শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসে ২৭ দিনের মাথায় অনশন প্রত্যাহার পার্শ্ব-শিক্ষকদের

১১ নভেম্বর থেকে সল্ট লেকের বিকাশ ভবনের কাছে মঞ্চ তৈরি করে নিজেদের দাবির কথা জানাতে থাকেন পার্শ্ব-শিক্ষকরা।

শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসে ২৭ দিনের মাথায় অনশন প্রত্যাহার পার্শ্ব-শিক্ষকদের

শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আশ্বাসে অবশেষে অনশন প্রত্যাহার পার্শ্ব-শিক্ষকদের।

বেতনবৃদ্ধির দাবিতে অনির্দিষ্টকালের অনশনে বসেছিলেন রাজ্যের পার্শ্ব-শিক্ষকরা (Para-teachers)। ২৭ দিন পরে বৃহস্পতিবার রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) জানিয়ে দিলেন তাঁদের দাবি বিবেচনা করা হবে। ফলে ১৫ নভেম্বর থেকে অনশনে বসা শিক্ষকরা অবশেষে অনশন প্রত্যাহার করে নিলেন। পার্শ্ব-শিক্ষকরা আশাপ্রকাশ করেছেন, আগামী তিন মাসের মধ্যে রাজ্য সরকার এমন কোনও সিদ্ধান্ত নেবে যাতে উভয়পক্ষই লাভবান হবে। পার্শ্ব-শিক্ষকদের ‘ঐক্য মঞ্চ'-র সহ-আহ্বায়ক ভগীরথ ঘোষ জানিয়েছেন, দুপুর তিনটের সময় অনশন প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। বুধবারই শিক্ষামন্ত্রী আশ্বস্ত করেছিলেন তাঁরা পার্শ্ব-শিক্ষকদের দাবিগুলি পর্যালোচনা করবেন।

সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে ভগীরথ ঘোষ জানালেন, ‘‘শিক্ষামন্ত্রীর দেওয়া আশ্বাসে আমরা সন্তুষ্ট। উনি ধৈর্য ধরে আমাদের কথা শুনেছেন। এবং জানিয়েছেন সরকার আমাদের দাবির সমস্ত নথি খতিয়ে দেখবে এবং পরবর্তী মন্ত্রিসভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হবে।''

রাজ্য সরকারের সঙ্গে পার্শ্ব-শিক্ষকদের বৈঠক 'সন্তোষজনক', তবুও চলবে আন্দোলন

রাজ্যে পার্শ্ব-শিক্ষকদের সংখ্যা ১০০০-এরও বেশি। ১১ নভেম্বর থেকে সল্ট লেকের বিকাশ ভবনের কাছে মঞ্চ তৈরি করে নিজেদের দাবির কথা জানাতে থাকেন পার্শ্ব-শিক্ষকরা। বেতনবৃদ্ধির পাশাপাশি তাঁদের পূর্ণসময়ের শিক্ষক হিসেবে বিবেচনা করার দাবিও জানান তাঁরা।

১৫ নভেম্বর থেকে অন্তত ৩৭ জন পার্শ্ব-শিক্ষক অনির্দিষ্টকালের জন্য অনশনে বসেন।

কাজ ফেলে প্রতিবাদ-আন্দোলনে বসায় পার্শ্ব শিক্ষকদের শো-কজ নোটিস ধরালো রাজ্য

শিক্ষামন্ত্রী তাঁদের আবেদন জানিয়েছিলেন, এই অনশন তুলে নিতে। তিনি জানিয়েছিলেন, এই মুহূর্তে এই দাবি মেনে নেওয়া রাজ্য সরকারের পক্ষে সম্ভব নয়। ভগীরথ ঘোষ জানাচ্ছেন, ‘‘পাকা চাকরি ছাড়া বেতনবৃদ্ধি করায় সমস্যা রয়েছে। একথা জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, তিনি দেখবেন কীভাবে আমাদের জন্য কল্যাণকর কিছু করা সম্ভব।''

ভগীরথ ঘোষ এও বলেন, তাঁরা এই বৈঠকের বিস্তারিত বিবরণ শিক্ষামন্ত্রীর হাতে তুলে দিয়েছেন। // তিনি আরও বলেন, ‘‘এই মুহূর্তে এই অনশন চালিয়ে যাওয়ার কোনও যৌক্তিকতা নেই। আমরা আশাবাদী, রাজ্য সরকার আমাদের সমস্যার কোনও সমাধান খুঁজে পাবেন আগামী তিন মাসের মধ্যে।''

পার্থ চট্টোপাধ্যায় বুধবার বলেন, আন্দোলনকারীদের দেওয়া সমস্ত কাগজপত্র ও নথি পড়ে দেখতে তাঁর সময় লাগবে। তিনি এও জানিয়েছিলেন, আন্দোলনকারী শিক্ষকদের বোঝাতে তিনি তাঁর পক্ষে যতটা সম্ভব সেই চেষ্টা করেছেন।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com