'Pariksha Pe Charcha'-য় পড়ুয়াদের টেনশন মুক্তির দাওয়াই মোদির

শুধুই পরীক্ষার্থী নয়, অংশ নিতে পারবেন অভিভাবক, শিক্ষকেরাও। পরীক্ষা নিয়ে আলোচনার বিভিন্ন বিভাগের মেধাবী পড়ুয়ারা সরাসরি কথা বলতে পারবেন মোদির সঙ্গে।

'Pariksha Pe Charcha'-য় পড়ুয়াদের টেনশন মুক্তির দাওয়াই মোদির

Pariksha Pe Charcha 2020: ছাত্রদের পরামর্শে

নয়া দিল্লি:

সামনেই বোর্ডের পরীক্ষা। তাই পরীক্ষার্থীদের টেনশন কমাতে Pariksha Pe Charcha-য় আজ, ২০ জানুয়ারি পড়ুয়াদের মুখোমুখি হচ্ছেন PM Modi। আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে সকাল এগারোটায় তাল কাটোরা স্টেডিয়ামে। শুধুই পরীক্ষার্থী নয়, অংশ নিতে পারবেন অভিভাবক, শিক্ষকেরাও। তৃতীয় সেশনে বিভিন্ন বিভাগের মেধাবী পড়ুয়ারা সরাসরি কথা বলতে পারবেন মোদির সঙ্গে। এই সেশনে প্রতিবন্ধী পড়ুয়াদের সমস্যা, সুবিধে-অসুবিধে নিয়ে আলাচনায় বসবেন তিনি। এই সমস্ত বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন পড়ুয়াদের বসার জন্য স্টেডিয়ামে বিশেষ আয়োজন করা হয়েছে। জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক।

'শুধু ভাষণ দিয়ে গেলেন!' মোদিকে ফের কটাক্ষ অনুরাগের

নিশঙ্ক আরও জানিয়েছে, মোদিজির এই বিশেষ ভাবনার পেছনে রয়েছে ছাত্র উন্নতি। পড়ুয়ারা যাতে তাঁদের সমস্যা নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করে সমাধান খুঁজে পান এবং পরীক্ষায় যাতে তাঁদের সেরাটা দিতে পারেন তার জন্যই এই বিশেষ সেশনের ব্যবস্থা। আগামী প্রজন্মকে দিশা দেখাতেই এই নিয়ে তিনবার মোদি মুখোমুখি হচ্ছেন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে। পড়ুয়াদের পাশাপাশি, তিনি তাঁদের পরিবার এবং শিক্ষকদেরও আলোচনায় অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। ইতিমধ্যেই মানবসম্পদ উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী সঞ্জয় ধোত্রে এই কর্মসূচি সফল করতে পশ্চিমবঙ্গ ওড়িশা, আসাম, ত্রিপুরায় গিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিশেষ বৈঠক করেছেন। 

কোনও রাজ্য ব‌লতে পারে না সংসদে পাস হওয়া আইন মেনে চলব না: কপিল সিবাল

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রীর এই আলোচনা ইতিমধ্যেই শিক্ষার্থীদের মধ্যে যথেষ্ট জনপ্রিয়। তাই গত বছরের তুলনায় এবছর অতিরিক্ত আড়াইশো শিক্ষার্থী আলোচনায় অংশ নিচ্ছেন। ভারতীয় শিক্ষার্থী ছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পড়ুয়ারাও যোগ দিচ্ছেন এতে। প্রথম সেশন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৮-র ১৬ ফেব্রুয়ারি।

Video: দিল্লি স্কুলে PTM, বিরোধিতায় বিজেপি

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com