সম্পতিগত ও পারিবারিক বিবাদের জেরে কলকাতার বাঙ্গরু পরিবারের বাড়িতে তল্লাশি

সম্পতিগত ও পারিবারিক বিবাদের জেরে  কলকাতার বাঙ্গরু পরিবারের বাড়িতে  তল্লাশি চালাল পুলিশ।

সম্পতিগত ও পারিবারিক বিবাদের জেরে  কলকাতার বাঙ্গরু পরিবারের বাড়িতে তল্লাশি

টাকার নয়ছয় করা থেকে  শুরু করে প্রতারণার অভিযোগও দায়ের  হয়েছিল।

হাইলাইটস

  • কলকাতার বাঙ্গরু পরিবারের বাড়িতে তল্লাশি চালাল পুলিশ
  • উদ্ধার হল সোনার গয়না থেকে শুরু করে বেশ কিছু বহুমূল্য জিনিস
  • পুত্রবধূর দায়ের করা মামলায় তল্লাশির নির্দেশ দেয় আদালত
কলকাতা:

সম্পতিগত ও পারিবারিক বিবাদের জেরে  কলকাতার বাঙ্গরু পরিবারের বাড়িতে  তল্লাশি চালাল পুলিশ। উদ্ধার হল সোনার গয়না থেকে শুরু করে বেশ কিছু বহুমূল্য জিনিস। এই বাড়ির পুত্রবধূর দায়ের করা মামলায় তল্লাশির নির্দেশ দেয় আদালত। নীতা বাঙ্গুরের সঙ্গে  বীরেন্দ্র বাঙ্গুরের  বিয়ে হয়েছিল। বীরেন্দ্রর বাবা শ্রীকুমার বাঙ্গরু এই পরিবারের প্রধান। শুধু তাই নয় অর্থবলে নিজের সামাজিক প্রতিষ্ঠাও তৈরি করেছেন তিনি। এই পরিবারের হাতেই রয়েছে তিন হাজার কোটি টাকার সংস্থা এস কে বাঙ্গরু গ্রুপ অফ কোম্পানিজ। বাড়ি ছেড়ে  চলে যাওয়া নিতা স্বামীর পরিবারের তিনজনের নামে অভিযোগ দায়ের করেন। মানসিক  হেনস্থা তো বটেই টাকার নয়ছয় করা থেকে  শুরু করে প্রতারণার অভিযোগও দায়ের  হয়েছিল।                         

পাঁচ রাজ্যের ফল দেখে বিজেপির উচিত আত্ম বিশ্লেষণ করা: শিবসেনা

নীতার বাবা  দীপক খৈতান, কাকা আরপি সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গোষ্ঠীর প্রধান সঞ্জীব গোয়েঙ্কা।  নিতা জানান ২০ বছর ওই বাড়িতে থাকার পর বছর দেড়েক আগে দুটি  ব্যাগ নিয়ে  বেরিয়ে এসেছিলাম।  কিন্তু এত দিন হয়ে  গেল তবু  ওরা আমার কোনও জিনিস  ফেরত দেয়নি। মানসিক অত্যাচার সহ্য না করতে  পেরেই আমি  বাড়ি ছেড়েছিলাম।  

জানা  গিয়েছে বাঙ্গরুদের বাড়ি থেকে নীতার গয়না থেকে শুরু করে রুপোর জিনিস, শাড়ি, রান্নার জিনিস, ঘর সাজানোর সামগ্রী  এবং ছবির মতো জিনিস উদ্ধার করা হয়েছে।

নীতার দুই নাবালক পুত্র এখন তাঁর সঙ্গেই থাকেন।  প্রথম থেকেই এই ঘটনায় প্রবল চর্চা হয়েছে, কলকাতার অ বাঙালি স্মপ্রদায়ের মধ্যে  এই দুটি পরিবারেরই বিস্তর প্রভাব রয়েছে।