বছর চারেকের ঘুমন্ত শিশুকে অপহরণের চেষ্টা, ধরা পড়ল সিসিটিভি ক্যামেরায় !

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, অভিযুক্ত ব্যক্তি পাঞ্জাবের লুধিয়ানার এক বাড়ির বাইরে মায়ের কোলে ঘুমন্ত একটি বাচ্চা মেয়েকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে।

বছর চারেকের ঘুমন্ত শিশুকে অপহরণের চেষ্টা, ধরা পড়ল সিসিটিভি ক্যামেরায় !

Ludhiana Child kidnapping: সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে শিশু চুরির একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে

লুধিয়ানা, পাঞ্জাব:

পাঞ্জাবের লুধিয়ানায় এক ব্যক্তি, মঙ্গলবার রাতে একটি বাড়ির বাইরে মায়ের সঙ্গে শুয়ে থাকা এক চার বছরের শিশুকন্যাকে অপহরণের চেষ্টা (Ludhiana Child kidnapping) করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ল। পুরো ঘটনাটি সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে, ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের হাতে এসেছে ওই সিসিটিভি ফুটেজ (CCTV footage)। যেখানে দেখা যাচ্ছে রীতিমতো নাটকীয় কায়দায় অভিযুক্ত ব্যক্তি (Ludhiana Childlifter caught on CCTV) পাঞ্জাবের লুধিয়ানার ঋষিনগরে এক বাড়ির বাইরে মায়ের কোলে ঘুমন্ত একটি বাচ্চা মেয়েকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে। ওই ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, পা টিপে টিপে শিশুটির কাছে যায় অভিযুক্ত। তারপর মা ও ঠাকুমার কাছে শুয়ে থাকা শিশুকন্যাকে অতি সাবধানে নিজের হাতে তুলে নিয়ে গিয়ে তাঁর সঙ্গের গাড়িটিতে রাখে।

৭ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণ, বিক্ষোভ,বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা

এরপরেই শিশুটিকে নিয়ে যেই পালানোর চেষ্টা করে ওই ব্যক্তি সেই সময়েই ঘুম ভেঙে যায় শিশুটির মা ও ঠাকুমার। অভিযুক্তকে রীতিমতো তাড়া করেন এক মহিলা।

জানা যায়, শিশুটির মা ও ঠাকুমার চিৎকারে জেগে যান স্থানীয় মানুষজন। তাঁরাই অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ধাওয়া করে এলাকা থেকে একটু দূরেই হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে তাঁকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

"অভিযুক্তের বয়স প্রায় ৪০ বছর। তিনি প্রথমে বাড়ির কাছে এসে শিশুটির পরিবার ঘুমোচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখে যান। পরে তিনি একটি গাড়ি সঙ্গে করে নিয়ে এসে শিশুটিকে অপহরণ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু আওয়াজে শিশুটির মায়ের ঘুম ভেঙে যায়। তখনই স্থানীয় লোকজন ওই অপহরণকারীকে হাতেনাতে ধরে ফেলে,"  সংবাদসংস্থা এএনআইকে জানিয়েছেন এক পুলিশ আধিকারিক।

নভি মুম্বইয়ে উদ্ধার রাজ্যে অপহৃত কিশোরী

ওই পুলিশ আধিকারিক আরও জানান, "তবে কেন ওই ব্যক্তি শিশুটিকে অপহরণ করার চেষ্টা করছিলেন তা এখনও পরিষ্কার নয়।"

সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে শিশু চুরির একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।