Budget 2019: পেট্রোল ডিজেলের ট্যাক্স এক শতাংশ বৃদ্ধি, সোনার ট্যাক্স ১০ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১২.৫ শতাংশ হল

শুক্রবার ৫ জুলাই কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে তিনি কোন পদক্ষেপ করেন সেদিকে সকলের নজর থাকবে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

Budget 2019: জুলাই কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করতে চলেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন

নয়াদিল্লি:  শুক্রবার ৫ জুলাই কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। মধ্যবিত্তকে করের ক্ষেত্রে স্বস্তি দেওয়া থেকে শুরু করে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে তিনি কোন পদক্ষেপ করেন সেদিকে সকলের নজর থাকবে। দেশের অর্থনৈতিক বৃদ্ধি ও অর্থনৈতিক সীমাবদ্ধতার মধ্যে সমতা বিধান করাও তাঁর কাছে চ্যালেঞ্জ হবে বলে মনে করা হচ্ছে। গত মাসে বিপুল আসনে জিতে ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তনের পরে মোদি সরকারের আগামী পাঁচ বছরের পথনির্দেশের হদিশ মিলতে পারে এবারের বাজেটে। বার্ষিক অর্থনৈতিক সমীক্ষা যা বৃহস্পতিবার সংসদের উভয় কক্ষেই পেশ করা হয়েছে, তা থেকে সরকার জানিয়েছে, এবছর অর্থনৈতিক বৃদ্ধি ৭ শতাংশে পৌঁছতে পারে। তবে সাবধানতার সঙ্গে অর্থনৈতিক ঘাটতির চ্যালেঞ্জ সামলাতে হবে।
জেনে নিন এই বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ১০টি তথ্য
  1. স্বল্প সময়ের অর্থনৈতির ঘাটতির আকস্মিক পতন সামলাতে বাজেট থেকে বিপুল ভাবে পদক্ষেপ আশা করা হচ্ছে।
  2. অনেকেই মনে করছেন, অর্থমন্ত্রী সাধারণ মানুষকে স্বস্তি দেবেন ব্যক্তিগত আয়করের ক্ষেত্রে সীমারেখা বাড়িয়ে। পাশাপাশি কৃষি, স্বাস্থ্য ও সামাজিক ক্ষেত্রে খরচও বাড়ানো হবে।
  3. পরিকাঠামোজনিত খরচ যার মধ্যে অন্যতম রাস্তা ও রেলের মতো গুরুত্বপূর্ণ রয়েছে, তাতেও বড় পদক্ষেপ করা হতে পারে। গত পাঁচ বছরের সবথেকে কম বৃদ্ধি, মাত্র ৫.৮ শতাংশ এবছরের প্রথম তিন মাসে দেখা গিয়েছে।
  4. বৃদ্ধির এই ঘাটতির প্রতিফলন লক্ষ করা গিয়েছে কারখানা ও অটোমোবাইল সেলসেও। চিন ও আমেরিকার মধ্যবর্তী ব্যবসায়িক অসন্তোষ, ব্রেক্সিট ইত্যাদি নানা কারণেও বৃদ্ধি ব্যাহত হয়েছে।
  5. বৃদ্ধির এই মন্দগতিকে চাঙ্গা করতে নতুন নীতি নির্ধারিত হতে পারে এবারের বাজেটে।
  6. পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্কে পুঁজি বিনিয়োগ করা হতে পারে।  Insolvency and Bankruptcy Code process-এর মধ্যে ঢুকে পড়া বাধাকে সরাতে নন-ব্যাঙ্ক আর্থিক সংস্থায় (NBFCs) নগদের জোগান ঠিক রাখার পাশাপাশি কৃষি সংকটের মোকাবিলা এবং পরিকাঠামো ও সামাজিক ক্ষেত্রে বরাদ্দ বৃদ্ধি করা করা হতে পারে। 
  7. এই উদ্দীপনা ব্যবস্থার সাহায্যে বাজেটের ঘাটতি ৩.৫ শতাংশ জিডিপি পর্যন্ত যেতে পারে। লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩.৪ শতাংশ। 
  8. নির্মলা সীতারামনের সবথেকে বড় বাধা প্রত্যাশার থেকে অনেক কম রাজস্ব আদায়। যার মধ্যে অন্যতম জিএসটি। এর মোকাবিলায় তিনি কয়েকটি বিষয়ের মধ্যে সমন্বয় সাধন করতে পারেন। 
  9. প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি-র (PM-KISAN) মধ্যে সমস্ত কৃষককে অন্তর্ভুক্ত করার ফলে  বাজেটের খরচ ৭৫,০০০ কোটি টাকা থেকে শুরু করে ৯০,০০০ কোটি টাকা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে নতুন পেনশন স্কিমও। 
  10. পাশাপাশি নির্মলা সীতারামনকে স্বল্প করদাতাদের স্বস্তি দেওয়ার বিষয়টিও খেয়াল রাখতে হবে। গত ফেব্রুয়ারিতে অন্তর্বর্তী বাজেটে এই প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। 




পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................