This Article is From Oct 28, 2019

প্রধানমন্ত্রী মোদির বিমানকে তাঁদের আকাশসীমা ব্যবহার করতে দিতে অস্বীকার করল পাকিস্তান!

India-Pakistan Relation: ভিভিআইপি বিমানগুলির জন্য "যে কোনও সাধারণ দেশ" আকাশসীমা ব্যবহারের ছাড়পত্র দেয়, তাই ইসলামাবাদের অবস্থানে উষ্মা প্রকাশ ভারতের

প্রধানমন্ত্রী মোদির বিমানকে তাঁদের আকাশসীমা ব্যবহার করতে দিতে অস্বীকার করল পাকিস্তান!

PM Modi-র বিমান চলাচলের জন্যে সে দেশের আকাশসীমা ব্যবহারের বিষয়ে পাকিস্তানের অনুমতি চায় ভারত (ফাইল)

নয়া দিল্লি:

ভারত ও পাকিস্তানের (India-Pakistan Relation) মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক ক্রমশই জটিল আকার ধারণ করছে। এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Modi) বিমানকে তাঁদের আকাশসীমা ব্যবহার করতে দিতে আপত্তি জানাল পাকিস্তান। ইসলামাবাদের এই মনোভাবে যথেষ্ট বিরক্ত নয়া দিল্লি। সূত্র মারফৎ খবর যে, এই ঘটনায় উষ্মা প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক অসামরিক বিমান চলাচল সংস্থা (আইসিএও) এর কাছে অভিযোগ করেছে ভারত। ভিভিআইপি বিমানগুলির জন্য "যে কোনও সাধারণ দেশ" আকাশসীমা ব্যবহারের ছাড়পত্র দেয়, তাই ইসলামাবাদের অবস্থানে উষ্মা প্রকাশ করে ভারত। সূত্র জানিয়েছে, "নির্ধারিত আইসিএও নির্দেশিকা অনুসারে ওভারফ্লাইট ছাড়পত্র চাওয়া হয়, এবং অন্যান্য দেশগুলি স্বচ্ছন্দে এই আবেদন মঞ্জুর করে এবং ভারতের পক্ষ থেকেই এ জাতীয় ওভারফ্লাইট ছাড়পত্র অব্যাহত রাখা হয়। কিন্তু পাকিস্তানের (Pakistan) এই অস্বীকৃতি নিয়ে আমরা আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থার কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ জানিয়েছি"।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম সে দেশের বিদেশমন্ত্রীর বার্তা তুলে ধরে বলেছে যে প্রধানমন্ত্রী মোদির সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য পাক-আকাশসীমা ব্যবহারের জন্য নয়াদিল্লির অনুরোধ প্রত্যাখান করেছে ইসলামাবাদ।

"বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি রবিবার ঘোষণা করেন যে ইসলামাবাদ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিমান চলাচলের বিষয়ে পাক-আকাশসীমা ব্যবহারের জন্য নয়াদিল্লির অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছে", জানিয়েছে সংবাদপত্র ডন । পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তরফে রেডিও পাকিস্তান এও জানিয়েছে যে, ভারতের হাই কমিশনার অজয় ​​বিসারিয়াকে লিখিতভাবে ইসলামাবাদের এই সিদ্ধান্ত সম্পর্কে অবহিত করা হবে।

‘‘পাক অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ন্ত্রণ করে জঙ্গিরা'': সেনাপ্রধান‌ বিপিন রাওয়াত

পাকিস্তান এর আগে ২০ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেওয়ার জন্যে প্রধানমন্ত্রী মোদির মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার বিমানটিকে তাঁদের আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি দিতে অস্বীকার করে।

রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের ইউরোপ সফরের জন্য পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতিও অস্বীকার করা হয়েছিল আগে।

বালাকোটে জয়শ-ই-মহম্মদ (জেএম) সন্ত্রাসবাদী শিবিরে ভারতীয় বিমান বাহিনী বোমা ফেলার পর থেকেই পাকিস্তান ভারতের জন্যে তাঁদের আকাশসীমা বন্ধ করে দিয়েছে। ২৭ মার্চ নয়াদিল্লি, ব্যাংকক এবং কুয়ালালামপুর ছাড়া সমস্ত বিমানের জন্য পাকিস্তান তাঁদের আকাশসীমা খুলে দেয়।

সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে "অপরিবর্তনীয় পদক্ষেপ" নিক পাকিস্তান: আমেরিকা

১৫ মে, পাকিস্তান ভারতীয় বিমানের জন্য তাঁদের আকাশসীমা নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ ৩০ মে পর্যন্ত বাড়ায়। কিন্তু ১৬ জুলাই ইমরান খানের দেশ সমস্ত অসামরিক বিমান চলাচলের জন্য তাঁদের আকাশসীমা পুরোপুরি উন্মুক্ত করে দেয়।

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদে ভারত জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদাকে বাতিল করে রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার ঘোষণার পর থেকেই পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতি তৈরি হয়।

ভারত আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে স্পষ্টভাবে বলেছে যে জম্মু ও কাশ্মীর সংক্রান্ত এই পদক্ষেপটি নিতান্তই একটি অভ্যন্তরীণ বিষয় এবং পাকিস্তানকে এর বাস্তবতা মেনে নেওয়ার পরামর্শও দেওয়া হয়।