যতদিন মহিলারা সুন্দর থাকবে, ততদিনই ধর্ষণ থাকবেঃ ফিলিপিন্সের রাষ্ট্রপতি

রডরিগো বলেন, “ওরা বলছে দাভাওতে নাকি প্রচুর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। আরে যতদিন ওখানে সুন্দরী মহিলারা থাকবে, ততদিনই ওখানে আরও বেশি করে ধর্ষণের ঘটনা ঘটবে”।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
যতদিন মহিলারা সুন্দর থাকবে, ততদিনই ধর্ষণ থাকবেঃ ফিলিপিন্সের রাষ্ট্রপতি

ধর্ষণ এবং ধর্ষিতাদের নিয়ে অসৌজন্যমূলক মন্তব্য এই দেশের নেতাদের কাছে যেমন নতুন কিছু নয়, ঠিক তেমনই, তা, ভিনদেশী রাজনৈতিক নেতাদের কাছেও নতুন কিছু নয়। ফিলিপিন্সের রাষ্ট্রপতি রডরিগো দুতের্তের একদম নতুনতম বিতর্কিত মন্তব্যটিই তার প্রমাণ। এমনিতেই, সু-ভাষী হিসেবে কোনওদিনই খ্যাতি ছিল না তাঁর। বরং, এর আগে বহু মন্তব্যের ফলে দুর্নামই কুড়িয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবারের একটি মন্তব্য যেন তারই প্রসারণা। দুর্মুখ হওয়ার পরও যখন মানুষের ভোট পাচ্ছেন তিনি, তখন আর নিজেস স্বভাব বদলাতে যাবেনই বা কেন! বৃহস্পতিবার পুলিশের একটি রিপোর্ট নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তেমনই একটি আলটপকা মন্তব্য করে বসেন তিনি। পুলিশের সেই রিপোর্টে বলা হয়েছিল, তাঁর শহর দাভাওতে যৌনহিংসার বহু উল্লেখযোগ্য দৃষ্টান্ত রয়েছে। প্রসঙ্গত, দাভাওয়ের এক সময়ের মেয়র ছিলেন তিনি।

তার উত্তরে রডরিগো বলেন, “ওরা বলছে দাভাওতে নাকি প্রচুর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। আরে যতদিন ওখানে সুন্দরী মহিলারা থাকবে, ততদিনই ওখানে আরও বেশি করে ধর্ষণের ঘটনা ঘটবে”।

রাষ্ট্রপতি বলতে থাকেন, “আর প্রথম অনুরোধেই কে-ই বা আর যৌনতা করতে চায়? মহিলারা কি অনুমতি দেবে? দেবে না। প্রথমবারেই কেউ যৌনতায় সায় দেয় না। সেটাই তো ধর্ষণ”।

এই মন্তব্যের ফলে মহিলা কমিশনের সদস্য সহ দেশের মহিলাদের মধ্যে ছিছিক্কার পড়ে যায় তাঁকে নিয়ে। সেই ছিছিক্কারকে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে রডরিগোর মুখপাত্র বলেন, “আমার মনে হয় না, রাষ্ট্রপতি রসিকতার ছলে যা বলেছেন, তাকে এত গুরুত্ব দেওয়া উচিত”।

দু’বছর আগে ফিলিপিন্সের ক্ষমতায় আসার পর থেকেই একের পর অসংবেদনশীল মন্তব্য করে যায় রডরিগো। গত বছরই তিনি বলেছেন, দেশের সেনাবাহিনীরা যে অংশে দায়িত্বে রয়েছেন, সেই অংশ থেকে সর্বোচ্চ তিনজন মহিলাকে ধর্ষণ করতেই পারে তারা। আইন তাদের কিছু বলবে না। তিনি বলেন, “আপনারা যদি তিনজন অবধি মহিলাকে ধর্ষণ করেন, তাহলে আমি কথা দিচ্ছি, তারপরে আপনাদের দায়িত্ব আমার ওপর। আইন আপনাদের কোনও শাস্তি দেবে না”।

লেখাই সঙ্গত যে, রাষ্ট্রপতির অফিস থেকে সেই মন্তব্যটিকেও ‘রসিকতা’ বলে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল।

.



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর, আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

পড়ুন | Read In

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................