This Article is From Jan 23, 2020

"সকালে কাগজ পড়া, সন্ধ্যার বিতর্কসভা দেখা বন্ধ করে দিয়েছি": Imran Khan

"নিজের অযথা 'সমালোচনা' না শুনতে সন্ধ্যায় টিভিতে আয়োজিত বিতর্কমুলক অনুষ্ঠান দেখা বন্ধ করে দিয়েছি। সকালে খবরের কাগজও এখন পড়ি না," দাভোসে এমন দাবি করলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

দাভোসে চলছে ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামের বার্ষিক বৈঠক।

হাইলাইটস

  • অযথা সমালোচনা না শুনতে সকালে কাগজ পড়া বন্ধ করে দিয়েছি
  • দাভোসে বললেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান
  • গত দেড় বছর ধরে সংবাদমাধ্যম অযথা তাঁর সমালোচনা করছে, অভিযোগ তাঁর
দাভোস:

নিজের অযথা 'সমালোচনা' না শুনতে সন্ধ্যায় টিভিতে আয়োজিত বিতর্কমূলক অনুষ্ঠান দেখা বন্ধ করে দিয়েছি। সকালে খবরের কাগজও এখন পড়ি না। বৃহস্পতিবার দাভোসে এমন দাবি করলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan)। তবে অযথা তাঁর সরকারের কর্মকাণ্ডকে শূলে চড়ানো হচ্ছে, এদিন এমনই অভিযোগ করেছেন ইমরান খান। দেশবাসীকে ধৈর্য ধরতে বলে তাঁর আবেদন, "প্রতিষ্ঠানিক ও প্রশাসনিক সংস্কারের স্বার্থে বেশ বেদনাদায়ক সময়ের মধ্যে যাচ্ছে পাকিস্তান। তাই একটু ধৈর্য ধরুন।" তাঁর সরকারের কর্মপন্থার বিরোধিতা করতে সংবাদমাধ্যমে প্রতি সন্ধায় বিতর্কসভা বসানো হচ্ছে, এমন অভিযোগ তুলে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, "আপনি স্বর্গে যাবেন কিন্তু মরবেন না। এটা খুব বাজে উদাহরণ। আমি বলবো, আপনারা টিউমার বাদ দিতে চান, কিন্তু বেদনা, অস্ত্রোপ্রচার চান না।" তিনি আরও বলেছেন, "গত ৪০ বছর ধরে আমি সমালোচনা শুনে শুনে অভ্যস্ত। কিন্তু গত দেড় বছর সংবাদমাধ্যম আমাকে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করছে।" তাঁর যুক্তি, "এধরনের সমালোচনা উপেক্ষা করার একটাই পন্থা, কাগজ পড়া, টিভি দেখা বন্ধ করে দিতে হবে। কিন্তু আমার আধিকারিকরা আবার সেসব দেখবেন, আর আমাকে এসে জানাবেন," এমন মন্তব্যও করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। 

‘‘উনি মরিয়া হয়ে উঠেছেন'': পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে বিঁধল ভারত

দাভোসে চলছে ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামের বার্ষিক বৈঠক। সেই বৈঠকের প্রাতঃরাশের সময় বৃহস্পতিবার বিশ্ব নেতাদের সামনে এমন মন্তব্য করেছেন ইমরান খান। তিনি দাবি করেছেন, "আমি পাকিস্তানকে মানবিক, জনকল্যাণকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে চাই। সেই লক্ষে কাজ করছে আমার সরকার। এমনটাই উদ্দেশ্য ছিল মহম্মদ আলি জিন্নারও।" এদিন পাক প্রধানমন্ত্রীর দেশবাসীর প্রতি আবেদন করেন "সময় খুব প্রতিকূল। সাময়িক বেদনা, কিন্তু বিশ্বাস করুন ফল দীর্ঘস্থায়ী। তাই এখন সংগ্রাম করুন, সামনে আমাদের ভালো সময় আসছেই।" 

‘‘চিন খুব ভাল বন্ধু'': উইঘুর মুসলিমদের প্রতি নীরবতা প্রসঙ্গে ইমরান খান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, "আপনি একটা প্রতিষ্ঠানকে সহজেই গুঁড়িয়ে দিতে পারবেন। কিন্তু সেটাকে পুনর্গঠন করতে আপনার অনেক সময় লেগে যাবে। আমাদের কাছে এরম অনেক 'কলঙ্কিত' প্রতিষ্ঠান আছে। যেখানে অনেক মানুষ কাজে থেকেও 'বেকার।' তাঁদের ঠিকুজিও ঠিক নয়। সেই সব মেরামত করতে সময় তো একটু লাগবেই।