‘‘প্রক্রিয়ায় অংশ নিচ্ছি না’’, নতুন কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচন প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধি

লোকসভায় কংগ্রেসের বিপর্যয়ের পরে সভাপতির পদ ছাড়ার সিদ্ধান্তে অনড় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি বৃহস্পতিবার পরিষ্কার করে দিলেন, তিনি তাঁর সিদ্ধান্তে অটল।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

রাহুল বলেন, ‘‘আমি ওই পদ্ধতিতে যুক্ত থাকছি না। (ফাইল)


নয়াদিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. পদ ছাড়ার সিদ্ধান্তে অনড় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি।
  2. জানালেন প্রক্রিয়ায় অংশ নেবেন না।
  3. রাহুল গান্ধি দলের ব্যর্থতার ‘১০০ শতাংশ’ দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন।

লোকসভায় কংগ্রেসের বিপর্যয়ের পরে সভাপতির পদ ছাড়ার সিদ্ধান্তে অনড় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি বৃহস্পতিবার পরিষ্কার করে দিলেন, তিনি তাঁর সিদ্ধান্তে অটল। এবং নতুন সভাপতির নির্বাচন প্রক্রিয়ায় কোনও রকম অংশ নিচ্ছেন না। ‘সিস্টেম'-এ কোনও সমস্যা আছে সেকথা মেনে নিয়ে NDTV-কে তিনি বলেন, ‘‘আমি ওই পদ্ধতিতে যুক্ত থাকছি না। তাহলে বিষয়টা জটিল হয়ে যাবে। দলকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।'' দলের রাজতান্ত্রিক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সমালোচকরা বরাবরই প্রবল ভাবে সরব হয়েছেন কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। এবং নির্বাচনে দলের ব্যর্থতার একটি কারণ হিসেবে এটিকেও ধরা হচ্ছে। টানা দ্বিতীয় বার দল লোকসভা নির্বাচনে বিপর্যস্ত হয়েছে। পেয়েছে মাত্র ৫২টি আসন। ২০১৪ সালে পাওয়া ৪৪টি আসনের থেকে সামান্য বেশি।

দুই হাসপাতালের মধ্যে টানাপোড়েনের জেরে ঠাকুমার কোলেই মৃত্যু চার দিনের শিশুর

২৬ মে রাহুল গান্ধি দলের ব্যর্থতার ‘১০০ শতাংশ' দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন। এবং জানিয়ে দেন ৫২ সদস্যের কংগ্রেস সাংসদের কার্যকরী কমিটি থেকে তিনি সরে যেতে চান। কংগ্রেস রাহুলের সিদ্ধান্ত মেনে নেয়নি। কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রাহুল নিজের সিদ্ধান্তে অনড়।

দলের বর্ষীয়ান সদস্যরা ইঙ্গিত দিয়েছেন, গান্ধি পরিবারের সদস্যদের মধ্যে কাউকেই দায়িত্বে থাকতে হবে। কিন্তু রাহুল সেই প্রস্তাবকেও উড়িয়ে দেন। জানান, তাঁর মা কিংবা বোন প্রিয়ঙ্কা গান্ধিকেও দায়িত্ব দেওয়া চলবে না।

স্বাধীনতার পর থেকে কংগ্রেস বরাবরই গান্ধিদেরই নেতৃত্বে থেকেছে। কেবল ১৯৯১ সালে রাজীব গান্ধির হত্যার পরের কয়েক বছরকে ব্যতিক্রম হিসেবে ধরা যায়। কিন্তু সীতারাম কেশরীর নেতৃত্বে দল ভাল করতে পারেনি। এরপর কয়েকজন কংগ্রেস নেতা সোনিয়া গান্ধিকে রাজি করান সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশ করার জন্য ও দলের দায়ভার গ্রহণ করার জন্য। 

WBJEE Result 2019: প্রকাশিত হল ফলাফল, প্রথম হলেন দুর্গাপুরের সোহম মিস্ত্রি

গত কয়েক সপ্তাহে রাহুল গান্ধিকে লোকসভায় দলের নেতা হওয়ার জন্য বলা হয়েছিল। কিন্তু তিনি প্রত্যাখ্যান করার পরে দলের তরফে জানানো হয় বাংলার বর্ষীয়ান নেতা অধীররঞ্জন চৌধুরীকে ওই পদে রাখা হচ্ছে।

রাহুল অবশ্য জানিয়েছেন, তিনি কংগ্রেসেই থাকবেন ও দলের হয়ে কাজ করবেন।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................