Nirbhaya: অপরাধীদের নতুন মৃত্যু পরোয়ানার আর্জি খারিজ 

নির্ভয়া মামলার (Nirbhaya Case) চার অপরাধীর নতুন মৃত্যু পরোয়ানার জন্য তিহার জেল কর্তৃপক্ষের অনুরোধ শুক্রবার খারিজ করে দিল দিল্লির এক আদালত।

Nirbhaya: অপরাধীদের নতুন মৃত্যু পরোয়ানার আর্জি খারিজ 

নতুন মৃত্যু পরোয়ানার জন্য তিহার জেল কর্তৃপক্ষের আর্জি খারিজ করে দিল আদালত।

নয়াদিল্লি:

নির্ভয়া মামলার (Nirbhaya Case) চার অপরাধীর নতুন মৃত্যু পরোয়ানার জন্য তিহার জেল কর্তৃপক্ষের (Tihar Jail Authorities) অনুরোধ শুক্রবার খারিজ করে দিল দিল্লির এক আদালত। ৫ ফেব্রুয়ারি দিল্লি হাইকোর্ট কেন্দ্রের আবেদনের ভিত্তিতে দিল্লি হাইকোর্ট নির্ভয়ার অপরাধীদের আইনি সাহায্য নিতে এক সপ্তাহ সময় বেঁধে দেয়। শুক্রবার দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে বিচারক বলেন, ‘‘আমি যুক্তি দিয়ে একমত হতে পারছি না আইনজীবী বৃন্দা গ্রোভারের সঙ্গে এবং তিহার জেলের আবেদন বাতিল করছি।'' পৃথকভাবে ফাঁসি দেওয়া হোক নির্ভয়া মামলার অপরাধীদের, কেন্দ্রের এই আবেদনের শুনানি আগামী মঙ্গলবার হতে চলেছে বলে জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।  

Nirbhaya Case: মঙ্গলবার ৪ আসামির পৃথক ফাঁসির আবেদন শুনবে সুপ্রিম কোর্ট

এর আগে ওই চার অপরাধীর ফাঁসি কার্যকর করার বিষয়ে অনির্দিষ্টকালের স্থগিতাদেশ দেয় দিল্লি আদালত। দিল্লি হাইকোর্টের রায়কে ওই আদেশকে চ্যালেঞ্জ করেই শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয় সরকার।

সরকার চেয়েছিল এই চার আসামির কাছে আলাদা করে নোটিস পাঠানো হোক। এই পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি আর ভানুমথির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ সরকারের এই অনুরোধ খারিজ করে দিয়ে বলে যে, এই বিষয়টি এই মামলাকে আরও বিলম্বিত করবে।

Nirbhaya Case: ফাঁসি রদে ১ সপ্তাহের মধ্যেই শেষ করতে হবে সমস্ত আইনি চেষ্টা, বলল দিল্লি আদালত

সরকারের আইনজীবী তুষার মেহতা বলেন, ‘‘দেশের ধৈর্যের অনেক পরীক্ষা হয়েছে।''  

২০১২ সালে দিল্লিতে ২৩ বছরের প্যারামেডিক্যালের ছাত্রীকে গণধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় ১ ফেব্রুয়ারি ফাঁসি কার্যকর হওয়ার কথা ছিল বিনয় শর্মা, পবন গুপ্তা, মুকেশ সিং, এবং অক্ষয় সিংয়ের। তবে তাদের মধ্যে বিনয় শর্মা রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আর্জি জানানোয় ফাঁসি কার্যকর করা যায়নি। সেই আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ায় প্রাণভিক্ষার আর্জি জানায় আরেক সাজাপ্রাপ্ত অক্ষয় সিং। সেই সময় দিল্লির পাতিয়ালা আদালত জানায়, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত তাদের ফাঁসি কার্যকর করা যাবে না। প্রাণভিক্ষার আর্জি খারিজ হয়ে যাওয়ার ১৪ দিনের আগে সাজাপ্রাপ্তের ফাঁসি কার্যকর করা যায় না। এর আগে গত ২২ জানুয়ারি ওই ৪ আসামির ফাঁসির দিন ধার্য হলেও সেই সময়েও তা স্থগিত করে দিতে হয় মামলার অন্যতম আসামি মুকেশ সিংয়ের প্রাণভিক্ষার আবেদনের কারণে।

২০১২ এর ১৬ ডিসেম্বর, দিল্লিতে প্যারামেডিক্যালের এক ছাত্রীকে গণধর্ষণ এবং অকথ্য অত্যাচার করা হয় চলন্ত বাসে, পরে তাঁকে সেখান থেকে ছুঁড়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়, সেই সময় তিনি নগ্ন এবং রক্তাক্ত ছিলেন। ২৯ ডিসেম্বর নির্ভয়ার মৃত্যুর পর দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঢেউ আছড়ে পড়ে।