This Article is From Aug 01, 2019

কুলভূষণকে পাকিস্তানের দেওয়া কনস্যুলার অ্যাক্সেসের বিষয় খতিয়ে দেখবে ভারত

Kulbhushan Jadhav Case: কুলভূষণ যাদবের মৃত্যুদণ্ড পুনর্বিবেচনা এবং কনস্যুলার অ্যাক্সেস দেওয়ার জন্য পাকিস্তানকে নির্দেশ দিয়েছিল আন্তর্জাতিক আদালত

কুলভূষণকে পাকিস্তানের দেওয়া কনস্যুলার অ্যাক্সেসের বিষয় খতিয়ে দেখবে ভারত

কুলভূষণ যাদবকে (Kulbhushan Jadhav) মৃত্যুদণ্ডের সাজা দিয়েছিল পাক সামরিক আদালত।

হাইলাইটস

  • শুক্রবার কুলভূষণের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন ভারতীয় কূটনীতিকরা: পাকিস্তান
  • বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে, কূটনৈতিক পদ্ধতিতেই উত্তর দেওয়া হবে: ভারত
  • গতমাসে রাষ্ট্রসংঘের আদালত, কুলভূষণের মৃত্যদণ্ড পুনর্বিবেচনা করতে বলে
নয়াদিল্লি:

কুলভূষণ যাদবকে (Kulbhushan Jadhav)  শুক্রবার কনস্যুলার অ্যাক্সেস দিয়েছে পাকিস্তান। তবে পাকিস্তানের সেই সিদ্ধান্ত খতিয়ে দেখবে ভারত। আন্তর্জাতিক আদালতের রায় মেনে নিয়ে, শুক্রবার কুলভূষণ যাদবকে ভারতের কনস্যুলার অ্যাক্সেস (Consular Access) দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। পাক প্রশাসনের তরফে জানানো হয়, শুক্রবার কুলভূষণের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন ভারতীয় কূটনীতিকরা। বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রবিশ কুমার বলেন, “ আমরা এই পদক্ষেপটি নিয়ে ভাবব। কূটনৈতিক পদ্ধতিতেই আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে আমরা আলোচনা চালিয়ে যাব”। ১৭ জুলাই আন্তর্জাতিক আদালতের রায়ে বলা হয়, কলভূষণ যাদবের (Kulbhushan Jadhav) মৃত্যুদণ্ড অবশ্যই পুনর্বিবেচনা করতে হবে পাকিস্তানকে। আন্তর্জাতিক আদালতের সেই রায় ছিল ভারতের কাছে বড় জয়। পাশাপাশি তাঁকে ভারতের কনস্যুলার অ্যাক্সেস (Consular Access) দেওয়ার জন্যও পাকিস্তানকে নির্দেশ দিয়েছিল আন্তর্জাতিক আদালত।

কুলভূষণকে “মুক্তি দিয়ে দেশে ফেরানো” হোক, পাকিস্তানকে বলল ভারত

ভারতের তরফে আন্তর্জাতিক আদালতে বলা হয়, কুলভূষণ যাদবকে ভারতের কনস্যুলার অ্যাক্সেস (Consular Access) না দিয়ে ভিয়েনা চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। ভারতের সেই যুক্তির সঙ্গে একমত হয় আন্তর্জাতিক আদালত। আদালতের তরফে বলা হয়, কুলভূষণ যাদবের(Kulbhushan Jadhav) মৃত্যুদণ্ড ততক্ষণ পর্যন্ত স্থগিত থাকবে, যতক্ষণ পর্যন্ত না পাকিস্তান কার্যকরভাবে, রায় এবং সাজার বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করে খতিয়ে না দেখবে”।

কুলভূষণকে (Kulbhushan Jadhav) নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতের রায়ের পরেই ট্যুইটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লেখেন, “সত্য ও ন্যায়বিচারের প্রকাশ হয়েছে। আমি নিশ্চিত, ন্যায়বিচার পাবেন কুলভূষণ”।

পাকিস্তানকে আবশ্যিকভাবে কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ড পুনর্বিবেচনা করতে হবে, বলল আন্তর্জাতিক আদালত

২০১৭-এর এপ্রিলে “গুপ্তচরবৃত্তি ও সন্ত্রাসবাদ”-এর অভিযোগে ৪৯ বছর বয়সী ভারতীয় নৌসেনা আধিকারিক কুলভূষণ যাদবকে (Kulbhushan Jadhav) মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেয় পাক সামরিক আদালত।  সেই সাজার ওপর স্থগিতাদেশের আবেদন জানিয়ে, আন্তর্জাতিক আদালতের দ্বারস্থ হয় ভারত।

১৫-১ ভোটে আন্তর্জাতিক আদালতের ১৬ সদস্যের বেঞ্চের বিচারপতি আব্দুলকাওয়াই আহমেদ ইউসুফ রায়ে পাকিস্তানকে নির্দেশ দেন, কুলভূষণের (Kulbhushan Jadhav)  মৃত্যুদণ্ড এবং রায়ের বিষয়টি বিষয়টি “কার্যকরভাবে পুনর্বিবেচনা করতে হবে”, এবং কোনওরকম দেরী না করে তাঁকে ভারতর কনস্যুলার অ্যাক্সেস দিতে হবে।

৪২ পাতার রায় পড়ার সময়, ভারতের আবেদনটির গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে পাকিস্তানের আপত্তি খারিজ করে আদালত বলে, কুলভূষণ যাদবকে নিয়ে “রায়ের ওপর লাগাতার স্থগিতাদেশ, কার্যকরভাবে পুনর্বিবেচনা করার অত্যবশকীয় শর্ত”।

(PTI থেকে পাওয়া তথ্য)