স্তন্যপানের প্রচারে ব্রেস্টপাম্প পরে ফটোশ্যুটে র‍্যাচেল ম্যাকঅ্যাডামস, ভাইরাল হল ছবি

"আমি মা হতে চলেছি, আর এখন এ ধরনের ছবি শক্তি জোগায়," লেখেন এক ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারকারী

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
স্তন্যপানের প্রচারে ব্রেস্টপাম্প পরে ফটোশ্যুটে র‍্যাচেল ম্যাকঅ্যাডামস, ভাইরাল হল ছবি

র‍্যাচেল ম্যাকঅ্যাডামস


স্তন্যপান একটি স্বাভাবিক ব্যাপার এই প্রচারে এ বার দৃপ্ত ভূমিকা নিলেন হলিউড অভিনেত্রী র‍্যাচেল ম্যাকঅ্যাডামস। তিনি ‘মিন গাল', ‘দ্য নোটবুক' সিনেমায় নিজের অভিনয়ের জন্য বিখ্যাত। সম্প্রতি তাকে একটি ফ্যাশন ম্যাগাজিন গার্লস গার্লস গার্লস-এর কভারের জন্য ফটোশুটে দেখা যায়। সেখানে তিনি ভার্সেস কোটুর, বুলগেরি ডায়মন্ড এবং একজোড়া ব্রেস্ট পাম্প পরে রয়েছেন।

সিএনএন-এর মতে এই অসামান্য ফটোশ্যুট, যা ইতিমধ্যেই ভাইরাল তা আদতে ছ'মাস আগেই শ্যুট করা হয়েছিল। যখন র‍্যাচেল ছেলের জন্ম দিয়েছিলেন।

রাহুলই প্রধানমন্ত্রী, ডিএমকে প্রধানের বক্তব্য সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া দিলেন মমতা

ম্যাগাজিনটির প্রতিষ্ঠাতা ক্লেয়ার রথস্টেইন বুধবার নিজের ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে ছবিটি শেয়ার করেন।

‘‘উনি ছেলের জন্ম দেওয়ার ছ'মাস পরে ছবিটি তোলা। তাই শ্যুটের মাঝেই উনি ছেলেকে স্তন্যপান করানোর জন্য পাম্প করছিলেন। পৃথিবীর অন্যতম স্বাভাবিক ঘটনা স্তন্যপান। কেন এ নিয়ে এত ভয়, বিতর্ক আমি জানিনা।''— নিজের ছবির ক্যাপশনে লেখেন ক্লেয়ার। ছবিতে দেখা যাচ্ছে র‍্যাচেল কোট সরিয়ে রেখে ব্রেস্ট পাম্প ব্যবহার করছেন।

‘‘যদিও আমার মনে হয়না এর কোনও ব্যাখ্যার প্রয়োজন, তবুও যদি এর মাধ্যমে একটা স্বাভাবিক, সহজাত বিষয়ের প্রতি একজন মানুষেরও ভুল দৃষ্টিভঙ্গিতে বদলানো যায় তাই এই প্রচেষ্টা।''—বলেন তিনি।

দেখুন ছবিটি:

(ডিক্লেমার: এই ক্যাপশনে ব্যবহৃত ভাষা শিশুদের উপযোগী নাও হতে পারে)

 
 

ইন্সটাগ্রাম ফলোয়ারেরা সঙ্গে সঙ্গে র‍্যাচেলের এই পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসা করেন। শেয়ার হওয়ার পর থেকে ছবিটিতে ৪৯০০০ লাইক এবং অসংখ্য কমেন্ট পড়েছে প্রশংসা করে।

২০১৮ ভাল না হলেও আগামী বছর ফিরতে পারে টাকার স্বাস্থ্য

‘‘অসাধারণ, খুব ভালো লাগছে।''— লেখেন একজন। ‘‘ওয়ার্কিং মাদার্স, তুমি এগিয়ে চলো।''—আরেকজন লেখেন।

অনেকেই এই শক্তিশালী ছবিটির জন্য র‍্যাচেলকে ধন্যবাদ জানান।

‘‘এই ছবিটি পোস্ট করার জন্য ধন্যবাদ। আমি সাত মাসের অন্তঃস্বত্তা। একটু আগেই শাশুড়ির সঙ্গে কথা হচ্ছিল। উনি বললেন, এ সময় স্তন্যপান করানোর জন্য স্তনের আকার বৃদ্ধি পায়। তাই এটা একেবারে ব্যক্তিগত পরিসরে করা উচিত। প্রথম বার মা হতে চলা কারও কাছে এটা কঠিন শোনায়, কিন্তু এ ধরনের ছবি আবার সাহস জোগায়। ধন্যবাদ।''— লেখেন একজন ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারকারী।

‘‘আমি মা হতে চলেছি, আর এ ধরনের ছবি মনের জোর জোগায়। খুব ভালো লেগেছে।''— লেখেন আরেকজন।

আপনি কী ভাবছেন ছবিটি সম্পর্কে। আমাদের লিখে জানান মন্তব্য বিভাগে।


আরও খবর দেখুন এখানে



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................