পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে রাহুল গান্ধির সাক্ষাৎ “নাটকে”, বললেন নির্মলা সীতারামন

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী বলেন, “সনিয়া গান্ধির প্রতি আমার বিনীত আবেদন---আমাদের এ সম্পর্কে আমাদের আরও দায়িত্ববান হতে হবে”

শনিবার দক্ষিণ দিল্লিতে একটি উড়ালপুলের নিচে তাঁবু খাটিয়ে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে দেখা করতে যান রাহুল গান্ধি।

নয়াদিল্লি:

দিল্লিতে উড়ালপুলের নিচে আশ্রয় নেওয়া পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে রাহুল গান্ধির (Rahul Gandhi) সাক্ষাৎকে “নাটুকে” বললেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন (Nirmala Sitharaman), পাশাপাশি তোপ দেগে বললেন, করোনা ভাইরাস লকডাউনের (Coronavirus Lockdown) কারণে অসহায় অবস্থার মধ্যে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দাগার ব্যাপারে “আরও দায়িত্ববান” হওয়া উচিত কংগ্রেসের। তিনি বলেন, “পরিযায়ীদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের সময় নষ্ট না করে তাঁদের ব্যাগ বয়ে দিন।  কংগ্রেস শাসিত রাজ্যে, আরও ট্রেনের আবেদন করুন, যাতে আরও পরিযায়ী বাড়ি ফিরতে পারেন। ওরা আমাদের নাটুকে বলে। গতকাল কী হল? এটাও নাটক"।

করোনা ভাইরাস এবং লকডাউনের কারণে, দেশে থমকে থাকা অর্থনীতির চাকা গতি ফেরাতে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী, সেখানেই রাহুল গান্ধি সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী বলেন, “সনিয়া গান্ধির প্রতি আমার বিনীত আবেদন---আমাদের এ সম্পর্কে আমাদের আরও দায়িত্ববান হতে হবে”।

শনিবার দক্ষিণ দিল্লিতে একটি উড়ালপুলের নিচে তাঁবু খাটিয়ে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে দেখা করতে যান রাহুল গান্ধি।

সেদিনই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি রাহুল গান্ধি, ২০ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ পুনর্বিবেচনা করার আবেদন জানান রাহুল গান্ধি, তারপরেই পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে দেখা করচতে যান তিনি,  করোনার কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত আটকে পড়া শ্রমিক ও কৃষকদের অ্যাকাউন্টে সরসারি টাকা দেওয়ার দাবি তোলেন রাহুল গান্ধি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখা গিয়েছে, মুখে মাস্ক পরে ফুটপাথে বসে পরিযায়ী শ্রমিকদের একটি ছোটোদলের সঙ্গে কথা বলছেন রাহুল গান্ধি, তাঁদের মধ্যে কয়েকজন উত্তরপ্রদেশ ফিরে যাওয়ার পথে, বাকিরা মধ্যপ্রদেশ। হরিয়ানার আম্বালা থেকে ১৩০ কিলোমিটার হেঁটে অতিক্রম করেছেন তাঁরা।