This Article is From Aug 16, 2019

সপ্তাহান্তেই কাশ্মীরে চালু হবে ফোন, আগামী সপ্তাহে খুলবে স্কুল: আধিকারিক

পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য না করে, সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীরে সাংবাদমাধ্যম এবং অন্যান্য বিষয়ে কড়াকড়ির সম্পর্কিত বিষয়টি তুলবে

পুরনো ছন্দে ফিরতে চলেছে কাশ্মীর

হাইলাইটস

  • সূত্র মারফৎ NDTV জানতে পেরেছে, ফোন পরিষেবা চালু নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি
  • কাশ্মীরের নিষেধাজ্ঞা কয়েকদিনেই প্রত্যাহার, সুপ্রিম কোর্টে জানাল কেন্দ্র
  • নিরাপত্তাসংস্থাকে বিশ্বাস করা উচিত সুপ্রিম কোর্টের, আদালতে বলল কেন্দ্র
নয়া দিল্লি:

জম্মু ও কাশ্মীরের সরকারি অফিসগুলি পুরোপুরিভাবেই কাজ করছে বলে শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে জানালেন রাজ্যের মুখ্যসচিব বিভিআর সুব্রহ্মণ্যম। সেখানে জারি করা অন্যান্য নিষেধাজ্ঞা এবং কড়াকড়িগুলিও প্রত্যাহার করা হবে বলে জানান তিনি। মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, আগামী সপ্তাহে এলাকা বিশেষে স্কুলগুলি খোলা হবে এবং ধাপে ধাপে ফোন পরিষেবা চালু করা হবে। শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যসচিব বিভিআর সুব্রহ্মণ্যম বলেন, “শুক্রবারের প্রার্থনার পর, আগামী কয়েকদিনে ধাপে ধারে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হতে পারে। সপ্তাহ শেষের পরেই, এলাকা বিশেষে স্কুল খোলা হবে, যাতে শিশুদের পড়াশোনায় কোনও ব্যাঘাত না ঘটে”।

তাঁর কথায়, “আজ থেকেই সরকারি অফিসগুলি পুরোপুরিভাবেই কাজ করছে”।

ল্যান্ডলাইন টেলিফোন পরিষেবা বন্ধ নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে সুব্রহ্মণ্যম বলেন, “এক্সচেঞ্জ অনুযায়ী, পরপর সেগুলি চালু করা হবে”।

শুক্রবার কাশ্মীর নিয়ে রুদ্ধদ্বার আলোচনা করবে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ

কাশ্মীরের নেতাদের হেফাজতে রাখা নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির দিকে নজর রেখেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তাঁর কথায়, “সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে আটক করার সিদ্ধান্ত খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই উপযুক্ত পদক্ষেপ করা হবে”।

অল ইন্ডিয়া রেডিওর তরফে জানানো জানানো হয়েছে, এর আগে, শ্রীনগরে সচিবালয়ে তিনি রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক নির্দেশ দেন, যেন শুক্রবার থেকে সরকারি অফিসগুলি স্বাভাবিকভাবে কাজ করে।

শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে কেন্দ্রীয় সরকার জানায়, সেখানকার পরিস্থিতি প্রতিদিন খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এলাকায় যাতে, সংবাদমাধ্যম ভালভাবে কাজ করতে পারে, তারজন্য দ্রুত ফোন পরিষেবা চালু করার নির্দেশ দেওয়ার দাবি জানান কাশ্মীর টাইমসের এডিটর অনুরাধা ভাসিন।কাশ্মীর এবং জম্মুর বেশ কিছু এলাকায় সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের ওপর জারি করা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারেরও আর্জি জানান তিনি।

প্রধানবিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, “আমি সংবাদমাধ্যমের খবর পড়েছি, সেখানে বলা হয়েছে আজ সন্ধ্যার মধ্যেই সেখানকার ল্যান্ডলাইন এবং ব্রন্ডব্যান্ড পরিষেবা চালু করা হবে”।

"ধন্যবাদ দিদি":মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানোয় পাল্টা বললেন কেজরিওয়াল

সরকারি আইনজীবী কেকে বেণুগোপাল বলেন, জম্মু থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করায় সেখান থেকে খবরের কাগজ প্রকাশিত হচ্ছ।

পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য না করে, সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীরে সাংবাদমাধ্যম এবং অন্যান্য বিষয়ে কড়াকড়ির সম্পর্কিত বিষয়টি তুলবে।

৫ অগস্ট জম্মু ও কাশ্মীর থেকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা প্রত্যাহার করে নেয় কেন্দ্র এবং রাজ্যটিকে ভেঙে দিয়ে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার ঘোষণা করে।তার আগের দিন, ৪ অগস্ট থেকে সেখানে বড় জমায়েতের ওপর নিষেধাজ্ঞাসহ একাধিক কঠোর নিয়ম জারি করা হয় এবং নিরাপত্তার বলয়ে ঘিরে ফেলা হয়। বুধবার পুলিশের তরফে জানানো হয়, জম্মুতে নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরিভাবে প্রত্যাহার করা হয়েছে এবং কাশ্মীরে “কিছুসময়ের জন্য” কড়াকড়ি থাকবে।

যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হওয়ার ফলে, কাশ্মীর উপত্যকায় ফোন এবং ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ হয়ে যায়। কারফিউ জারি করার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়।

কাশ্মীরের প্রায় ৪০০ জন রাজনৈতিক নেতাকে আটক করা হয়। জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আব্দুল্লা এবং মেহবুবা মুফতিকেও গ্রেফতার করা হয়।