বিষকেকে গিয়ে সন্ত্রাস নিয়ে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সামনেই মোদী বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়তে হলে দেশগুলিকে তাদের সংকীর্ণ পরিসর থেকে বেরিয়ে এসে এক হতে হবে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দিলেন নরেন্দ্র মোদী।


নয়াদিল্লি: 

কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকে (Bishkek) সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন (SCO)-এর শীর্ষ বৈঠকে নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) শুক্রবার পাকিস্তানকে (Pakistan) কড়া বার্তা দিলেন। জানালেন, সন্ত্রাসের পৃষ্ঠপোষকতা ও অর্থদান করছে যে দেশগুলি তাদের লক্ষ রাখতে হবে। তিনি জানিয়ে দেন, সন্ত্রাস-মুক্ত সমাজের পক্ষে ভারত। SCO-র উদ্দীপনা ও আদর্শকে সামনে রেখে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে লড়াইয়ের কথা বলেন মোদী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও। তাঁর সামনেই মোদী বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়তে হলে দেশগুলিকে তাদের সংকীর্ণ পরিসর থেকে বেরিয়ে এসে এক হতে হবে। তিনি বলেন, ‘‘গত রবিবার শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে আমি সেন্ট অ্যান্টনিজ চার্চে গিয়েছিলাম। সেখানে আমি সন্ত্রাসের কুৎসিত মুখের সাক্ষী হলাম। সন্ত্রাস সর্বত্র নিরীহদের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে।''

ডাক্তারদের প্রতিবাদের জন্য সরকার মমতা ব্যানার্জিকেই দায়ী করছে: ১০ টি তথ্য

SCO-র সদস্যদের প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়তে রিজিওনাল অ্যান্টি টেররিস্ট স্ট্রাকচার (RATS)-এর সঙ্গে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান। SCO হল চিনের নেতৃত্বে ৮ সদস্য দেশের একটি অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা ব্লক। ২০১৭ সালে ভারত ও পাকিস্তান SCO-র সদস্য হয়।  

গুলিতে নিহত রাজ্যের বিজেপি কর্মী, অভিযোগের তির ‘তৃণমূলের গুন্ডা'দের দিকে

বৃহস্পতিবার শীর্ষ বৈঠকের ফাঁকে চি‌নের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং-এর সঙ্গে আলোচনার সময়ও মোদী পাকিস্তান প্রসঙ্গত উত্থাপন করেছেন। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, পাকিস্তান যতদিন না সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করছে ততদিন তাদের সঙ্গে কোনও আলোচনা নয়। নয়াদিল্লির বক্তব্য, সন্ত্রাস ও আলোচনা একসঙ্গে চলতে পারে না। পুলওয়ামা হামলার পর থেকেই এই বক্তব্য আরও জোরালো হয়েছে বলে বিদেশ মন্ত্রক জানিয়েছে। বিদেশ সচিব জানিয়েছেন, আজ মোদী চিনের রাষ্ট্রপতিকে জানান, ‘‘সন্ত্রাসমুক্ত এক পরিমণ্ডল তৈরি করা প্রয়োজন পাকিস্তানের। কিন্তু এই মুহূর্তে তেমন কিছু ঘটতে দেখছি ন‌া। আমরা আশাবাদী ইসলামাবাদ কড়া ব্যবস্থা নেবে ও আলোচনা শুরু হবে।''

এই শীর্ষ বৈঠকের আগেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও বিদেশ মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি দ্বিপাক্ষিক কথাবার্তার ব্যাপারে অনুরোধ করে ভারতকে আলাদা করে চিঠি লেখেন। ইমরান মোদীকে লেখেন, তিনি সব ব্যাপারে কথা বল‌তে ইচ্ছুক। এমনকী কাশ্মীর নিয়েও।

কিন্তু এই শীর্ষ বৈঠকে ইমরান খানের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদীর কোনও দ্বিপাক্ষিক সাক্ষাতের সম্ভাবনা নেই। হলে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরে এই প্রথম ইমরান মুখোমুখি হতেন মোদীর।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হানায় ৪০ জন সেনার মৃত্যু হলে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার ব্যাপারে চাপ বাড়িয়েছে ভারত।

মাসুদ আজহারকে জঙ্গি ঘোষণায় জাতিসংঘকে বাধা দেওয়া থেকে চিন বিরত হওয়ার পরে ভারত নৈতিক জয় পেয়েছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। মার্কিন য়ুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও ফ্রান্সের পরে বেজিংও এ ব্যাপারে আর কোনও বাধা না দেওয়ার কথা জানিয়েছে।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................