই আইপিএস ইজরাইয়েলের এক প্রতিরক্ষা সামগ্রি উৎপাদক সংস্থার সঙ্গে যোগসাজশ করে খুব গোপনীয় গোয়েন্দা তথ্য ও নজরদারী সংক্রান্ত নথি তাঁর ছেলে চেতন সাই কৃষ্ণার হাতে তুলে দিয়েছিলেন। এই চেতন সাই, ওই ইজরায়েলি সংস্থার মুখপাত্র হিসেবে কাজ করেন। সেই ইজরায়েলি সংস্থার সব নিলাম পদ্ধতিতে অংশ নেয় সাইয়ের সংস্থা আকাসাম অ্যাডভান্স সিস্টেম প্রাইভেট লিমিটেড। ভেঙ্কটেশ্বর রাওয়ের এই আচরণ ভারতীয় পুলিশ সার্ভিস আইনের রীতি বিরুদ্ধ, উল্লেখ ওই তদন্ত নথিতে।

চাকরিতে সংরক্ষণ ও পদোন্নতি মৌলিক অধিকার নয়, তাই রাজ্যর কোনও দায় নেই: সুপ্রিম কোর্ট

ওই তদন্তে আরও দাবি, "এভাবে তথ্য পাচার করে ওই আইপিএস সেই প্রতিরক্ষা সামগ্রি উৎপাদক সংস্থাকে সাহায্য করেছে ভারতীয় পুলিশের অস্ত্রভাণ্ডারের সঙ্গে আপোস করতে।এর ফলে নিম্নমানের ও ব্যবহারের অযোগ্য সামগ্রি হাতে পেতে পারে রাজ্য পুলিশ। যা ভারতীয় পুলিশ ব্যবস্থার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ফাঁক তৈরি করবে। এমন দাবি করেছে ওই তদন্ত নথি। নিজের ছেলেকে আর্থিক লাভের মুখ দেখাতে এভাবে তথ্য ফাঁস করেছেন ওই আইপিএস, জানিয়েছে অন্ধ্র পুলিশের একটা সূত্র। 

রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনে এই আইপিএস প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর ডান হাত হিসেবে পরিচিত ছিলেন। যদিও গত বছর রাজ্যে ক্ষমতার পালা বদলের পর ভেঙ্কটেশ্বর রাওকে কম গুরুত্বপূর্ণ পদে বদলি করে জগন্মোহন রেড্ডির সরকার।  

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com