This Article is From Aug 21, 2019

গ্রেফতার হতে পারেন প্রাক্তন মন্ত্রী পি চিদম্বরম, সরগরম রাজনৈতিক মহল

২০১০ থেকে মামলাটি একটি বড় রাজনৈতিক মোড় নিয়েছে, কংগ্রেস সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন পি চিদাম্বরম, গুজরাটে ভুয়ো এনকাউন্টার মামলায় গ্রেফতার করা হয় অমিত শাহকে

গ্রেফতার হতে পারেন প্রাক্তন মন্ত্রী পি চিদম্বরম, সরগরম রাজনৈতিক মহল

INX Media-র বিদেশি লগ্নিতে সরকারি ছাড়পত্র পাইতে দিতে সাহায্যের অভিযোগ চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে

নয়াদিল্লি:

পি চিদাম্বরমের (P Chidambaram), গ্রেফতারি থেকে সুরক্ষার আর্জি খারিজ করে দিয়েছে আদালত। INX Media মিডিয়া কেলেঙ্কারিতে গ্রেফতার হতে পারেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা। মঙ্গলবার সন্ধ্যায়, চিদাম্বরমের বাড়িতে যান সিবিআই আধিকারিকরা, সেখানেই তাঁকে একটি নোটিশ দিয়ে আসেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা। সেখানে উল্লেখ করা হয়, নোটিশটি দেখার ২ ঘন্টার মধ্যে তিনি যেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার অফিসে হাজিরা দেন। UPA সরকারের অর্থমন্ত্রী, বিদেশী বিনিয়োগে,  INX Media     কে সরকারি ছাড়পত্র পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে পি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে। সেই বিষয়টিতেই ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তাঁর ছেলে কার্তি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে।

"কোন্ আইনের অধীনে?":সিবিআইয়ের ২ ঘণ্টার নোটিসে প্রশ্ন চিদাম্বরমের আইনজীবীর

২০১০ থেকে মামলাটি একটি বড় রাজনৈতিক মোড় নিয়েছে, সেই সময় কংগ্রেস নেতত্বাধীন সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন পি চিদাম্বরম (P Chidambaram), গুজরাটে ভুয়ো এনকাউন্টার মামলায় গ্রেফতার করা হয় অমিত শাহকে।

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইয়ের অভিযোগ, গুজরাটের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালীন ২০০৫-এ সোহরাবুদ্দিন শেখ নামে এক দুষ্কৃতী, তার স্ত্রী এবং সাক্ষী থাকা এক বন্ধুকে বিচার ব্যবস্থার আওতার বাইরে মেরে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিলেন অমিত শাহ।  যদিও, তাঁর জড়িত থাকার কোনও প্রমাণ নেই, এই যুক্তিতে, অমিত শাহকে ছাড়পত্র দেয় আদালত।

পি চিদাম্বরম কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালীন, তাঁর অধীনেই চাকরি করেছেন এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের বর্তমান ডিরেক্টর এসকে মিশ্র। তবে চিদাম্বরমের (P Chidambaram) সঙ্গে মনোমালিন্যের জন্য তাঁকে আগের দফতরে ফেরানো হয়।

শীর্ষ আদালতে শুনানির আগে পি চিদাম্বরমের দিল্লির বাসভবনে হানা CBI-এর

পি চিদাম্বরম যদি গ্রেফতার হন তাহলে, তদন্তকারী সংস্থার হাতে গ্রেফতার হওয়া শীর্ষস্থানীয় কংগ্রেস নেতা হিসাবে প্রথম তিনি। 2G কেলেঙ্কারি, টেলিকম কেলেঙ্কারির মতো দুর্নীতিগুলো, যেগুলির বিরুদ্ধে জোরদার প্রচার করে ২০১৪ এ ক্ষমতায় এসেছিল বিজেপি, সেগুলিতে কেউ দোষী সাব্যস্ত হননি।

২০১৭-এর ডিসেম্বরে, সমস্ত অভিযুক্তকে মুক্তি দেয় দিল্লি হাইকোর্ট---তাঁদের মধ্যে রয়েছেন প্রাক্তন টেলিকমমন্ত্রী এ রাজা, এবং কানিমোঝি—26 স্পেকট্রাম বন্টনের ক্ষেত্রে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছিল তাঁদের বিরুদ্ধে।

দুর্নীতি এবং আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে সনিয়া গান্ধির জামাই রবার্ট বঢ়রার বিরুদ্ধেও। মঙ্গলবার গ্রেফতার হন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথের ভাইপো রাতুল পুরি।

Aircel-Maxis মামলায়, ৩,৫০০ কোটি টাকার চুক্তিতে ২০০৬-এ ৮০০ মিলিয়ন বিদেশী বিনিয়োগের ছাড়পত্র দেওয়ার অভিযোগ ওঠে, সেখানে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে নাম জড়ায় পি চিদাম্বরমের (P Chidambaram)। অনুমোদন দেওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন প্যানেলের, সিবিআইয়ের দাবি, সেখানে বেআইনিভাবে অনুমোদন দিয়েছে অর্থমন্ত্রক।