১৫ জানুয়ারির মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ করার বিধি: সুপ্রিম কোর্টকে জানাল কেন্দ্র

১৫ জানুয়ারি Social Media-য় বিদ্বেষমূলক বক্তব্য, ভুয়ো সংবাদ, মানহানিকর পোস্ট এবং দেশবিরোধী কার্যকলাপ নিয়ন্ত্রণের নতুন নিয়ম চূড়ান্ত করা হবে

১৫ জানুয়ারির মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ করার বিধি: সুপ্রিম কোর্টকে জানাল কেন্দ্র

সরকার জানিয়েছে যে Social Media নিয়ন্ত্রণের নিয়মগুলি ১৫ জানুয়ারির মধ্যে চূড়ান্ত করা হবে

নয়া দিল্লি:

১৫ জানুয়ারি সামাজিক যোগাযোগ (Social Media) মাধ্যমে বিদ্বেষমূলক বক্তব্য, ভুয়ো সংবাদ, মানহানিকর পোস্ট এবং দেশবিরোধী কার্যকলাপ নিয়ন্ত্রণের নতুন নিয়ম চূড়ান্ত করা হবে, সুপ্রিম কোর্টকে জানাল কেন্দ্রীয় সরকার। মাদ্রাজ, বোম্বাই এবং মধ্য প্রদেশ উচ্চ আদালতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম সংক্রান্ত বিচারাধীন সমস্ত মামলাগুলিগুলিও স্থানান্তকরণের নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। জাতীয় নিরাপত্তায় প্রভাব পড়তে পারে এই যুক্তিতে ফেসবুক (Facebook) এবং হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) সংক্রান্ত মামলাগুলি সুপ্রিম কোর্টে স্থানান্তর করার নির্দেশের জন্যে আবেদন করা হয়েছিল। সুপ্রিম কোর্ট জানায়, সোশ্যাল মিডিয়া সম্পর্কিত সমস্ত মামলার শুনানি জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে করা হবে। যদিও তামিলনাড়ু সরকার এখন পর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়া সংস্থাগুলির মামলাগুলি শীর্ষ আদালতে স্থানান্তরিত করার প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে চেষ্টা চালাচ্ছিল। তামিলনাড়ুর প্রতিনিধিত্বকারী আইনজীবী বলেছেন, সরকার বিশ্লেষণের জন্য যে তথ্য চায় তার ডিক্রিপ্ট করা উচিত হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুকের ।

ট্রাম্প, ওবামাকে পিছনে ফেলে ইনস্টাগ্রামে সবচেয়ে বেশী ফলোয়ার্স প্রধানমন্ত্রী মোদির

"ভারতে আসার পরে হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুক বলতে পারে না যে তারা তথ্য ডিক্রিপ্ট করতে পারে না," তামিলনাড়ু এই সংক্রান্ত মামলাগুলি সুপ্রিম কোর্টে প্রেরণের বিষয়ে সম্মত দেওয়ার আগে এই যুক্তিই সাজান সে রাজ্যের আইনজীবী।

হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুক, দুটি সংস্থাই জানিয়েছে যে তাদের কাছে তথ্য ডিক্রিপ্ট করার "কী" নেই এবং তারা কেবল কর্তৃপক্ষকেই সহযোগিতা করতে পারে।

Facebook: ৪০ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর ফাঁসের অভিযোগ

সুপ্রিম কোর্ট বলেছে যে, এ যেন "সরকার ঘরের মালিকের কাছ থেকে চাবি চাইছে এবং মালিক জানাচ্ছে যে চাবি তাঁর কাছে নেই।"

ইন্টারনেট ফ্রিডম অ্যাসোসিয়েশনের অপর আবেদনকারী, শীর্ষ আদালতকে বলেছিল যে তাঁর আবেদন ইতিমধ্যে সুপ্রিম কোর্টের অন্য একটি বেঞ্চের সামনে বিচারাধীন রয়েছে এবং এই বেঞ্চ "নাগরিকদের অধিকারকে পদদলিত না করার" বিষয়টি নিয়ে বিবেচনা করতে পারে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News