This Article is From Jan 25, 2019

দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পাচ্ছেন প্রণব মুখোপাধ্যায়, নানাজি দেশমুখ এবং গায়ক ভূপেন হাজারিকা

ভারতরত্ন পাচ্ছেন তিন জন। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, নানাজি দেশমুখ এবং গায়ক ভূপেন হাজারিকা দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পাচ্ছেন।

দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পাচ্ছেন  প্রণব মুখোপাধ্যায়, নানাজি দেশমুখ এবং গায়ক ভূপেন হাজারিকা

প্রণব মুখোপাধ্যায়, নানাজি দেশমুখ এবং গায়ক ভূপেন হাজারিকা দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পাচ্ছেন।  

হাইলাইটস

  • এই তিন জনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী
  • সমাজসেবক নানাজি দেশমুখ জনতা পার্টির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা
  • ভূপেন হাজারিকার গানে আন্দোলিত হয়েছে একাধিক প্রজন্ম
নিউ দিল্লি:

ভারতরত্ন পাচ্ছেন তিন জন। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, নানাজি দেশমুখ এবং গায়ক ভূপেন হাজারিকা দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পাচ্ছেন।    

এই তিন জনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। টুইটারে তিনি লেখেন, প্রণব মুখোপাধ্যায় আমাদের সময়ের অন্যতম সেরা রাষ্ট্রনেতাবিদ। দশকের পর দশক ধরে রাষ্ট্র নির্মাণে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তিনি। তাঁর মতো বুদ্ধি এবং মেধা খুব কম মানুষেরই থাকে।  তাঁকে ভার‍ত রত্ন দেওয়া  হচ্ছে  শুনে আমি আপ্লুত।

নানাজি সম্পর্কে মোদী লেখেন, উন্নয়নের বিকল্প পথ দেখিয়ে গ্রামের মানুষের মধ্যে নতুন চিন্তার জন্ম দেন  নানাজি দেশমুখ। সমাজের নিম্নবর্গের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর ব্যাপারে তিনি হচ্ছেন আদর্শ।

পদ্ম পুরস্কারে ভূষিত কাদের খান, মোহনলাল, গৌতম গম্ভীর সহ ১১২

অসমের বিখ্যাত গায়ক ভূপেন হাজারিকা প্রসঙ্গে মোদী লেখেন, নিজের গানে সামজিক ন্যায় বিচারের কথা  বলেছেন তিনি। প্রজন্মের পর প্রজন্ম তাঁর গানের সমাদর করে এসেছে। তাঁর হাত ধরে ভারতীয় সঙ্গীত বিশ্বের দরবারে পৌঁছে গিয়েছে। তিনি ভারতরত্ন পাচ্ছেন বলে  আমি আনন্দিত।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের জাতীয় রাজনীতিতে প্রণব মুখোপাধ্যায় একটি  বড় নাম। তিনি ছিলেন দেশের প্রথম  এবং এ পর্যন্ত একমাত্র বাঙালি রাষ্ট্রপতি। তাঁর প্রায় পাঁচ দশক ধরে রাজনীতি করেছেন প্রণব। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী থেকে শুরু করে  বিদেশমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।  অমর্ত্য সেনের পর তিনিই হচ্ছেন প্রথম বাঙালি যিনি দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মানে সম্মানিত হচ্ছেন।  

প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে দেশ ও রাজ্যবাসীকে শুভেচ্ছা জানালেন রাজ্যপাল

সমাজসেবক নানাজি দেশমুখ জনতা পার্টির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। একই সঙ্গে একটা সময় পর্যন্ত তিনি ছিলেন বিজেপির অন্যতম প্রবীণ নেতা। বিভিন্ন অঞ্চলকে  যুক্ত করে মধ্যপ্রদেশ এবং উত্তরপ্রদেশকে আধুনিক চেহারায় আনার ক্ষেত্রে তাঁর বিশেষ ভূমিকা আছে। ২০১০ সালে ৯৩ বছর বয়সে তাঁর মৃত্যু হয়।                  

  পদ্মশ্রী, পদ্ম ভূষণ এবং পদ্ম বিভূষণ পাওয়া গায়ক ভূপেন হাজারিকার গানে আন্দোলিত হয়েছে একাধিক প্রজন্ম। অসমের সীমানা ছাড়িয়ে গোটা দেশের স্নগিত জগতেই নিজের জন্য আলাদা জায়গা করেছেন তিনি। ২০১১ সালে ৮৫ বছর বয়সে মৃত্যু হয় তাঁর।