This Article is From Mar 20, 2020

"ন্যায়ের জয় হয়েছে", নির্ভয়া মামলার আসামিদের ফাঁসির প্রসঙ্গে বললেন প্রধানমন্ত্রী

Nirbhaya case: শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টার সময় দিল্লির তিহার জেলে নির্ভয়া কাণ্ডের ৪ আসামিকে ফাঁসিতে ঝোলান পবন জল্লাদ

Nirbhaya case: নির্ভয়া কাণ্ডের আসামিদের ফাঁসিতে টুইট করলেন প্রধানমন্ত্রী

হাইলাইটস

  • নির্ভয়া মামলার ৪ আসামির ফাঁসির পর টুইট করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি
  • "ন্যায়ের জয় হয়েছে", টুইটে লিখলেন নরেন্দ্র মোদি
  • শুক্রবার তিহার জেলে ফাঁসি দেওয়া হয় নির্ভয়া কাণ্ডের অপরাধীদের
নয়া দিল্লি:

"ন্যায়ের জয় হয়েছে", নির্ভয়া মামলার (Nirbhaya case) আসামিদের ফাঁসির প্রসঙ্গে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)।"ন্যায়বিচারেরই জয় হয়েছে। নারীর মর্যাদা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্যে এটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমাদের নারীশক্তি সর্বক্ষেত্রে দক্ষতা অর্জন করছে। আমরা একসঙ্গে এমন একটি দেশ গঠনের স্বপ্ন দেখছি যেখানে নারীর ক্ষমতায়নের দিকে মনোনিবেশ করা হয়েছে, যেখানে সমতা রক্ষায় জোর দেওয়া হচ্ছে", শুক্রবার ফাঁসি কার্যকরের পর টুইট করেন তিনি।

দীর্ঘ ৭ বছর পর ফাঁসিতে ঝোলানো হল নির্ভয়া কাণ্ডের ৪ আসামিকে

২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে দিল্লির ২৩ বছর বয়সী এক প্যারা মেডিকেল ছাত্রীকে নির্মমভাবে গণধর্ষণ করে রাজপথে ছুঁড়ে ফেলে দেয় মোট ৬ দুষ্কৃতি। ওই ঘটনায় অভিযুক্ত ৬ জনের মধ্যে একজন নাবালক বলে সংশোধনাগার থেকে ৩ বছর পরে ছাড়া পেয়ে যায় । আরেক অভিযুক্ত রাম সিং জেলের মধ্যেই আত্মহত্যা করে। বাকি ৪ আসামিকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করে আদালত। শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টায় দিল্লির তিহার জেলে ফাঁসিতে ঝোলানো হয় তাঁদের। প্রায় আধঘণ্টারও বেশি সময় তাঁদের ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখার পর দেহ নামিয়ে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। 

টুইটারে 'হিরো' বনে গেলেন নির্ভয়ার হয়ে বিনা পারিশ্রমিকে মামলা লড়া আইনজীবী

অক্ষয় ঠাকুর (৩১), পবন গুপ্তা (২৫), বিনয় শর্মা (২৬) ও মুকেশ সিংয়ের ফাঁসি হওয়ার পরে নির্ভয়ার মা আশা দেবী বলেন, "আমরা সবাই এই দিনটির জন্যেই এতদিন ধরে অপেক্ষা করেছিলাম। ভারতের সব মেয়েদের জন্যেই আজ একটি নতুন ভোর। ওই পশুদের ফাঁসি দেওয়া হয়েছে"।  ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর নিজের মেয়ের ছবি জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেলেন তিনি। আশা দেবী দেশের বিচারব্যবস্থার প্রতি নিজের কৃতজ্ঞতা ব্যক্ত করেন। তিনি একথাও বলেন, "আমি এই ফাঁসি কার্যকর হওয়ার জন্যে দেশের বিচার বিভাগ, সরকার তথা প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আদালত যেভাবে ওই দোষীদের সমস্ত আবেদন খারিজ করে দিয়েছে তাতে আমি খুশি। ২০১২ সালে গোটা দেশ লজ্জায় মুখ ঢেকেছিল"।

যদিও এই ফাঁসি কার্যকর করা নিয়ে চলে দীর্ঘ টালবাহানা। এর আগে মোট ৩ বার মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেও নানা রকম আইনি জটিলতার কারণে তা খারিজ করতে বাধ্য হয় দিল্লির এক আদালত। নির্ভয়া-কাণ্ডের ওই ৪ অপরাধীকে সব আইনি বিকল্পের পথ খুলে দিতে এই পথে হেঁটেছিল দেশের আদালত। শেষ পর্যন্ত আজ অর্থাৎ ২০ মার্চ ফাঁসি দেওয়ার লক্ষ্যে নতুন করে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করা হয়। এরপর সেই মৃত্যু পরোয়ানা মেনে শুক্রবার ফাঁসি দেওয়া হয় ওই অপরাধীদের। শুধু নির্ভয়া বা নির্ভয়ার পরিবারই নয়, এই ৪ ঘৃণ্য অপরাধীর ফাঁসিতে যেন খুশি হয়েছে রাজধানী দিল্লি সহ গোটা দেশই।