বিমানে ওঠার আগে হঠাৎই অসুস্থ যাত্রী, কর্মীদের তৎপরতায় প্রাণে বাঁচলেন তিনি

Kolkata Airport: গোএয়ারের ফ্লাইটে বাগডোগরা যাওয়ার কথা ছিল জে রায়চৌধুরী নামে ওই যাত্রীর, বিমানবন্দরের নিরাপত্তা কর্মীদের সামনেই বুকে ব্যথা হয় তাঁর

বিমানে ওঠার আগে হঠাৎই অসুস্থ যাত্রী, কর্মীদের তৎপরতায় প্রাণে বাঁচলেন তিনি

কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটিশন বা সিপিআরের সাহায্য়ে ওই ব্যক্তির জ্ঞান ফেরান CISF Personnel

হাইলাইটস

  • কলকাতা বিমানবন্দরের সিআইএসএফ কর্মীদের তৎপরতায় প্রাণে বাঁচলেন বিমানযাত্রী
  • হঠাৎই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে জ্ঞান হারান ওই ব্যক্তি
  • বিমানযাত্রীর উপর সিপিআর পদ্ধতি প্রয়োগ করে তাঁর হুঁশ ফেরান সিআইএসএফ কর্মী
কলকাতা:

কলকাতা বিমানবন্দরের (Kolkata Airport) সিআইএসএফ কর্মীদের তৎপরতায় এ যাত্রা প্রাণে বেঁচে গেলেন এক বিমান যাত্রী। জানা গেছে, বাগডোগরা যাওয়ার জন্যে কলকাতা বিমানবন্দর (West Bengal) থেকে বিমান ধরতে এসেছিলেন জে রায়চৌধুরী নামের ওই ব্যক্তি, কিন্তু নির্ধারিত বিমানে ওঠার আগেই আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। গোএয়ারের ফ্লাইটে বাগডোগরা যাওয়ার কথা ছিল ওই যাত্রীর। কিন্তু বিমানবন্দরের নিরাপত্তা কর্মীদের (CISF Personnel) সামনেই বুকে ব্যথা অনুভব করেন এবং তারপরেই জ্ঞান হারান তিনি। ওই যাত্রীর অসুস্থতার ঘটনা চোখে পড়ায় সঙ্গে সঙ্গে এগিয়ে আসেন দুই সিআরপিএফ কর্মী। তাঁদের তৎপরতাতেই বড়সড় বিপদ থেকে বেঁচে যান ওই ব্যক্তি। ওই বিমানযাত্রী অসুস্থ হয়ে জ্ঞান হারানোর সঙ্গে সঙ্গেই সিআইএসএফ কর্মীরা তাঁর উপর কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটিশন (CPR) পদ্ধতির প্রয়োগ করেন, তারপর ধীরে ধীরে সংজ্ঞা ফিরে পান তিনি।

মালদহে নির্মীয়মাণ সেতু ভেঙে পড়ে মৃত কমপক্ষে ৩, আহত আরও

শনিবার সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে বিমানবন্দরের সিকিউরিটি হোল্ড এরিয়া বা নিরাপত্তাধীন এলাকায় জে রায়চৌধুরী নামের বিমান যাত্রীটি হঠাৎই বুকে ব্যথা অনুভব করেন, তারপরেই অজ্ঞান হয়ে যান তিনি।

সিআইএসএফের জনসংযোগ দফতরের সহকারী নির্দেশক হেমেন্দ্র সিং জানান: "ওই ঘটনায় তক্ষুণি সেখানে ছুটে আসেন আমাদের সাব ইন্সপেক্টর পার্থ বোস, তিনি দেখেন যে ওই যাত্রী অচেতন অবস্থায় পড়ে আছেন, তাঁর শ্বাস-প্রশ্বাস অস্বাভাবিক ছিল। তখনই তিনি অন্যান্য সহকর্মীদের সহায়তায় ওই যাত্রীকে কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটিশন বা সিপিআর দেন, যার ফলে হুঁশ ফিরে পান ওই যাত্রী।"

ফেসবুকে লাইভ-স্ট্রিমিং করে বাইকে কেরামতি দেখাতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু

সিপিআর বা কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটিশন আপদকালীন পরিস্থিতিতে ব্যবহার করা হয়, যা হঠাৎ করে কোনও মানুষের হৃদস্পন্দন বন্ধ হয়ে গেলে প্রাথমিকভাবে তা চালু করতে সাহায্য করে। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের পরামর্শ অনুসারে যদি কোনও ব্যক্তি হৃদরোগে আক্রান্ত হন তবে তাৎক্ষণিক ভাবে তাঁর উপর কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটিশন প্রয়োগ করলে অসুস্থ ব্যক্তিটির বেঁচে থাকার সম্ভাবনা দ্বিগুণ বা তিনগুণ হয়ে যায়। আর সেই পদ্ধতি মেনেই এবার বিমানযাত্রীর প্রাণ বাঁচালেন বিমানবন্দরের সিআইএসএফ কর্মীরা।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com