৯৬ বছর ধরে প্রতিদিন এই বাড়িতে বন্দনা হয় বীণাপানির

Updated: February 11, 2019 20:03 IST
হাওড়ায় তাঁদের বাড়িতে রাজস্থানী আদলে তৈরি এই সরস্বতী মূর্তির পুজো চলছে ৯৬ বছর ধরে।
৯৬ বছর ধরে প্রতিদিন এই বাড়িতে বন্দনা হয় বীণাপানির
হাওড়ার পঞ্চানন তলায় বাড়িটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন উমেশ চন্দ্র দাশ। পেশায় ছিলেন শিক্ষক। সেই সূত্রেই বাড়িতে সরস্বতী পুজো করতেন।
৯৬ বছর ধরে প্রতিদিন এই বাড়িতে বন্দনা হয় বীণাপানির
মন্দির প্রতিষ্ঠার সুপ্ত ইচ্ছার কথাটা তাঁর সন্দেতানর অজানা ছিল না। এক ছেলে রণেন দাশ ছিলেন ব্রিটিশ আমলের একজন সিভিল ইঞ্জিনিয়ার। কর্মসূত্রে তিনি রাজস্থানে গিয়ে দেখেছিলেন সেখানে শ্বেত পাথরের মূর্তি তৈরির প্রচলন রয়েছে। তারপর বাবার ইচ্ছে অনুযায়ী সরস্বতী মূর্তি গড়িয়ে এনেছিলেন হাওড়ার বাড়িতে।
৯৬ বছর ধরে প্রতিদিন এই বাড়িতে বন্দনা হয় বীণাপানির
দেবীর হাতে বীণা থাকলেও মূর্তিটি রাজস্থানী কায়দায় তৈরি।
৯৬ বছর ধরে প্রতিদিন এই বাড়িতে বন্দনা হয় বীণাপানির
১৯২৩ সালের ২৮ জুন স্নান যাত্রার দিনে রণেন দাশের ভাই সুরেশ দাশ মন্দির স্থাপন করেন এবং তাঁর দুই ভাই বীরেশ দাশ ও খগেশ দাশ তাঁর সাহায্য করেন। পরবর্তীকালে ২০০১ সালে মন্দিরটি সংস্কার করা হয়।
৯৬ বছর ধরে প্রতিদিন এই বাড়িতে বন্দনা হয় বীণাপানির
প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রতিদিন মন্দিরে পুজো হয়। আর সরস্বতী পুজো ছাড়াও স্নানযাত্রার দিনে মহোৎসব আয়োজিত হয়।
৯৬ বছর ধরে প্রতিদিন এই বাড়িতে বন্দনা হয় বীণাপানির
এই পুজোর অন্যতম আকর্ষণ হল ১০৮টি খুঁড়িতে সাজানো নৈবেদ্য। তার প্রতিটায় আপেল, কুল ও বাড়িতে তৈরি বাতাসা থাকা বাধ্যতামূলক।

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................