কনস্টেবলের সঙ্গে প্রেম! বাড়ি থেকে তুলে গাছে বেঁধে যুবককে জ্যান্ত পুড়িয়ে দিল প্রতিবেশীরা

Pratapgarh: মৃত অম্বিকা প্রসাদ প্যাটেল গত এক বছর ধরে এক মহিলার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িত ছিলেন। তবে মহিলার পরিবার এই সম্পর্কের বিরুদ্ধে ছিল।

কনস্টেবলের সঙ্গে প্রেম! বাড়ি থেকে তুলে গাছে বেঁধে যুবককে জ্যান্ত পুড়িয়ে দিল প্রতিবেশীরা

Pratapgarh: অপরাধে অভিযুক্ত দু'জনকে এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে; তাঁদের একজন হলেন মেয়ের বাবা

প্রতাপগড়:

২২ বছরের যুবককে গাছে বেঁধে জ্যান্ত পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় স্তম্ভিত সারা রাজ্য! রাজধানী লখনউ থেকে ১৬৬ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত উত্তর প্রদেশের প্রতাপগড় জেলায় ঘটেছে এমনই ভয়ানক ঘটনা। গ্রামের প্রতিবেশীরা পাড়ার এক মহিলার সঙ্গে এই যুবকের প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে ক্ষুব্ধ ছিলেন বলে সূত্রের খবর। এলাকা থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা গিয়েছে, রাতে বেশ কয়েকজন লোক ওই ব্যক্তির বাড়িতে ঢুকে পড়ে তাঁকে বাড়ি থেকে টেনে বের করে নিয়ে গিয়ে একটি গাছে বেঁধে দেয়, তারপর তাঁর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। এই হামলার পরে পুলিশের একটি দল গ্রামে এলে সংঘর্ষ বাধে। পুলিশের দু'টি গাড়ি এবং একটি মোটরসাইকেলে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় এবং কয়েকজন পুলিশকর্মী এতে আহতও হন। যে গ্রামবাসীর ওই ব্যক্তির অর্ধ-দগ্ধ লাশটি আবিষ্কার করেছিল, পুলিশের উপর হামলার অভিযোগ তাঁদেরই দিকে।

সূত্রের খবর, মৃত অম্বিকা প্রসাদ প্যাটেল গত এক বছর ধরে ওই মহিলার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িত ছিলেন। তবে মহিলার পরিবার এই সম্পর্কের বিরুদ্ধে ছিল। সূত্রের খবর, কয়েক মাস আগে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কনস্টেবল হিসাবে নিযুক্ত হন ওই মহিলা এবং কানপুরে পোস্টিং পান তিনি। কয়েক সপ্তাহ আগে অম্বিকা ও এই মহিলার একটি অন্তরঙ্গ ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হয়ে ছড়িয়ে পড়ে।

“সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি পোস্ট এবং প্রচারের জন্য মহিলা এবং তার বাবা-মা অম্বিকা প্যাটেলের উপরেই দোষারোপ করেছেন। অম্বিকা প্যাটেলের বিরুদ্ধে এই মহিলা ‘শ্লীলতাহানি'র অভিযোগ আনায় একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এখন ওই মহিলার পরিবার তথা প্রতিবেশীদের বিরুদ্ধেই অম্বিকাকে জ্যান্ত পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে," বলেন প্রতাপগড়ের পুলিশ প্রধান অভিষেক সিং।

এই মামলা দায়েরের পরে অম্বিকাপ্রসাদ প্যাটেল জেলে বন্দি ছিলেন, কিন্তু তিনি জামিনে মুক্তি পেয়েছিলেন ২ মে। মার্চ মাসে, উত্তরপ্রদেশ সরকার দেশে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মধ্যে রাজ্যের ৭১ টি কারাগারে থাকা ১১,০০০ বন্দিকে মুক্তি দিয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে যে এই অপরাধে অভিযুক্ত দু'জনকে এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে; তাঁদের একজন হলেন মেয়ের বাবা। অম্বিকা প্যাটেলের অর্ধদগ্ধ লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। গ্রামে মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী।