দেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্যে ৫০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করল আরবিআই

আরবিআইয়ের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, অন্ধকার সময়ের মধ্য়েই আশার আলো দেখতে হবে

দেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্যে ৫০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করল আরবিআই

RBI Governor: অপরিবর্তিত থাকল রেপো রেট, তবে রিভার্স রেপো রেট কমল ২৫ বেসিস পয়েন্ট

হাইলাইটস

  • দেশের আর্থিক পরিস্থিতিকে চাঙ্গা করতে বেশ কিছু ঘোষণা করলেন শক্তিকান্ত দাস
  • রেপো রেট অপরিবর্তিত থাকলেও, রিভার্স রেপো রেট ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমানোর ঘোষণা
  • ২০২১-২২ অর্থবর্ষে দেশের বৃদ্ধির সম্ভাব্য হার ৭.৪ শতাংশ, বললেন তিনি
নয়া দিল্লি:

করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) ফলে দেশে হওয়া অর্থনৈতিক পরিস্থিতির মোকাবিলায় রিজার্ভ ব্যাংক গোটা পরিস্থিতির দিকে খেয়াল রাখছে, সাংবাদিক সম্মেলন করে বললেন আরবিআইয়ের গভর্নর (RBI Governor) শক্তিকান্ত দাস । মানবিকতার স্বার্থে যা যা প্রয়োজন তাই করতে হবে, বলেন তিনি (Shaktikanta Das)। আইএমএফ ইতিমধ্যেই গোটা বিশ্বে মহামন্দার আভাস দিয়েছে। এই অন্ধকার সময়েও আশার আলো দেখতে হবে, বলেন আরবিআইয়ের গভর্নর। সারা বিশ্ব এখন টালামাটাল অবস্থার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, একথাও বলেন তিনি। তবে দেশের করোনা পরিস্থিতির যুঝতে যাঁরা সামনের সারিতে রয়েছেন তাঁদের কুর্ণিশ জানান শক্তিকান্ত দাস। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে ভারতের সম্ভাব্য আর্থিক বৃদ্ধির হার ১.৯ শতাংশ। ২০২১-২২ অর্থবর্ষে বৃদ্ধির সম্ভাব্য হার ৭.৪ শতাংশ। তবে জি ২০ দেশগুলোর মধ্যে ভারতের পরিস্থিতিই যে সবচেয়ে ভাল, এদেশে বৃদ্ধির হার অন্যদের তুলনায় যে ভালো একথাও মনে করিয়ে দেন তিনি। শক্তিকান্ত দাস বলেন, দেশের ব্যাংকগুলোতে নগদের জোগান বাড়ানো হয়েছে। জিডিপির ৩.২ শতাংশ নগদের জোগান দেওয়া হয়েছে। 

রিভার্স রেপো রেট ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমানোর ঘোষণা করলেন শক্তিকান্ত দাস। ৪ বেসিস পয়েন্ট থেকে কমে হল ৩.৭৫%। তবে অপরিবর্তিত থাকছে রেপো রেট।

মে মাসেই ভারতে করোনার তাণ্ডব নৃত্য! তেমনই আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের

দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ক্ষুদ্র শিল্পের জন্যে আপাতত ৫০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করলেন আরবিআইয়ের গভর্নর। পরিস্থিতি অনুযায়ী এই প্যাকেজের পরিমাণ ভবিষ্যতে আরও বাড়ানো হতে পারে বলেন তিনি। আবাসন শিল্পে ১০ হাজার কোটি টাকার প্য়াকেজেরও ঘোষণা তাঁর। ক্ষুদ্র আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্যে ৫০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজও ঘোষণা করলেন তিনি। তবে এলসিআর প্রয়োজনীয়তা যে ১০০% থেকে হ্রাস পেয়ে ৮০% এ নেমে এসেছে সেকথাও উল্লেখ করেন রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর।

করোনার সঙ্গে যুঝে অনেকেই সুস্থ হচ্ছেন, তবে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমণও, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজারেরও বেশি

লকডাউন পরিস্থিতি জারি হওয়ার পর এই নিয়ে দ্বিতীয়বার সাংবাদিক সম্মেলন করলেন আরবিআইয়ের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস। দেশের মানুষকে আশ্বস্ত করে জানালেন, সবসময় করোনার জেরে দেশের আর্থিক পরিস্থিতির দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখছে রিজার্ভ ব্য়াংক অফ ইন্ডিয়া। পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে যে রিজার্ভ ব্যাংকের কর্মীরাও রেহাই পাননি সেকথাও জানান তিনি। বর্তমানে প্রায় ১৫০ আরবিআইয়ের কর্মী বিভিন্ন জায়গায় কোয়ারান্টাইন অবস্থায় রয়েছেন, জানান শক্তিকান্ত।