'প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জিন্দাবাদ', ভাষণ দিতে গিয়ে গুলিয়ে ফেলে কেলেঙ্কারি কংগ্রেস নেতার

জনসভায় ভাষণ দিতে উঠে কংগ্রেস নেতা সুরেন্দ্র কুমার গুলিয়ে ফেললেন সেটাই। ফলে, নিমেষে প্রিয়াঙ্কা গান্ধি হয়ে গেলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

'প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জিন্দাবাদ', ভাষণ দিতে গিয়ে গুলিয়ে ফেলে কেলেঙ্কারি কংগ্রেস নেতার

তালেগোলে হরিবোল....

নয়া দিল্লি:

নাম এক দু-জনেরই। তাঁরা ভিন্ন পেশা এবং পদবিতে। একজন কংগ্রেস সম্পাদক। অন্যজন অভিনেত্রী। কিন্তু জনসভায় ভাষণ দিতে উঠে কংগ্রেস নেতা সুরেন্দ্র কুমার (Surender Kumar) গুলিয়ে ফেললেন সেটাই। ফলে, নিমেষে প্রিয়াঙ্কা গান্ধি (Priyanka Gandhi Vadra) হয়ে গেলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। সঙ্গে সঙ্গে জনসভা ভাসল হাসির জোয়ারে। মিম বানিয়ে সেই ভিডিও পোস্ট হতেই সোশ্যাল তোলপাড়। সঙ্গে প্রশ্ন, কংগ্রেসে কবে যোগ দিলেন অভিনেত্রী (Priyanka Chopra)?  

কিছু না জেনেই হাজার হাজার ট্যুইটের বাণে বিদ্ধ প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। উত্তর দেবেন কি, ঘটনার আগাগোড়া কিছুই জানেন না যে তিনি। 

হাসপাতালে লতাজিকে দেখতে গেলেন উদ্ধব ঠাকরে, খোঁজ নিলেন শরীরের

কী করে এত বড় কেলেঙ্কারি ঘটালেন সুরেন্দ্র? জানেন না দলের দিল্লি শাখার প্রধান সুভা চোপড়াও। ভাষণ শেষ করার সময় নিয়মমাফিক সোনিয়া গান্ধি জিন্দাবাদ, রাহুল গান্ধি জিন্দাবাদ, কংগ্রেস পার্টি জিন্দাবাদ বলার পরেই ঐতিহাসিক ভুল। মাইকে জোরগলায় জিগির তোলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জিন্দাবাদ। কানে যেতেই চোখ বড় বড় সুভাষের। হতবাক দৃষ্টিতে তিনি তাকিয়ে সুরেন্দ্রর দিকে। কিন্তু ততক্ষণে ঢিল ছোঁড়া তো হয়েই গেছে।

সুরেন্দ্রর এই কার্যকলাপের ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই ট্রোল হয় গোটা দল। এমন সুযোগ ফস্কাতে দেননি অমিত শাহ স্বয়ং। টুইটে তিনি লেখেন, ঈশ্বরকে অসংখ্য ধন্যবাদ, রাহুল গান্ধি সেদিনের জনসভায় ছিলেন না। নইলে তিনিও হয়ত মিলেনিয়ার ব্যবসায়ী রাহুল বাজাজ বলে সম্বোধিত হতেন!

More News