ভারতের বাতাসকে দূষিত করতে বিষাক্ত গ্যাস ছড়াচ্ছে পাকিস্তান-চিন: বিজেপি নেতা

দেশের রাজধানীতে দূষণ ছড়ানোর জন্যে হরিয়ানা ও পাঞ্জাবের খড় পোড়ানোকেই দোষারোপ করেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী, এ নিয়ে কেজরিওয়ালের সমালোচনা করেন বিজেপি নেতা

ভারতের বাতাসকে দূষিত করতে বিষাক্ত গ্যাস ছড়াচ্ছে পাকিস্তান-চিন: বিজেপি নেতা

মোদি-অমিত শাহ জুটি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই হতাশায় ভুগছে পাকিস্তান, বলেন Vineet Agarwal Sharda

Meerut (Uttar Pradesh):

দিল্লি ও তাঁর আশেপাশের অঞ্চলে দূষণ (Pollution) ছড়ানোর জন্যে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান ও চিনকে দায়ী করে বসলেন এক বিজেপি নেতা। বিনীত আগরওয়াল সারদা (Vineet Agarwal Sharda) নামের ওই বিজেপি নেতা অভিযোগ করেন যে, প্রতিবেশী ওই দুই দেশই ভারতের বাতাসকে দূষিত করতে বিষাক্ত গ্যাস ছড়াতে পারে। "সম্ভবত আমাদের ভয় পায় এমন কোনও প্রতিবেশী দেশই এই বিষাক্ত গ্যাস ছেড়েছে। আমার ধারণা যে পাকিস্তান অথবা চিন আমাদের ভয় পাচ্ছে, তাই ওই কাজ করছে তাঁরা", সংবাদসংস্থা এএনআইকে বলেন বিজেপি নেতা বিনীত আগরওয়াল সারদা। তবে তিনি আরও বলেন যে, "পাকিস্তান কোনও বিষাক্ত গ্যাস ছেড়েছে কিনা সেটা আমাদের গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে দেখতে হবে"। বিনীত আগরওয়াল সারদা বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Modi) এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই পাকিস্তান হতাশায় ভুগছে এবং কোনও লড়াইয়েই জিততে না পারায় ভারতের বিরুদ্ধে এই সব ধরণের কৌশল নিচ্ছে তাঁরা। "যখনই পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ করেছে,  তখনই তাঁরা হেরে গেছে। প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং অমিত শাহ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই পাকিস্তান হতাশ হয়ে পড়েছে।"

‘‘মানুষ মরছে'': দূষণ নিয়ে কেন্দ্র ও দিল্লি সরকারকে ভর্ৎসনা শীর্ষ আদালতের

দেশের রাজধানীতে দূষণ ছড়ানোর জন্যে হরিয়ানা ও পাঞ্জাবের খড় পোড়ানোকেই দোষারোপ করেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী, এ নিয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়ালেরও সমালোচনা করেন ওই বিজেপি নেতা।

"দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সহ অনেকেই বলেছেন যে, খড় পোড়ানোর জন্যে বা শিল্পের ফলে ধোঁয়া বেরোনোর জন্যেই এই দূষণ ছড়াচ্ছে। আমাদের মনে রাখতে হবে যে কৃষকরা আমাদের দেশের মেরুদণ্ড। তাই দূষণের জন্যে কৃষক ও শিল্পকে দোষ দেওয়া উচিত নয়"।

মোদির বারানসীতে দূষণ থেকে বাঁচতে স্বয়ং ভগবান মুখ ঢাকলেন অক্সিজেন মাস্কে!

বিজেপি নেতা বলেন, দুই নেতা প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং অমিত শাহ যেন মহাভারতের ভগবান কৃষ্ণ এবং অর্জুন, তাঁরা যেকোনও সমস্যার সমাধান করতে সক্ষম।

"এই সময় আসলে কৃষ্ণ ও অর্জুনের সময়। কৃষ্ণরূপে এ দেশে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং অর্জুন হয়ে তাঁর পাশে রয়েছেন অমিত শাহ, তাঁরাই দেশের প্রতি যত্ন নেবেন", বলেন তিনি ।

More News