কাটমানি না পাওয়াতেই কেন্দ্রের প্রকল্প আটকাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী, কটাক্ষ প্রধানমন্ত্রী মোদির

বেলুরমঠের রামকৃষ্ণ মিশনের মঞ্চকে ব্যবহার করে রাজনৈতিক বক্তব্য রাখার অভিযোগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সমালোচনা করে তৃণমূল কংগ্রেস

কলকাতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে একহাত নেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

কলকাতা:

রবিবার সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) আক্রমণের নিশানা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi), টাকা তছরূপ করতে না পারার জন্যই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলি লাগু হতে দিচ্ছেন না বলে অভিযোগ তুললেন তিনি। রাজ্যের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন, “কোনও দালাল নেই, কোনও কাটমানি (Cut Money) নেই। কোনও সিন্ডিকেট নেই। অর্থ সরাসরি উপভোক্তার কাছে পৌঁছায়, কোনও কাটমানি পাওয়া যায় না, কোনও সিন্ডিকেট নেই। কেন এই ধরণের প্রকল্পকে কেউ বাস্তবায়িত করতে দেবে”?  রাজ্যে সিন্ডিকেটের প্রতি রাজনৈতিক মদত রয়েছে, বিভিন্ন প্রমোটারদের বেশি দামে সস্তার সরঞ্জাম কিনতে বাধ্য করারও অভিযোগ উঠেছে সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম না করে, প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন, “আশা করি রাজ্যের নীতি নির্ধারকদের সুবুদ্ধি দেবেন ঈশ্বর”।

তৈরি হবে ‘বিপ্লবী ভারত' জাদুঘর, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

রাজ্যের নিজস্ব স্বাস্থ্য প্রকল্প রয়েছে বলে জানিয়ে, গতবছর কেন্দ্রীয় সরকারে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পকে এরাজ্যে কার্যকর করেনি রাজ্য সরকার, তাদের আশঙ্কা ছিল, লোকসভা নির্বাচনে আয়ুষ্মান ভারতের সুফল ঘুরে তুলতে প্রচার চালাবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্পে প্রতিটি কৃষককে বছরে ৬,০০০ টাকা করে দেওয়া হয়, তারও সমতূল প্রকল্প রয়েছে বলে জানায় রাজ্য সরকার।

এর আগে বেলুরমঠ  রামকৃষ্ণ মঠের ভাষণে বিরোধীদের বিরুদ্ধে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন কার্যকর করতে না দেওয়ার অভিযোগ তোলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “আপনারা যা বুঝেছেন, বিরোধীরা বুঝতে চায় না। বিস্তারিতভাবে জানানোর পরেও, কায়েমি স্বার্থ চরিতার্থ করতে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে তারা”।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক সেরেই সিএএ বিরোধী সভায় গেলেন মুখ্যমন্ত্রী

এই মন্তব্যের নিন্দা করে রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “বেলরমঠকে রাজনৈতিক মঞ্চ হিসেবে ব্যবহারের তীব্র নিন্দা করি। এটা খুবই অসম্মানের। এটি রামকৃষ্ণ মিশনের সংস্কৃতি ও নীতির বিরুদ্ধে”।

নাগরিকত্ব আইন এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জী নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদি ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংঘাত চরমে, সেই পরিস্থিতিতেই, শনিবার বৈঠক হয় দেশ ও রাজ্যের প্রধান প্রশাসকের, দেশজুড়ে তৈরি হওয়া প্রতিবাদের এই আবহে, বিতর্কিত পদক্ষেপ প্রত্যাহারের আবেদন জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

মুখ্যমন্ত্রী-প্রধানমন্ত্রী বৈঠক রাজভবনে, দেখুন ভিডিও:

শনিবার বৈঠক হলেও, রবিবার কলকাতা  বন্দরের নাম বদল করে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় রাখার অনুষ্ঠানে গড়হাজির ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। দুপুর ১টা নাগাদ দুদিনের সফর শেষে কলকাতা ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

More News