ভেঙে পড়া যুদ্ধবিমানের ভেতর থাকা কোনও যাত্রী জীবিত নেই: বায়ুসেনা

বায়ুসেনার (Indian Air Force ) যুদ্ধবিমান এ এন ৩২-এর (AN 32)  ভেতর থাকা কোনও যাত্রী জীবিত নেই বলে জানাল ভারতীয় বায়ুসেনা।

নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে টুইট করা হয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা তরফে।

হাইলাইটস

  • কোনও যাত্রী জীবিত নেই বলে জানাল ভারতীয় বায়ুসেনা
  • অরুণাচলপ্রদেশের একটি জায়গায় বিমানটির ধ্বংসাবশেষ দেখতে পাওয়া যায়
  • অসমের জোড়হাট থেকে ওড়ার পর বিমানটির আর কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না
নিউ দিল্লি:

বায়ুসেনার (Indian Air Force ) যুদ্ধবিমান এ এন ৩২-এর (AN 32)  ভেতর থাকা কোনও যাত্রী জীবিত নেই বলে জানাল ভারতীয় বায়ুসেনা। কয়েকদিন আগে অরুণাচলপ্রদেশের (Arunachal Pradesh) একটি জায়গায় বিমানটির ধ্বংসাবশেষ দেখতে পাওয়া যায়। এরপর উদ্ধারকাজ (Rescue Operation) শুরু হয়। আর তাতেই বায়ুসেনা মনে করছে বিমানে থাকা ১৩ জনের কেউ আর বেঁচে নেই। এ মাসের গোড়ার দিকে অসমের জোড়হাট থেকে ওড়ার পর বিমানটির আর কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। এরপর সেটি ধ্বংসাবশেষ দেখতে পেয়ে তল্লাশি অভিযান শুরু হয়। বায়ু সেনা তরফের জানানো হয়েছে আজ সকালে উদ্ধারকারী দলের ৮ জন সদস্য ওই জায়গায় পৌঁছে যান। তাঁদের থেকেই সেনা জানতে পেরেছে আর কেউ জীবিত নেই। নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে টুইট করা হয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা তরফে।

যুদ্ধ বিমানে ৮ জন বিমান কর্মী এবং ৫ জন যাত্রী ছিলেন। বায়ুসেনার এএন ৩২ বিমানের গন্তব্য ছিল অরুণাচল প্রদেশের মেচুকা। কিন্তু সেখানে ভারতীয় বায়ুসেনার এই যুদ্ধ  বিমান পৌঁছায়নি বলে খবর। ওড়ার কিছুটা সময়ে  পর থেকে বিমানটি সঙ্গে আর কোনও যোগাযোগই করা যায়নি। এরপর ভারতীয় বায়ুসেনার তরফে তল্লাশি অভিযান শুরু হয়। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান ভারতীয় বায়ুসেনার ভাইস চিফে সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে।

নিখোঁজ বায়ুসেনা বিমান এএন-৩২-র ধ্বংসাবশেষের সন্ধান মিলল অরুণাচলপ্রদেশে

এই এএন ৩২ বিমানটি রাশিয়ায় তৈরি। এতে দুটি ইঞ্জিন থাকে। ভারতীয় বায়ুসেনা গত চার দশকেরও বেশি সময় ধরে এই ধরনের বিমান ব্যবহার করে। বছর তিনেক আগে ২০১৬ সালে একটি এ এন ৩২ বিমান বঙ্গোপসাগরের উপর নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল। চেন্নাই থেকে ওড়ার পর তার কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি। সেই বিমানটিকে খুঁজে বার করতে ভারতীয় বায়ুসেনা নিজেদের সবচেয়ে বড় তল্লাশি অভিযান শুরু করেছিল। দীর্ঘদিন ধরে তল্লাশি চলে। কিন্তু কোথাও কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। বিমানে থাকা ২৯ জনকেই মৃত বলে ধরে নেওয়া হয়েছে। এবারও একই ঘটনা  ঘটল।