২০২২ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি পরিবারের নিজের বাড়ি থাকবে, বললেন রাজনাথ সিং

Housing In India: "২০২২ সালের মধ্যে মাথার উপরে ছাদ নেই এমন কোনও পরিবার এ দেশে থাকবে না", প্রতিশ্রুতি দেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং

২০২২ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি পরিবারের নিজের বাড়ি থাকবে, বললেন রাজনাথ সিং

লখনউতে বিজেপি কর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী Rajnath Singh (ফাইল চিত্র)

লখনউ:

২০২২ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি পরিবারের মাথার উপর নিজের বাড়ির ছাদ (Housing) থাকবে, সেই লক্ষ্যেই এগোচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার, এমন স্বপ্নই দেখালেন রাজনাথ সিং। "২০২২ সালের মধ্যে মাথার উপরে ছাদ নেই এমন কোনও পরিবার এ দেশে থাকবে না। পাশাপাশি আমাদের লক্ষ্য ২০২৪ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি বাড়িতে (Home) নিজস্ব জল সরবরাহের ব্যবস্থা করা" লখনউতে বিজেপির একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে এমন কথাই বলতে শোনা যায় দেশের বর্তমান প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে (Rajnath Singh)। শুধু দেশের মানুষের জন্যে নিজ গৃহ (Housing In India) বা জল পরিষেবার কথাই নয়, স্বাস্থ্য পরিষেবার সম্পর্কেও মোদি সরকারের পদক্ষেপের বিষয়টি তুলে ধরেন তিনি। দেশের স্বাস্থ্য পরিষেবা সম্পর্কে রাজনাথ সিং বলেন, "কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই দেশের সমস্ত ব্যক্তির জন্য নিশ্চিত ভাবে পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনামূল্যে চিকিৎসা পাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে।"

কাশ্মীরের পর এবার পাক অধিকৃত কাশ্মীরে নজর রাজনাথ সিং-এর

লখনউতে আয়োজিত পদ্ম বাহিনীর ওই অনুষ্ঠান থেকে গত লোকসভা নির্বাচনে দলের জয়ের পিছনে অবদান রাখার জন্য প্রতিটি বিজেপি কর্মীদের ধন্যবাদ জানান রাজনাথ সিং। "২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির অভূতপূর্ব জয়ের পিছনে দলীয় কর্মীদের একটা বড় ভূমিকা ছিল। ২০১৪ সালে যেখানে আমরা ২৮২ টি আসনে জিততে পেরেছিলাম, সেখানে দেখা যায় ২০১৯ সালে আমরা ৩০৩ টি আসনে জিতেছি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তাঁর প্রথম মেয়াদে জনগণের জন্যে যে কাজ করেছিলেন তারই প্রতিফলন এই ফলাফল", বলেন মোদি মন্ত্রিসভার ওই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী।

তবে লখনউতে বক্তব্য রাখার সময় প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসাবেও গর্জে উঠতে দেখা যায় রাজনাথ সিংকে। প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান "সন্ত্রাসবাদকে শিল্প" করে ফেলেছে এবং লাগাতার সন্ত্রাসবাদীদের মদত দিয়ে চলেছে সে বিষয়েও রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিতে দেখা যায় তাঁকে।

"আমরা অনেক বড় ধাক্কা দিতে পারি": পাকিস্তানের প্রতি প্রতিরক্ষামন্ত্রীর হুঙ্কার

"গোটা বিশ্ব ভারতের পাশে থাকতে চায়, শুধু আমাদের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানই সন্ত্রাসবাদে ক্রমাগত মদত দিয়ে চলেছে। সন্ত্রাসবাদ যখন কোনও দেশের কাছে শিল্পে পরিণত হয়ে যায়, তখন সেখানে অন্যান্য সমস্ত ব্যবসা একে একে বন্ধ হয়ে যায়", বলেন তিনি ।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)