This Article is From Apr 11, 2020

৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন বাড়াতে সহমত কেন্দ্র-রাজ্য

আরও দু'সপ্তাহ অন্তত বাড়ানো হোক লকডাউন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে এমন আর্জি জানালেন অঙ্গরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা।

৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন বাড়াতে সহমত কেন্দ্র-রাজ্য

আরও দু'সপ্তাহ অন্তত বাড়ানো হোক লকডাউন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে এমন আর্জি জানালেন অঙ্গরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা।

হাইলাইটস

  • ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন বাড়াতে সহমত কেন্দ্র-রাজ্য
  • শনিবার পর্যালোচনা বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। যদিও এখনও সরকারি ঘোষণা হয়নি
  • মুখ্যমন্ত্রীরা আর্জি করেছেন, অন্তত আর দু'সপ্তাহ বাড়ানো হোক লকডাউনের মেয়াদ
নয়া দিল্লি:

আরও অন্তত দু'সপ্তাহ বাড়ানো হোক লকডাউন (Lockdown)। প্রধানমন্ত্রীর কাছে এমন আর্জি জানালেন অঙ্গরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা (All CMs)। সেই আর্জি খতিয়ে দেখবেন প্রধানমন্ত্রী (PM Modi)। সূত্রের খবর, আপাতত ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়তে পারে চলতি লকডাউন। তারপর অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা। এই মর্মে সরকারি ঘোষণা শনিবার সন্ধ্যা কিংবা রবিবার সকালে হতে পারে। শনিবার সকাল ১১ টা থেকে প্রায় ৪ ঘণ্টা মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে পর্যালোচনা বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই বৈঠকে পাঞ্জাব, তেলেঙ্গানা, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান-সহ প্রায় ১২টি রাজ্য অন্তত আর দু'সপ্তাহ অর্থাৎ ৩০এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর পক্ষে সওয়াল করেছেন। সেই আর্জির সঙ্গে সহমত প্রধানমন্ত্রীও। এদিন এমনটাই জানিয়েছে কেন্দ্রীয় একটা সূত্র। যদিও সরকারি ঘোষণা এখনও করা হয়নি, তবে দু'সপ্তাহ লকডাউন বাড়াতে কেন্দ্র-রাজ্য সহমত। এটা নিশ্চিত হয়েছে সেই পর্যালোচনা বৈঠকে। বৈঠক শেষে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেছেন, "প্রধানমন্ত্রী লকডাউনের মেয়াদবৃদ্ধির সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এখন বিশ্বের অন্য উন্নত দেশগুলর তুলনায় ভারতের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। কারণ আমরা দ্রুত লকডাউউনে গিয়েছি।" 

করোনা-মৃত্যুর সঠিক পরিসংখ্যান নিয়ে আত্মপক্ষ সমর্থনের চেষ্টায় পশ্চিমবঙ্গ সরকার

ইতিমধ্যে কেন্দ্রের ঘোষণার আগেই ওড়িশা আর পাঞ্জাব ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়েছে লকডাউনের মেয়াদ। একই ভাবে এনওসি পাঠিয়ে মেয়াদবৃদ্ধির পক্ষে সওয়াল করেছে বিহার। তবে, বিহার সরকারের কাছে এখন বড় উদ্বেগ গ্রামীণ নির্মাণ শিল্প আর বন্যার ত্রাণকার্য। এই দুটি বিষয় লকডাউনের নিয়ন্ত্রণের বাইরে রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে। গত বছর বন্যায় বিহারের একাধিক জেলা বিপর্যস্ত হয়েছিল। সেই এলাকা পুনরায় গঠনের কাজ এখনও চলছে। এদিন এমনটা জানিয়েছে বিহার সরকারের একটি সূত্র। জানা গিয়েছে, এদিনের পর্যালোচনা বৈঠকে একাধিক রাজ্য জানিয়েছে, এখনই লকডাউন তুললে যদি পরিস্থিতি খারাপ হয়, সেটা সামলানোর পরিকাঠামো তাদের নেই। অবিজেপি রাজ্যগুলো আবার আর্থিক মন্দা নিয়ন্ত্রণে রাখতে ত্রাণ প্যাকেজের দাবি করেছে। 

করোনাকে কাবু করতে হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইন তৈরির লাইসেন্স পেল বেঙ্গল কেমিক্যালস

জানা গিয়েছে, শিল্প ও বিনিয়োগে জোয়ার আনতে ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন, "ধাপে-ধাপে বাণিজ্যের পরিসর বাড়াতে আবেদন করা হবে সংস্থাগুলোকে।" এদিন তিনি মুখ্যমন্ত্রীদের আরও বলেছেন, "আমি ২৪X৭ ঘণ্টাই জাগ্রত। যখন দরকার ফোন করে নেবেন।"