পুলিশের চোখে লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে সঙ্গীরা ছিনিয়ে নিয়ে গেল ১৭'টি খুনের মালিককে

কয়েকজন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি পুলিশকর্মী মায়ারাম, বিবেক শর্মা এবং হাকিম খানের চোখে লঙ্কার গুঁড়ো ছুড়ে মারে। অপহরণ করে নিয়ে যায় আরেক পুলিশকর্মী প্রমোদ যাদবকে।

পুলিশের চোখে লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে সঙ্গীরা ছিনিয়ে নিয়ে গেল ১৭'টি খুনের মালিককে

পুলিশের চোখে লঙ্কার গুঁড়ো ছিটিয়ে ভয়ঙ্কর খুনিকে ছিনিয়ে নিয়ে গেল তার সঙ্গীরা।

নিউ দিল্লি:

খুনের অভিযোগে অভিযুক্ত এক ব্যক্তি মধ্যপ্রদেশের ভিন্দে পুলিশের হেফাজত থেকে পালাল। তাকে গোয়ালিয়রের জেলে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ ভ্যানে করে। সেই সময়ই আচমকা দায়িত্বরত পুলিশকর্মীদের চোখে লঙ্কার গুঁড়ো ছুড়ে মারে ওই অভিযুক্তর সঙ্গীরা।


বুলন্দশহরের ঘটনার জের, সরলেন জেলা পুলিশের কর্তা

ভিন্দের স্থানীয় আদালতে তোলার পর সেখান থেকে একটি বেসরকারি ভ্যানে করে ১৭'টি খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত ভিম যাদবকে গোয়ালিয়র জেলে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ। গোয়ালিয়রের ট্রেন ধরার তাড়া থাকায় ওই পুলিশকর্মীরা ভীম যাদবকে নিয়ে একটি প্রাইভেট গাড়িতে লিফট চেয়ে নেন।

দূষণে দক্ষিণকে ছাপাল উত্তর কলকাতা, আবহাওয়াকে দুষল পর্ষদ

ওই সময়ই আচমকা কয়েকজন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি পুলিশকর্মী মায়ারাম, বিবেক শর্মা এবং হাকিম খানের চোখে লঙ্কার গুঁড়ো ছুড়ে মারে। অপহরণ করে নিয়ে যায় আরেক পুলিশকর্মী প্রমোদ যাদবকে। ওই অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের দলটি ভিম যাদবের সঙ্গে ছিনিয়ে নিয়ে যায় পুলিশদের সঙ্গে থাকা বন্দুকগুলোও। 

আহত পুলিশকর্মীরা সঙ্গে সঙ্গেই চিকিৎসার জন্য নিকটবর্তী হাসপাতালে যান। পুলিশ জানিয়েছে, পলাতক অভিযুক্ত ও তার সঙ্গীদের খোঁজে তদন্ত চলছে।