সুশান্তকাণ্ডের তদন্তকারী পুলিশ আধিকারিককে "জোর করে কোয়ারান্টাইন" করা হলো

Sushant Singh Rajput Death Case: বিহার পুলিশের আইপিএস আধিকারিক বিনয় তিওয়ারি মুম্বই পৌঁছনোর পরে তাঁকে বৃহন্মুম্বই পুরসভা জোর করে কোয়ারান্টাইন করে দেয়

Patna IPS officer Vinay Tiwari: বিহার পুলিশের তদন্তকারী দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন এই আইপিএস আধিকারিক

হাইলাইটস

  • সুশান্তকাণ্ডের তদন্তে নয়া মোড়
  • অভিনেতার মৃত্যু রহস্যের তদন্তে থাকা আইপিএস আধিকারিক কোয়ারান্টাইন
  • বিহার থেকে মুম্বই পৌঁছনোর পর তাঁকে কোয়ারান্টাইন করা হলো
পাটনা:

সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর সঙ্গে সম্পর্কিত একটি মামলা নিয়ে যেন ক্রমশই দ্বন্দ্ব জোরদার হচ্ছে মুম্বই (Mumbai) পুলিশ এবং বিহার পুলিশের মধ্যে। রবিবার বিহারের ডিজিপি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে অভিযোগ করেছেন যে ওই বলিউড অভিনেতার মৃত্যুর পর তদন্তের জন্যে মুম্বইয়ে যাওয়া পাটনার আইপিএস আধিকারিক বিনয় তিওয়ারিকে (Patna IPS officer Vinay Tiwari) মুম্বই পুরসভার থেকে "জোর করে কোয়ারান্টাইন" করা হয়েছে। প্রয়াত সুশান্ত সিং রাজপুতের অভিযোগের ভিত্তিতে "আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার" একটি মামলার তদন্ত করতে মুম্বইয়ে যাওয়া বিহার পুলিশ দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিনয় তিওয়ারি। বিহার পুলিশের ডিজিপি পাণ্ডে টুইটে লেখেন, "আইপিএস আধিকারিক বিনয় তিওয়ারি বিহার পুলিশের তদন্তকারী দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য পাটনা থেকে আজ মুম্বই পৌঁছনোর পরেই তাঁকে বৃহন্মুম্বই পুরসভার কর্মকর্তারা জোর করে সকাল ১১টা থেকে কোয়ারান্টাইন করে রেখেছে।"

সুশান্তের সঙ্গে থাকতাম ঠিকই কিন্তু ৮ জুন ছেড়ে চলে আসি: রিয়া চক্রবর্তী

গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে বলেন, "তাঁদের বারবার অনুরোধ থাকা সত্ত্বেও তাঁকে আইপিএস মেসে থাকার বন্দোবস্ত করা হয়নি এবং তিনি গুরগাঁওয়ের একটি গেস্ট হাউসে বর্তমানে রয়েছেন।"

১৪ জুন সুশান্ত সিং রাজপুতকে নিজের বাড়িতে ঝুলন্ত অবস্থায় (Sushant Singh Rajput Death) পাওয়ার পর পুলিশ অনুমান করে যে, অভিনেতা আত্মহত্যা করেছিলেন। যদিও পরে এই মৃত্যু নিয়ে নানা রহস্যের গন্ধ পাওয়া যায়। এমনকী এই অভিযোগও ওঠে যে সুশান্ত বলিউডের কুখ্যাত নেপোটিজমের শিকার। মহারাষ্ট্র পুলিশ তদন্তে নেমে এখনও পর্যন্ত রিয়া চক্রবর্তী, পরিচালক-প্রযোজক সঞ্জয় লীলা বনসালি, চলচ্চিত্র নির্মাতা আদিত্য চোপড়া, পরিচালক মুকেশ ছাবড়া, চলচ্চিত্র নির্মাতা শেখর কাপুর এবং চলচ্চিত্র সমালোচক রাজীব মাসান্দ সহ ৪০ জনেরও বেশি মানুষকে ইতিমধ্যেই জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

"রিয়া চক্রবর্তীকে খুঁজে পাচ্ছে না আমার দল", পাটনায় বললেন বিহার পুলিশের ডিজি

সুশান্তের মৃত্যুর কিছুদিন পরেই তাঁর বাবা কে কে সিং পাটনার রাজেন্দ্রনগর থানায় এফআইআর দায়ের করেন অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে। তিনি অভিযোগ করেন যে, রিয়া তাঁর ছেলে সুশান্তকে আর্থিকভাবে প্রতারণা করেছেন, মানসিক নির্যাতন করেছেন এবং আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিয়েছেন । শুধু রিয়াই নন, বিহার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এফআইআর-এ রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তী-সহ পরিবারের মোট ৬ জন সদস্যের নাম রয়েছে।