ভার্চুয়াল র‌্যালির পিছনে কয়েক কোটি খরচ করে শুধুই মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে বিজেপি, তোপ অখিলেশের

BJP Virtual Rallies: মঙ্গলবার ‘জনসংবাদ র‌্যালি'-র মাধ্যমে বাংলায় সরকার পরিবর্তনের ডাক দেন অমিত শাহ, একইরকম ভার্চুয়াল র‌্যালি করেন বিহার এবং ওড়িশাতেও

ভার্চুয়াল র‌্যালির পিছনে কয়েক কোটি খরচ করে শুধুই মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে বিজেপি, তোপ অখিলেশের

Akhilesh Yadav: বিজেপির ভার্চুয়াল র‌্যালির তীব্র সমালোচনা করেন সমাজবাদী পার্টির প্রধান (ফাইল চিত্র)

হাইলাইটস

  • বিজেপির ভার্চুয়াল সমাবেশ নিয়ে তোপ দাগলেন অখিলেশ যাদব
  • করোনা পরিস্থিতিতে যেভাবে বিপুল টাকা খরচ হচ্ছে এর পিছনে তা নিয়ে সমালোচনা
  • "মিথ্যে কথায় বিশ্বরেকর্ড গড়বে বিজেপি", বললেন সমাজবাদী পার্টির প্রধান
লখনউ:

বিজেপির ভার্চুয়াল র‌্যালি (BJP Virtual Rallies) নিয়ে এবার গেরুয়া শিবিরকে তুলোধোনা করলেন সমাজবাদী পার্টির (Samajwadi Party) প্রধান অখিলেশ যাদব । যেভাবে সম্প্রতি কোটি কোটি টাকা খরচ করে বিহার ও পশ্চিমবঙ্গে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারের জন্য ভার্চুয়াল র‌্যালি করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি তার জন্যে পদ্মের দলের তীব্র সমালোচনা করেন তিনি (Akhilesh Yadav)। মঙ্গলবারই ‘জনসংবাদ র‌্যালি'-র মাধ্যমে বাংলায় (West Bengal) সরকার পরিবর্তনের ডাক দেন বিজেপির দুঁদে নেতা অমিত শাহ। গতকালের (৯ জুন) সমাবেশ থেকেই একরকম রাজ্যে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারের সূচনা করে দিলেন তিনি। তবে শুধু পশ্চিমবঙ্গই নয়, গত দু'দিনে বিজেপির চাণক্য একইরকম ভার্চুয়াল র‌্যালি করেন বিহার এবং ওড়িশাতেও।

"করোনা এক্সপ্রেসই আপনার সরকারকে বাংলার বাইরে পাঠাবে", মমতাকে বিঁধলেন অমিত শাহ

বিজেপির এই ভার্চুয়াল প্রচারেরই তীব্র সমালোচনা করে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "বিহারের মতোই পশ্চিমবঙ্গেও কয়েক কোটি টাকা খরচ করা হয়েছে ওই ভার্চুয়াল সমাবেশে। যদিও বিজেপি একথাই বলতে চায় যে, এগুলোর কোনওটাই নির্বাচনী প্রচার নয়, তবে কেন বুথ স্তরেও পৌঁছানোর চেষ্টা চলছে? বিজেপি আসলে মিথ্যা কথা বলে বলে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে ফেলতে চায়"। টাকা ছড়িয়ে বিরোধীদের দুর্বল করতে চাইছে বিজেপি এমন অভিযোগও করেন অখিলেশ যাদব।

কর্মক্ষেত্রে মাস্ক পরা আবশ্যিক, না পরলে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ রাজ্য সরকারের

গত রবিবার বিহারে অমিত শাহের ভার্চুয়াল র‍্যালিতে ৭০ হাজার এলইডি লাগানো হয়েছিলো এবং প্রায় ৪৩ লক্ষ মানুষ সেই সভা শুনেছেন বলে দাবি করা হয়েছে বিজেপির পক্ষে। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিলো বিহারের র‍্যালির জন্য বিজেপি ১০০ কোটি টাকার বেশি খরচ করেছে। যদিও পশ্চিমবঙ্গের পক্ষ থেকে এখনও মঙ্গলবারের ভার্চুয়াল সমাবেশের জন্যে ঠিক কত টাকা খরচ হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট করে জানানো হয়নি।

এদিকে মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গে করা ভার্চুয়াল সমাবেশ থেকে অমিত শাহ বলেন, খুব তাড়াতাড়ি বাংলায় বিজেপি সরকার আসতে চলেছে। 'করোনা এক্সপ্রেস'ই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে বাংলা থেকে বাইরে পাঠিয়ে দেবে, পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রতি তৃণমূল সরকারের বঞ্চনার অভিযোগ তুলে ধরে বলেন অমিত শাহ। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মকে ব্যবহার করে রাজ্যের মানুষকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল সরকার হঠানোর ডাকও দেন বিজেপির চাণক্য।

করোনা পরিস্থিতিতে চরম আর্থিক সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে দেশ। এরই মধ্যে ভার্চুয়াল  র‌্যালির নামে বিজেপির বিপুল অর্থব্যয় নিয়ে জোর আলোচনা শুরু হয়েছে দেশের সব প্রান্তেই। সাম্প্রতিক সঙ্কটময় পরিস্থতিতে প্রচারের নামে বিজেপির এই বিপুল অর্থ খরচ কতটা যুক্তিসঙ্গত তা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে বিভিন্ন মহলে।