দক্ষিণ কলকাতার ৮৫ বছরের বৃদ্ধাকে বেধড়ক মারল নার্স! গ্রেফতার সেবিকা

৮৫ বছরের বৃদ্ধাকে মারধরের অভিযোগে দক্ষিণ কলকাতা থেকে গ্রেফতার করা হল এক নার্সকে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
দক্ষিণ কলকাতার ৮৫ বছরের বৃদ্ধাকে বেধড়ক মারল নার্স! গ্রেফতার সেবিকা
কলকাতা: 

৮৫ বছরের বৃদ্ধাকে মারধরের অভিযোগে দক্ষিণ কলকাতা থেকে গ্রেফতার করা হল এক নার্সকে। গাঙ্গুলি বাগানের বাসিন্দা এই বৃদ্ধার ছেলের অভিযোগ, গত চার মাস ধরে তাঁর মাকে দেখাশোনা করার জন্য রাখা হয়েছিল এই নার্সকে (Nurse)। আচমকাই তাঁরা দেখতে পান মায়ের সারা শরীরে-মুখে কালশিটে দাগ। প্রকৃত ঘটনা জানতে এরপরেই বৃদ্ধার ঘরে বসানো হয় সিসিটিভি ক্যামেরা (CCTV Camera)। সেখানে দেখা যায়, বৃদ্ধার ওপর অত্যাচার চালাচ্ছে ওই নার্স সংযুক্তা পালিক। সঙ্গে সঙ্গে সিসিটিভি ফুটেজ সহ পাটুলি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন অশীতিপর বৃদ্ধার পরিবার। ঘটনা জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

 Google Doodle 'Favourite Villain': অমরীশ পুরীকে শ্রদ্ধা গুগল ডুডলের

অভিযোগ দায়েরের পরেই পুলিশ গ্রেফতার করেছে সংযুক্তাকে। ঘটনা সম্পর্কে বলতে গিয়ে বৃদ্ধা সুকুমারি সাহার ছেলে উত্তম সাহা জানিয়েছেন, কয়েকদিন ধরেই মায়ের গায়ে আমরা কালশিটে দেখতে পাচ্ছিলাম। ভেবেছিলাম, হয়তো চামড়ার কোনও অসুখ। চিকিৎসার জন্যডাক্তাবাবুর কাছেও নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁর ওষুধ লাগানোর পরেও দাগ না মেলানোয় সন্দেহ হয়। আমরা মায়ের ঘরে সিসিটিভি বসাই। তখনই জানতে পারি এই ভয়ঙ্কর ঘটনার কথা।

 ফোর্ট উইলিয়ামে নাবালিকাকে ধর্ষণের ঘটনায় মেডিক্যাল রিপোর্টের অপেক্ষায় পুলিশ

প্রসঙ্গত, কয়েক বছর আগে সেরিব্রাল স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার পরে চলাফেরা, ওষুধ খাওয়া, নিজের কাজ নিজে করতে পারেন না সুকুমারী দেবী। তাই তাঁকে দেখভালের জন্যই নার্স রাখেন উত্তমবাবু। কিন্তু সেবা করতে এসে যে এই ধরনের অত্যাচার চালাতে পারেন একজন নার্স জানার পর থেকেই বিস্মিত এবং ব্যথিত সাহা পরিবার।

পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে দোষীকে। উত্তমবাবুর কথায়, আমাদের পরিবারের একজন হয়ে গেছিলেন সংযুক্তা। তারপরেও কী করে তিনি এই ধরনের ঘৃণ্য কাজ করতে পারলেন! বুঝতে পারছি না কিছুতেই।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................