“কাটমানি” ইস্যুতে আইন নিজের হাতে না নেওয়ার আবেদন পঞ্চায়েতমন্ত্রীর

৮ জুন দলের বৈঠকে দলের নেতাদের কাটমানি নেওয়া থেকে বিরত থাকার জন্য হুঁশিয়ারি দেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

“কাটমানি” ইস্যুতে আইন নিজের হাতে না নেওয়ার আবেদন পঞ্চায়েতমন্ত্রীর
কলকাতা:

“কাটমানি” ফেরতের দাবিতে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ, অশান্তি অব্যাহত। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যবাসীকে আইন নিজের হাতে না নিয়ে, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনি পথে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানালেন রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। বিধানসভায় পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “কাটমানি” চাইলে, তাঁর বিরুদ্ধে, গ্রামপঞ্চায়েতের নির্দিষ্ট বিভাগে অভিযোগ জানালে, দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া যেত। তিনি বলেন, “তাঁদের থেকে নেওয়া টাকা ফেরতের দাবিতে পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিদের ঘিরে বিক্ষোভের বিভিন্ন খবর পাওয়া যাচ্ছে সংবাদমাধ্যমে”। বিক্ষোভ, প্রতিবাদের মুখে পড়ে, সরকারি প্রকল্প থেকে শতাধিক মানুষের থেকে নেওয়া লক্ষাধিক টাকা ইতিমধ্যেই ফেরৎ দিয়েছেন অনেক তৃণমূল নেতা।

প্রবল প্রতিবাদ, ১.৫ লক্ষ টাকা “কাটমানি” ফেরালেন তৃণমূলনেতা

সোমবার বিধানসভায় পঞ্চায়েতমন্ত্রী বলেন, যদি কোনও উপভোক্তা কোনও জনপ্রতিনিধিকে কাটমানি দেন, তাঁকে আইনি পদক্ষেপ চেয়ে, পুলিশে অভিযোগ দায়ের করতে হবে। যদি অভিযোগ প্রমাণিত হয়, আইন অনুযায়ী, অভিযুক্তের শাস্তি হবে। যদি অভিযোগ মিথ্য হয়, তাহলে অভিযোগকারীকে শাস্তি দেওয়া হবে। তবে মানুষকে নিজের হাতে আইন তুলে নেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে”।

সিপিআইএম ও বিজেপির বিরুদ্ধে, রাজ্যের বিভিন্নপ্রান্তে “কাটমানি” ইস্যুতে হওয়া প্রতিবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন তিনি। ৮ জুন দলের বৈঠকে দলের নেতাদের কাটমানি নেওয়া থেকে বিরত থাকার জন্য হুঁশিয়ারি দেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি যে সমস্ত নেতারা “কাটমানি” নিয়েছেন, তাঁদের সেই টাকা ফেরৎ দেওয়ারও নির্দেশ দেন দলনেত্রী।

“কাট মানি” নিয়ে তদন্তের দাবি করলেন বিজেপি সাংসদ

দলের কাউন্সিলরদের এক বৈঠকে তৃণমূল সুপ্রিমো বলেন, “আমার দলে আমি চোরদের চাই না। আমি যদি ব্যবস্থা নিই, তাহলে তাঁরা অন্যদলে যোগ দেবেন। কয়েকজন নেতা গরীবদের ঘরের টাকা অনুমোদনের বিনিময়ে ২৫ শতাংশ কমিশন চাইছেন। এটা দ্রুত বন্ধ করতে হবে। যদি আপনাদের কেউ এই টাকা নিয়ে থাকেন, তাহলে ফেরৎ দিন”।

"দলের কর্মীদের নিয়মানুবর্তীতা শেখাতে চেয়েছি" কাট মানি বিতর্কে বললেন মমতা

সোমবার সরকারি সুবিধা পাওয়া ৩২ জনকে ১.৫ লক্ষ টাকা ফেরান পূর্ব বর্ধমানের তৃণমূল নেতা। স্থানীয় গ্রামবাসীদের অভিযোগ, নবগ্রাম পঞ্চায়েতের শিবলুন গ্রামবাসীদের থেকে বাড়ি তৈরির প্রকল্পের টাকা থেকে ৪৫ জনের থেকে অবৈধভাবে কমিশন নিয়েছেন স্থানীয় তৃণমূলনেতারা। সম্প্রতি গ্রামে একটি বৈঠক হয়। গ্রামবাসীরা জানান, তাঁদের থেকে অবৈধভাবে নেওয়া টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তৃণমূল নেতারা। ৩২ জনকে দেড়লক্ষ টাকা ফিরিয়ে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)