This Article is From May 29, 2019

মন্ত্রিসভায় কারা? নাম ঠিক করতে পাঁচ ঘণ্টার ম্যারাথন বৈঠকে মোদী-শাহ

শোনা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়  যোগ দিতে চলেছেন অমিত। কিন্তু দলের একাংশ মনে করছেন এমনটা হবে না। এটা শুধুই ''গুজব''

শেষমেশ অমিত মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত হন কিনা সেটা জানা যাবে বৃহস্পতিবার

হাইলাইটস

  • নিজের মন্ত্রিসভা গঠনের ব্যাপারে তৎপরতা শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • বৃহস্পতিবার দ্বিতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন তিনি
  • মঙ্গলবার বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর সঙ্গে ৫ ঘণ্টা বৈঠক করলেন মোদী
নিউ দিল্লি:

লোকসভা নির্বাচনে (General Election 2019) অভূতপূর্ব সাফল্য পাওয়ার পর নিজের মন্ত্রিসভা গঠনের ব্যাপারে তৎপরতা শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Modi) । আগামীকাল মানে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন তিনি। তাঁর সঙ্গেই শপথ নেবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা (Union Cabinet) ।  এই মন্ত্রিসভায় কারা কারা জায়গা পাবেন তা ঠিক করতেই মঙ্গলবার বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর (BJP Chief Amit Shah) সঙ্গে ৫ ঘণ্টা বৈঠক করলেন মোদী। এবারে বিজেপির জয়ের পর থেকেই শোনা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়  যোগ দিতে চলেছেন অমিত। কিন্তু দলের একাংশ মনে করছেন এমনটা হবে না। এটা শুধুই ''গুজব''। আগামী দিনে বেশ কয়েকটি রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন আছে। তালিকায় আছে মহারাষ্ট্র থেকে শুরু করে ঝারখান্ড এবং হরিয়ানার মতো রাজ্য। পাশাপাশি আগামী বছর দিল্লি এবং বিহারেও বিধানসভা  নির্বাচন হবে। তাছাড়া পশ্চিমবঙ্গে ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে বিজেপি এই পরিস্থিতিতে অমিতকেই সেনাপতি হিসেবে দেখতে চাইছেন একটা বড় অংশ। শেষমেশ অমিত মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত হন কিনা সেটা জানা যাবে বৃহস্পতিবার।

নির্বাচনে বিপর্যয়ের পর রাজ্য মন্ত্রিসভায় রদবদল করলেন মমতা

এর পাশাপাশি এবারের মন্ত্রিসভা গঠন নিয়ে আরও কয়েকটি আলোচনা শুরু হয়েছে ফল প্রকাশের পর থেকেই। শোনা যাচ্ছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক অর্থমন্ত্রক প্রতিরক্ষামন্ত্রক, বিদেশ মন্ত্রকের দায়িত্ব বদল হতে পারে। অরুণ জেটলি গত ৫ বছর দেশের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলেছেন। কিন্তু নির্বাচন শুরুর কয়েক মাস আগে থেকেই শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন জেটলি। ফেব্রুয়ারি মাসে অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট পেশ করতেও পারেননি তিনি। আর তাই  অর্থমন্ত্রকের দায়িত্ব বদল হতে পারে বলে  শোনা  যাচ্ছে। কিন্তু একই সঙ্গে জানা গিয়েছে দিন কয়েক আগে অর্থ মন্ত্রকের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন জেটলি। তবে বিজেপির অন্দরে খবর কিছু পরিবর্তন হলেও মোটের উপর নিজের প্রথম মন্ত্রিসভার অনেক সদস্যকেই দ্বিতীয়বার দায়িত্ব দিতে চলেছেন মোদী। পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশার প্রতিনিধিত্ব মন্ত্রিসভায় বাড়তে চলেছে বলেই খবর। এবার পশ্চিমবঙ্গে অভূতপূর্ব সাফল্য পেয়েছে বিজেপি। এতদিন রাজ্যের দুই সাংসদ মন্ত্রিসভায় দায়িত্ব পালন করে এসেছেন। সেই সংখ্যা বাড়ে কিনা তা নিয়ে আলোচনা চলছে বিজেপির অন্দরে।

সারদা কাণ্ডের তদন্তে এবার অর্ণব ঘোষকে ডাকল সিবিআই

 বিহারে বিজেপি জোট শরিক জনশক্তি পার্টির নেতা রামবিলাস পাসোয়ান কি এবারও মন্ত্রিসভায় জায়গা পাবেন সেটাও আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছে। কিছুদিন আগে রামবিলাস বলেছেন ছেলে চিরাগকে তিনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় দেখতে চান। কিন্তু দলের অধিকাংশ সদস্য চাইছেন রামবিলাস নিজেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় সদস্য হোন। ছেলেও এমন কথাই বলেছেন সংবাদমাধ্যমে।

এদিকে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে কারা কারা উপস্থিত থাকছেন তার একটা প্রাথমিক তালিকা ঠিক হয়েছে। জানা গিয়েছে বাংলাদেশ মায়ানমার শ্রীলঙ্কা থাইল্যান্ড নেপাল এবং ভুটানের প্রতিনিধিরা আসবেন। তাছাড়া মোদী বিরোধী বলে পরিচিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের মতো নেতারাও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে হাজির থাকতে চলেছেন বলে খবর।