মুখ্যমন্ত্রীর অভয়বাণী, "বাংলায় চালু হবে না এনআরসি ও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল"

Citizenship Amendment Bill: বাংলায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল এবং এনআরসি কোনওটাই চালু হবে না, বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

মুখ্যমন্ত্রীর অভয়বাণী,

West Bengal: রাজ্যের মানুষদের মধ্যে কোনও বিভাজন করা হবে না, আশ্বাস দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

হাইলাইটস

  • বাংলায় প্রয়োগ হবে না নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল, বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
  • পশ্চিমবঙ্গে চালু হবে না এনআরসিও, একথাও বলেন মুখ্যমন্ত্রী
  • এর আগেও রাজ্যবাসীকে এই আশ্বাস দেন তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী
কলকাতা:

ফের একবার বাংলার (West Bengal) মানুষকে নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল (Citizenship Amendment Bill) এবং এনআরসি (NRC) নিয়ে অভয় দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি (Mamata Banerjee) বলেন, :এনআরসি এবং নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল নিয়ে রাজ্যের মানুষের চিন্তা করার দরকার নেই; কেননা আমরা কখনই বাংলায় এর প্রয়োগ হতে দেব না"। এর আগেও যখনই নাগরিক পঞ্জিকরণ বা এনআরসি এবং নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিলের কথা উঠেছে একই ভাবে দৃঢ়স্বরে তৃণমূল সুপ্রিমো জানিয়েছেন, এ রাজ্যে তিনি কখনোই রাজ্যের মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি হতে দেবেন না। এর  আগে গত সপ্তাহেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জি আসলে “একই মুদ্রার এ'পিঠ ও'পিঠ”। গত শুক্রবারই তিনি জানান, এনআরসি নিয়ে নিজের অবস্থানেই অনড় থাকবেন তিনি, তবে নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল তিনি মেনে নেবেন একটি বিশেষ শর্তে। কলকাতায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের একটি সমাবেশে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আপনারা যদি সকল সম্প্রদায়ের মানুষকেই নাগরিকত্ব দেন তবে আমরা এই বিল মেনে নেব। তবে আপনারা যদি ধর্মের ভিত্তিতে বৈষম্য করেন তাহলে আমরা এর বিরোধিতা করব এবং এর বিরুদ্ধেও লড়াই করব।”

শাসক-বিরোধী হট্টগোলের মধ্যেই সংসদে পেশ নাগরিকত্ব (সংশোধন) বিল: ১০ টি তথ্য

নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, অর্থনৈতিক মন্দা থেকে জনগণের দৃষ্টি সরাতেই কেন্দ্র এই বিলটি সামনে এনেছে। মমতা বলেন, “নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (CAB) এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (NRC) একই মুদ্রার দু'টি দিক। আমরা পশ্চিমবঙ্গে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের পরিচালনা করতে দেব না। আমি অন্যান্য দলগুলিকেও অনুরোধ করব নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে সমর্থন করবেন না।”  

এই রাজ্যে প্রথম থেকেই তৃণমূল কংগ্রেস সরকার এনআরসির তীব্র বিরোধিতা করে এসেছে। পশ্চিমবঙ্গে ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেনের প্রস্তাবিত বাস্তবায়নের বিরোধিতা ভোটের ইস্যুতে পরিণত হয়েছে। অসমের নাগরিক তালিকা থেকে ইতিমধ্যেই বাদ পড়েছেন ১৯.৬ লক্ষ মানুষ। এনআরসির বিরোধিতা বজায় রেখেই এবার নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল নিয়েও মুখ খুললেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

'হিন্দু-মুসলিমের মধ্যে অদৃশ্য বিভাজন?': নাগরিকত্ব বিল নিয়ে ঝাঁঝালো আক্রমণ শিবসেনার

এদিকে বিরোধীদের আপত্তি এবং উত্তর-পূর্বের ব্যাপক বিক্ষোভকে উপেক্ষা করেই সোমবার লোকসভায় (Lok Sabha) নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (Citizenship Amendment Bill) পেশ করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ । নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিলের উদ্দেশ্য ৬ টি সম্প্রদায়- হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ ও পার্সি - যাঁরা ভ্রমণের বৈধ নথি ছাড়াই ভারতে এসেছিলেন বা যাঁদের নথিপত্রের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে তাঁদের ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রদান করা।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News