নড়বড়ে ব্রিটিশ আমলের জলাধার, ঠিকানা বদল হল মহাম্মদ আলি পার্কের দুর্গাপুজোর

তিলোত্তমার অন্যতম নামজাদা এবং প্রতীকী পুজোটি মহাম্মদ আলি পার্কে হয়ে আসছে ১৯৬৯ সাল থেকে।

নড়বড়ে ব্রিটিশ আমলের জলাধার, ঠিকানা বদল হল মহাম্মদ আলি পার্কের দুর্গাপুজোর
কলকাতা:

মধ্য কলকাতার অন্যতম বিখ্যাত মহাম্মদ আলি পার্কের (Mohammad Ali Park) পুজো এবার আর দেখতে পাবেন না। না, চিন্তার কারণ নেই, পুজো বন্ধ হচ্ছে না বরং ঠিকানা বদলাচ্ছে। মহাম্মদ আলি পার্কের (Mohammad Ali Park) দুর্গাপুজো এবার পাশেই একটি ফায়ার স্টেশনে স্থানান্তরিত করা হচ্ছে। ওই পার্কের নীচে ব্রিটিশ আমলের একটি জলাধারের জরাজীর্ণ অবস্থার কারণেই এমন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে আয়োজকদের, জানিয়েছেন পুজো কমিটির এক সদস্য। 

দুর্গাপুজোর ইতিহাস- তোষামদ থেকে স্তাবকতা ভায়া জাতীয়তাবাদ বিবর্তনের দুর্গাপুজো

তিলোত্তমার অন্যতম নামজাদা এবং প্রতীকী পুজোটি মহাম্মদ আলি পার্কে হয়ে আসছে ১৯৬৯ সাল থেকে। নিরাপত্তার কারণে পুজোটিকে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দমকল এবং জরুরি পরিষেবা মন্ত্রী সুজিত বসু (Fire and Emergency Services Minister Sujit Bose)। উত্সবের সময় সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে পার্ক পরিদর্শন করে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, “মেয়র ফিরহাদ হাকিম পুজো আয়োজকদের জানিয়েছিলেন যে, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন জলাধারটি মোটেও নিরাপদ নয় এবং মেরামতির কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত পার্কে কোনও প্রকাশ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন নিয়ে সতর্কও করে দিয়েছেন তাঁরা। মেয়র আমাদের অনুরোধ করেছেন অন্তত এই বছর পুজোর জন্য একটি বিকল্প জায়গা বেছে নিন।” 

রাজনীতির ময়দানে মা দুর্গাকে ঘিরে লড়াই তৃণমূল-বিজেপির

মঙ্গলবার পুজোর আয়োজকদের সঙ্গে সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ ফায়ার স্টেশন পরিদর্শন করেন সুজিত বসু। পাশাপাশি পুজোর নতুন অবস্থানটি অনুমোদন করেছেন তিনি। পুজো কমিটির এক সদস্য জানান, ১৯৬৯ সালের আগে ফায়ার স্টেশনেই আয়োজন করা হত এই পুজোটির। সুজিত বসু বলেন, “আমরা চাইনি পার্ক পাওয়া যাবে না বলেন মহাম্মদ আলি পার্কে দুর্গাপুজো এবছর বন্ধ হয়ে যাক। কিন্তু আয়োজকদের অবশ্যই নতুনটি পুজোর জায়গাতে সুরক্ষা নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে।”

মন্ত্রী আরও বলেন, যে জরুরি অবস্থায় দমকলের গাড়ি যাতে সুবিধা মতো ঢুকতে বেরোতে পারে তা নিশ্চিত করবেন আয়োজকরা। পুজো কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুরেন্দ্র কুমার শর্মা বলেন যে, এই সপ্তাহের শেষেই নতুন অবস্থানের ছাওনি বানানো শুরু করবেন তাঁরা।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News